logo
মঙ্গলবার, ২৭ অক্টোবর ২০২০ ১২ কার্তিক ১৪২৭

  যাযাদি রিপোর্ট   ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০  

করোনাকালে ইয়ংবাংলার বিশেষ ওয়েবিনার

তরুণদের পরামর্শে পরিকল্পনা সাজাবেন নীতিনির্ধারকরা

তরুণদের পরামর্শে পরিকল্পনা সাজাবেন নীতিনির্ধারকরা

'এখন যৌবন যার, যুদ্ধে যাবার তার শ্রেষ্ঠ সময়'- কবি তার এ কথায় বোঝাতে চেয়েছেন তরুণরাই বিপস্নবের প্রতীক। তরুণরাই সাহস ও সক্ষমতায় যে কোনো দেশে পরিবর্তন আনতে পারেন। সেই পরিবর্তনের ধারায় যুক্ত হয়ে বাংলাদেশের তরুণ সমাজের অনেকেই সাফল্যের গল্পের নায়ক হয়েছেন। দেশ ও দেশের ইতিহাস ঐতিহ্য, বিজ্ঞান ও তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে এদেশের তরুণরা অনেকদূর এগিয়ে যেতে পারবেন সে প্রমাণও মিলেছে এরই মধ্যে। আর তরুণদের একটি সংবিধিবদ্ধ পস্ন্যাটফর্মের ছাতায় এনে নতুনভাবে পথনির্দেশ করার চেষ্টা করছে অনেক প্রতিষ্ঠান। তেমনি একটি আলোচিত প্রতিষ্ঠানের আয়োজন ছিল লেটস টক। তরুণদের সৃজনশীল ভাবনা নীতিনির্ধারকদের কাছে পৌঁছে দিতে আওয়ামী লীগের গবেষণা উইং সেন্টার ফর রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন-সিআরআইয়ের অঙ্গ প্রতিষ্ঠান ইয়ংবাংলা 'লেটস টক' এর অংশ হিসেবে সম্প্রতি তিনদিনের বিশেষ ওয়েবিনার অনুষ্ঠিত হয়। আগামী দিনের নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আজকের নীতিনির্ধারকদের ব্যবধান ঘুচিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে ভাবনা বিনিময়ের সুযোগ করে দেওয়ার উদ্দেশ্যেই এই ওয়েবিনারের আয়োজন করা হয়। সেশনগুলোতে নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনায় সংকট উত্তরণে নিজেদের ধারণা ও পরামর্শগুলো তুলে ধরেন তরুণরা। নীতিনির্ধারকরা তাদের আশ্বস্ত করেন, তরুণদের কাছ থেকে আসা এসব পরামর্শ বিবেচনায় নিয়েই তারা আগামী দিনের পরিকল্পনা সাজাবেন। এসময় করোনাভাইরাসের অভিঘাতে বিশ্বের অন্য সব দেশের মতো বাংলাদেশকেও যে আর্থ-সামাজিক সংকটের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে, সেখান থেকে আবার অগ্রগতির ধারায় ফিরতে তরুণদের সহযোগিতার প্রত্যাশা করেছেন তারা। গত ৩ সেপ্টেম্বর থেকে তিনদিনের এই 'লেটস টকের' সাতটি পর্বের মধ্যে দুটি সেশনে তরুণদের মুখোমুখি হয়েছিলেন সিআরআইয়ের ভাইস চেয়ারম্যান ও প্রধানমন্ত্রীর কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল। তাছাড়া কৃষিমন্ত্রী আব্দুর রাজ্জাক, শিক্ষামন্ত্রী দীপু মনি, প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমেদ, বিদু্যৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপু, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়ের প্রতিমন্ত্রী মো. এনামুর রহমান, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল যোগ দেন বিভিন্ন পর্বে। শেষ পর্বে যুক্ত হয়ে সায়মা ওয়াজেদ হোসেন বলেন, দেশকে এগিয়ে নিতে হলে তরুণদের সুযোগ করে দিতে হবে। সুতরাং খুব কম বয়স থেকে এ জিনিসগুলো শেখা দরকার। আমরা যদি চাই, আমাদের দেশ উন্নতি করব তাহলে আমাদের তরুণদের এ সুযোগগুলো তৈরি করে দেওয়া সবার দায়িত্ব। করোনাভাইরাস মহামারিতে ঘরবন্দি তরুণরা যখন হাঁপিয়ে উঠেছেন, তখন তাদের সাংস্কৃতিক কর্মকান্ডে আবার সক্রিয় করাসহ বেশকিছু পরামর্শ দিয়েছেন তারা। এর মধ্যে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও সংস্কৃতিবিষয়ক মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় 'কালচারাল কাউন্সিল' গঠন করে সাংস্কৃতিক কার্যক্রম ত্বরান্বিত করার উদ্যোগের পাশাপাশি সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানগুলোর বিকেন্দ্রীকরণ, কপিরাইট ও রয়্যালিটি প্রশ্নে সচেতনতা তৈরি এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান আয়োজনে বেসরকারি উদ্যোগ উলেস্নখযোগ্য। তাছাড়া কোভিড-১৯ পরবর্তী সময়ে সামাজিক নানা খাতে তরুণদের অংশগ্রহণ বাড়াতে জাতীয় যুব নীতি পরিকল্পনা আধুনিকায়ন, তরুণদের নানা প্রকল্প বাস্তবায়নে যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয় এবং সমাজকল্যাণ মন্ত্রণালয়ের অধীনে বাজেট বরাদ্দ, সারা দেশে স্বেচ্ছাসেবী তরুণ ও তাদের সংগঠনগুলোর একটি জাতীয় তালিকার আওতায় আনাসহ বিভিন্ন দাবি জানিয়েছেন তারা। তারা বলছে, প্রধানমন্ত্রীর অফিসের অধীনে ন্যাশনাল ইয়ুথ কাউন্সিলকে আরও বিস্তৃত করে 'ন্যাশনাল ইয়ুথ সেল' গঠন করা যেতে পারে। সোশ্যাল সেফটি নেট ও ন্যাশনাল সার্ভিস প্রোগ্রামের মতো স্থানীয় সরকারের নানা উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডে তরুণদের অংশগ্রহণ বাড়ালে আগামী দিনের নেতৃত্ব তৈরি হবে বলে মনে করেন তরুণদের অনেকেই। প্রসঙ্গত, নীতিনির্ধারকদের সঙ্গে তরুণদের যোগসূত্র স্থাপনের জন্য ২০১৪ সালে শুরু হয় 'লেটস টক'। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা 'লেটস টক'-এ যুক্ত হন তরুণদের সঙ্গে। এরপর বিভিন্ন পর্বে যুক্ত হয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও তার তথ্য এবং যোগাযোগ প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে