logo
সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ১৩ আশ্বিন ১৪২৭

  যাযাদি ডেস্ক   ১৪ আগস্ট ২০২০, ০০:০০  

সড়কে মৃত্যুর মিছিলে যুক্ত হলো আরও ১১ প্রাণ

কুড়িগ্রামে একই পরিবারের ৩ জনসহ ৪, পাবনায় স্কুলছাত্রসহ ৩ জন, রাজধানীতে এক যুবক খুলনায় মোটরশ্রমিক, যশোরে বাইসাইকেল চালক এবং গোপালগঞ্জে এক পাট ব্যবসায়ী নিহত হন

সড়কে মৃত্যুর মিছিলে যুক্ত হলো আরও ১১ প্রাণ
কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কের আরডিআরএস বাজারের কাছে বৃহস্পতিবার বিআরটিসি বাসের সঙ্গে সংঘর্ষে দুমড়ে মুচড়ে যাওয়া প্রাইভেট কার। ছবিতে উদ্ধার তৎপরতা চালাচ্ছেন ফায়ার সার্ভিস কর্মীরা -যাযাদি

দেশের ৬ জেলায় সড়কে দুর্ঘটনায় ১১ জন প্রাণ হারিয়েছেন। বুধবার রাত থেকে বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত এসব দুর্ঘটনা ঘটে। এর মধ্যে কুড়িগ্রামে একই পরিবারের ৩ জনসহ ৪ জন, পাবনায় স্কুলছাত্রসহ নিহত ৩, রাজধানীতে এক যুবক, খুলনায় মোটরশ্রমিক, যশোরে বাইসাইকেল চালক এবং গোপালগঞ্জে এক পাট ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। আমাদের স্টাফ রিপোর্টার ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর : রাজারহাট (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি জানান, কুড়িগ্রাম-রংপুর মহাসড়কে আরডিআরএস বাজারের কাছে বিআরটিসি বাস ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে ৪ জন নিহত হয়েছেন। নিহতদের মধ্যে ৩ জন একই পরিবারের সদস্য। বৃহস্পতিবার সকাল ৮টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। প্রত্যক্ষদর্শী ও পুলিশ জানায়, কুড়িগ্রাম থেকে ছেড়ে আসা একটি বিআরটিসি বাস বিপরীত দিক থেকে আসা প্রাইভেট কারকে মুখোমুখি ধাক্কা দিলে প্রাইভেট কারটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। ঘটনাস্থলে প্রাইভেট কারের চালক নরসিংদী শহরের মৃত শাহেদ আলীর পুত্র সোহেল মিয়া নিহত হন। কারের যাত্রী নরসিংদী জেলার শিশু পরিবারে কর্মরত সিনিয়র কারিগরি প্রশিক্ষক (টিআই) আকবর হোসেন (৬২), তার স্ত্রী বিলকিছ বেগম (৪৫) ও পুত্র বেলাল হোসেন (২৬) হাসপাতালে মারা যান। এ ঘটনায় আহত হন আকবর হোসেনের মেয়ে আয়শা সিদ্দিকা (১৪) ও প্রাইভেট কারের সহকারী ওয়াসিম। ওয়াসিম চালক সোহেল মিয়ার ভাতিজা ও জালাল উদ্দিনের পুত্র। দুর্ঘটনার পর দুই ঘণ্টা ওই সড়কে যানবাহন চলাচল বন্ধ ছিল। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিসের লোকজন এসে আহতদের উদ্ধার করে যানবাহন চলাচল স্বাভাবিক করে। মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রেজাউল করিম। কুড়িগ্রাম সদর থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আনোয়ারুল ইসলাম জানান, বিআরটিসি বাসটি চিলমারী থেকে গোপালগঞ্জের দিকে এবং প্রাইভেট কারটি নরসিংদী জেলা থেকে কুড়িগ্রামের উলিপুর উপজেলার দিকে যাচ্ছিল। আরডিআরএস বাজারের কাছে দুর্ঘটনার পর বিআরটিসি চালক পালিয়ে যায়। কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডা. রেদওয়ান ফেরদৌস সজীব মৃতু্যর বিষয়টি নিশ্চিত করে জানান, একজন ঘটনাস্থলে এবং ৩ জন চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। পাবনা প্রতিনিধি জানান, পাবনার সুজানগর উপজেলার চিনাখড়ায় বাসের চাপায় ভ্যানের তিন যাত্রী নিহত হয়েছেন। বুধবার দিবাগত রাত ১টার দিকে চিনাখড়া বাজারে এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহতরা হলেন- চিনাখড়া উচ্চবিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্র ও দুলাই ইউপি সদস্য আবুল কালাম ২ আজাদের ছেলে সোহেল রানা (১৬), সুজানগর উপজেলার আন্ধারকোটা গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের ছেলে হারুন (২৪) ও সাঁথিয়া উপজেলার হাসানপুর গ্রামের ভ্যানচালক ইলিয়াস (৪৭)। স্থানীয় দুলাই ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজুল ইসলাম শাহজাহান জানান, পাবনা থেকে ঢাকাগামী একটি বাস যাত্রীবাহী ভ্যানকে চিনাখড়া স্কুল অ্যান্ড কলেজের সামনে চাপা দেয়। এ সময় ঘটনাস্থলেই ভ্যানচালক ইলিয়াস মারা যান। বাকি দুজনকে উদ্ধার করে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাদের মৃত ঘোষণা করেন। মাধপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ আলী রেজা বলেন, ঘাতক বাসটি পুলিশ হেফাজতে নেওয়া হয়েছে। এ ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের হয়েছে। এদিকে রাজধানীর মধ্য বাড্ডায় মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় জারমিন জামান (৩০) নামে এক যুবক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার ঢামেক হাসপাতাল পুলিশ ক্যাম্পের ইনচার্জ (পরিদর্শক) বাচ্চু মিয়া জানান, ময়নাতদন্তের জন্য মরদেহ মর্গে রাখা হয়েছে। তিনি জানান, গত রাত ১১টার দিকে মধ্য বাড্ডায় এই দুর্ঘটনা ঘটে। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মধ্যরাতে মৃত ঘোষণা করেন। পাইকগাছা (খুলনা) প্রতিনিধি জানান, খুলনার পাইকগাছায় সুজন (২৫) নামে এক মোটরশ্রমিক সড়ক দুর্ঘটনায় মারা গেছেন। বুধবার দুপুরে এইচআর পরিবহণের মালিককে টাকা দিয়ে বাড়ি ফেরার পথে ইজিবাইকের সাথে সংঘর্ষে তিনি গুরুতর আহত হন। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হলে বৃহস্পতিবার ভোর সাড়ে ৪টায় চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃতু্য হয়। তিনি এইচআর ট্রাভেলসের পাইকগাছা কাউন্টারের সুপারভাইজার ও পাইকগাছা পৌরসভার ৬নং ওয়ার্ডের শাহিনুর রহমানের ছেলে। অভয়নগর (যশোর) প্রতিনিধি জানান, যশোরের অভয়নগরে বেপরোয়াগতিতে মোটরসাইকেলের ধাক্কায় মিজানুর রহমান ডালিম (৫৫) নামে এক বাইসাইকেল চালকের মৃতু্য হয়েছে। বুধবার রাতে উপজেলার নওয়াপাড়া জুটমিলের সামনে যশোর-খুলনা মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটনা ঘটে। বৃহস্পতিবার সকালে মরহুমের জানাজা নামাজ মিল চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়। নিহত মিজানুর রহমান ডালিম নওয়াপাড়া জুটমিলের তাঁত বিভাগের শ্রমিক ও নওয়াপাড়া পৌরসভার ২নং ওয়ার্ড বাস্তুহারালীগের যুগ্ম আহ্বায়ক ছিলেন। গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, ঢাকা-খুলনা মহাসড়কের গোপালগঞ্জ সদর উপজেলার চন্দ্রদিঘলীয়া নামক স্থানে বাস ও প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষে রুহুল আমীন (৪৫) নামের এক পাট ব্যবসায়ী নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকালে মাওয়াঘাট থেকে খুলনার উদ্দেশে ছেড়ে আসা সেতু ডিলাক্সের একটি যাত্রীবাহী বাস ও খুলনার দৌলতপুর থেকে ছেড়ে আসা মুকসুদপুরগামী একটি প্রাইভেট কারের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে প্রাইভেট কার ও বাসের ১১ যাত্রী আহত হন। গুরুতর আহত পাট ব্যবসায়ী রুহুল আমীনকে গোপালগঞ্জ ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। মৃত রুহুল আমীনের বাড়ি খুলনা জেলার দৌলতপুরে। তারা দুই ভাই প্রাইভেট কার নিয়ে পাট কেনার জন্য গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে যাচ্ছিলেন। সদর থানার গোপীনাথপুর তদন্তকেন্দ্রের ইনচার্জ ইন্সপেক্ট আবু নাঈম এসব বিষয় নিশ্চিত করেছেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে