logo
সোমবার, ২৬ অক্টোবর ২০২০ ১১ কার্তিক ১৪২৭

  রায়হান রহমান   ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০  

কাটছে পারিবারিক নাটকের খরা

কাটছে পারিবারিক নাটকের খরা
'তোকে ভালোবাসিতে আমি' নাটকের শুটিংয়ের ফাঁকে শিল্পীরা
এই তো প্রায় কয়েক বছর আগেও নিয়মিত সাংসারিক বন্ধন ও পরিবারের হাজার রকমের টানাপোড়েন উঠে আসত টিভি পর্দায়। ধারাবাহিক কিংবা খন্ডনাটক, উভয় ক্ষেত্রেই থাকত পারিবারিক আবহের গল্প। যদিও মাঝে লম্বা এক সময় দু'একটি চরিত্রকে প্রাধান্য দিয়ে নাটক নির্মাণের হিড়িক দেখা গেছে। প্রেমিক-প্রেমিকা, স্বামী-স্ত্রী কিংবা কয়েকটি ব্যাচেলর জীবনই প্রাধান্য পেয়েছে সেসব নাটকে। ফলে দেশীয় নাটকের বড় একটি অংশ ভারতীয় সিরিয়ালমুখী হয়েছেন। তবে আশার কথা হচ্ছে, আবারও দেশীয় নাটকে ফিরছে পরিবারের গল্প। নন্দিত সব নির্মাতা এগিয়ে এসেছেন পারিবারিক গল্পের নাটক নির্মাণে। কার্যতই কাটছে দীর্ঘদিনের পারিবারিক নাটকের খরা। পুরনো ঐতিহ্যকে আবারও ফিরিয়ে আনতে এমন প্রচেষ্টা চালাচ্ছেন কয়েকজন মেধাবী নির্মাতা।

তেমনই একজন নির্মাতা নাজমুল রনি। সম্প্রতি 'তোকে ভালোবাসিতে আমি' শিরোনামে একটি পারিবারিক গল্পের নাটক নির্মাণে হাত দিয়েছেন তিনি। নাটকটি রচনা করেছেন চয়ন দেব। এতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সোহেল আরমান, নাজনীন চুমকি, অপূর্ব, সাফা কবির, জনি ও চমক।

এ বিষয়ে নির্মাতা জানান, 'বড় ভাই সোহেল আরমানের বিবাহবার্ষিকীকে কেন্দ্র করে তার বাড়িতে বেড়াতে আসে তারই দুই শ্যালিকা সাফা ও চমক। তাদেরকে ঘিরে দুই ভাই অপূর্ব ও জনির নানান ধরনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এগিয়ে যায় নাটকের গল্প। নাটকটিতে অভিনয় প্রসঙ্গে অপূর্ব বলেন, 'সোহেল ভাইয়ের সঙ্গে একই ফ্রেমে অভিনয় করাটা আমার কাছে ভীষণ ভালো লাগার। চুমকি আপাও এই নাটকে আছেন এটাও একটু বাড়তি ভালো লাগার বিষয়ও বটে। তাছাড়া পারিবারিক গল্পের নাটকে কাজ করছি, ভাবতেই ভালো লাগছে।'

সাফা কবির বলেন, 'এই নির্মাতার নির্দেশনায় আমার প্রথম কাজ করা। যেহেতু নাটকের গল্প পরিবারকে কেন্দ্র করে, তাই এতে কাজ করার সময় অন্যরকম এক ধরনের ভালো লাগা অনুভূত হয়েছে।'

দেশীয় নাটকের যে ক'জন নির্মাতা পারিবারিক আবহ নিয়ে নাটক নির্মাণের লড়াই করছেন, তাদের মধ্যে হানিফ সংকেত অন্যতম। সম্প্রতি তিনি 'অজ্ঞ-বিজ্ঞ সমাচার' নামের একটি নাটক নির্মাণ করেছেন। এরই মধ্যে নাটকটি প্রচারও হয়েছে। ইদানীংকালের অধিকাংশ নাটকে বাবা-মা'কে খুঁজে পাওয়া না গেলেও হানিফ সংকেতের এই নাটকটির গুরুত্বপূর্ণ চরিত্র 'বাবা-মা'। এতে আরও ফুটে ওঠেছে পারিবারিক ও সামাজিক চিত্র। আজকাল সমাজে এবং অনেক পরিবারেই নিজের ভাষা বিকৃত করে বাংলিশ চর্চা করা হয়। তেমনই একটি পরিবারের মা এবং সন্তানের বাংলিশ প্রীতি, বাবার প্রতিবাদ এবং আদর্শ পুত্রবধূর আগমনে পরিবারের বিভিন্ন সদস্যের মধ্যে ঘটতে থাকে নানা ঘটনা। সেসব ঘটনাই ফুটে উঠেছে এই নাটকে। এতে বিভিন্ন চরিত্রে দেখা গেছে আবুল হায়াত, দিলারা জামান, শহীদুজ্জামান সেলিম, মীর সাব্বির, জাকিয়া বারী মম, নিমা রহমান, সাবরিনা নিসা, ফাহিম, নজরুল ইসলামসহ আরও অনেককে।

এদিকে দীর্ঘদিন পর আবারও পারিবারিক গল্প নিয়ে তৌকীর আহমেদ নাটক নির্মাণ করেছেন। নাটকটির নাম 'রুপালি জ্যোৎস্নায়'। পরিচালনার পাশাপাশি এটি রচনাও করেছেন তৌকীর। এ প্রসঙ্গে তৌকীর জানান, 'এখানে অভিজ্ঞ অভিনয় শিল্পীদের পাশাপাশি নতুনরাও আছেন। তাদের নিয়েই পারিবারিক গল্পের নাটক এটি।' ধারাবাহিকটিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন শবনম ফারিয়া, রওনক হাসান, তাসনিয়া ফারিন, তানজিকা আমীন, মৌটুসী, শ্যামল মাওলা, আবুল হায়াত, দিলারা জামান। ৫২ পর্বের নাটকের এরই মধ্যে বেশ কিছু পর্ব চ্যানেল আইয়ে প্রচারিত হয়েছে।

ইতোমধ্যে এনটিভিতে প্রচার চলতি 'ফ্যামিলি ক্রাইসিস' শিরোনামের নাটকটি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। মারুফ রেহমানের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন মুহাম্মদ মোস্তফা কামাল রাজ। একটি যৌথ পরিবারের গল্পের এ নাটকে অভিনয় করেছেন শহীদুজ্জামান সেলিম, শর্মিলী আহমেদ, মুনিরা ইউসুফ মেমী, রোজী সিদ্দিকী, মনিরা আক্তার মিঠু, শবনম ফারিয়া, রুনা খান, সোহেল খান প্রমুখ। একই চ্যানেলে প্রচার হচ্ছে ধারাবাহিক নাটক 'পরের মেয়ে'। সৈয়দ জিয়াউদ্দিনের রচনায় 'পরের মেয়ে' পরিচালনা করেছেন হাবিব শাকিল। অভিনয় করেছেন সাদিয়া জাহান প্রভা, দিলারা জামান, ইন্তেখাব দিনার, গোলাম কিবরিয়া তানভীর, জিয়াউল হাসান কিসলু, মুনিরা ইউসুফ মেমী, ইলোরা গওহর, টয়া প্রমুখ। তাছাড়া বৈশাখী টিভিতে প্রচারিত হচ্ছে ধারাবাহিক নাটক 'খান বাড়ি বাড়াবাড়ি'। ইউসুফ আলী খোকনের রচনায় নাটকটি পরিচালনা করেছেন সকাল আহমেদ। অভিনয় করছেন পারসা ইভানা, কাজল সুবর্ণ, নিশাত প্রিয়ম, সামান্তা, মিম চৌধুরী ও মাহমুদুল ইসলাম মিঠু। পারিবারিক গল্পের আরেক ধারাবাহিক নাটক 'ফ্যামিলি ফ্যান্টাসি'। এটি পরিচালনা করছেন অনন্য ইমন। দেশ টিভির এ নাটকে দুই বোনের চরিত্রে অভিনয় করেছেন সালহা খানম নাদিয়া ও নাদিয়া আহমেদ। পারিবারিক নাটক প্রচারিত হচ্ছে বিটিভিতেও। নাটকের নাম 'কালের যাত্রা'। মামুনুর রশীদের উপন্যাস অবলম্বনে সবুজ ওয়ালিদের চিত্রনাট্যে নাটকটি নির্মাণ করেছেন আকরাম খান। ধারাবাহিক নাটকের পাশাপাশি পারিবারিক গল্পে নির্মিত হচ্ছে খন্ডনাটকও। গত বছরে আশফাক নিপুণের 'মিস শিউলি', বৃন্দাবন দাসের রচনায় দীপু হাজরার 'জয়েন ফ্যামিলি', মাবরুর রশিদ বান্নাহ পরিচালিত 'আশ্রয়' ও 'মুগ্ধ ব্যাকরণ'সহ বেশকিছু পারিবারিক গল্পের খন্ডনাটকও প্রশংসা কুড়িয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে