চলিস্নশ পেরিয়ে 'নবাবপত্নী'

চলিস্নশ পেরিয়ে 'নবাবপত্নী'
কারিনা কাপুর খান

চলিস্নশ পেরিয়ে ৪১-এ পা দিলেন বলিউড অভিনেত্রী ও সাইফ আলী খানের স্ত্রী কারিনা কাপুর খান। বলিউডপাড়ায় তাকে নবাবপত্নী বলেও ডাকা হয়। ১৯৮০ সালের এই দিনে তিনি মুম্বাইয়ে বিখ্যাত কাপুর পরিবারে জন্মগ্রহণ করেন। ছোট থেকেই উচ্ছল ও প্রাণবন্ত কারিনা অনেকটা 'জাব ইউ মেট' চলচ্চিত্রের 'গীত' চরিত্রের মতোই ছিলেন। বেশ কয়েকবার নিজেও স্বীকার করেছেন, 'জাব ইউ মেট' চলচ্চিত্রে তার বাস্তবিক ছোঁয়াটাই পড়েছে।

কারিনার অভিনয় করার ইচ্ছাটা ছেলেবেলা থেকেই। কারণ পৃথ্বীরাজ কাপুর, রাজ কাপুরের মতো বড় মাপের অভিনেতাদের রক্ত তার শরীরে বইছে। আর বলিউডের অন্যতম শক্তিশালী পরিবার হলো 'কাপুর খানদান'। টিভিতে মাধুরী, শ্রীদেবীর নাচ দেখে দেখে তাদের নাচের মুদ্রা, অভিনয় নকল করতেন তিনি। এরপর বড় বোন কারিশমা কাপুরকে বড় পর্দায় দেখে তার ইচ্ছা আরও প্রবল হয়। এই ইচ্ছাকে কাজে লাগিয়েই মাত্র ২০ বছর বয়সে 'রিফিউজি' সিনেমার মধ্য দিয়ে বলিউডে অভিষেক হয় কারিনার। যদিও সিনেমাটি সফলতার মুখ দেখেনি, তবুও তার অভিনয়ের জন্য 'সেরা নবাগতা' হিসেবে ফিল্মফেয়ার এওয়ার্ড পান কারিনা। এরপর 'মুঝে কুচ কেহনা হ্যায়' সিনেমা ব্যবসাসফল হলে আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে।

'চামেলি', 'ওমকারা', 'এইতরাজ', 'থ্রি ইডিয়টস'-এর মতন ভিন্নধর্মী সিনেমার পাশাপাশি 'গোলমাল ৩', 'রা.ওয়ান', 'কাভি খুশি কাভি গাম'-এর মতন বাণিজ্যিক ধারার সিনেমাতেও তাকে দর্শক লুফে নিয়েছে। তার ঝুলিতে আছে 'ফেভিকল সে', 'মেরা নাম ম্যারি হ্যায়'-এর মতন আইটেম গানও। বলিউডের তিন খানের বিপরীতেই রয়েছে তার হিট ছবি। জীবনসঙ্গী হিসেবে পেয়েছেন বলিউড অভিনেতা সাইফ আলী খানকে। জাতীয় পুরস্কার, ফিল্মফেয়ার এওয়ার্ড, স্টারডাস্ট এওয়ার্ডসহ অসংখ্য পুরস্কার রয়েছে তার ঝুলিতে।

ব্যক্তিগত জীবনে এক সন্তানের মা তিনি। স্বামী, সন্তান, পরিবার, কাজ, ভক্ত ও বন্ধুবান্ধব নিয়েই তার জগৎ। নিজেকে পরিচয় দেন 'গসিপ কুইন' হিসেবে। জীবনের শেষ নিঃশ্বাস পর্যন্ত কাজ করে যাওয়াই তার ইচ্ছা।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
আইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

Copyright JaiJaiDin ©2020

Design and developed by Orangebd

close

উপরে