রোববার, ২৯ নভেম্বর ২০২০, ১৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৭

এ বছর ইউরোপের ‘স্বর্ণবালক’ হালান্ড

এ বছর ইউরোপের ‘স্বর্ণবালক’ হালান্ড

এলেন, দেখলেন, জয় করলেন! ২০১৯-২০ মৌসুমে আর্লিং ব্রট হালান্ডের পরিসংখ্যান করলে এই কথা লিখতেই হবে। মাত্র এক মৌসুমেই নিজেকে পরিচিত করেছেন ইউরোপিয়ান ফুটবলের ভবিষ্যৎ হিসেবে। পেলেন তার স্বীকৃতিও। গত মৌসুমজুড়ে দারুণ খেলার পুরস্কার হিসেবে ইউরোপিয়ান ফুটবলে তরুণদের গোল্ডেন বয় জিতেছেন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের হয়ে খেলা নরওয়েজিয়ান এই ফুটবলার। ২১ বছর বা তার চেয়ে কম বয়সিদের মধ্যে সেরা ফুটবলারকে এই পুরস্কার দেয় ইতালিয়ান সংবাদপত্র তুত্তোস্পোর্ত। এ বছরের সেরা হিসেবে হালান্ডের নাম ঘোষণা করা হয়।

২০০৩ সাল থেকে চালু হওয়া এই পুরস্কার গত বছর জিতেছিলেন অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের পর্তুগিজ ফরোয়ার্ড জোয়াও ফেলিক্স। তার আগের বছর জিতেছিলেন বর্তমানে জুভেন্টাসে খেলা নেদারল্যান্ডসের ডিফেন্ডার মাটাইস ডি লিখট। ২০১৭ সালে জিতেছিলেন পিএসজির ফরাসি ফরোয়ার্ড কিলিয়ান এমবাপে। এই পুরস্কারের দৌড়ে এবার দ্বিতীয় হয়েছেন বার্সেলোনার তরুণ স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড আনসু ফাতি। বায়ার্ন মিউনিখের কানাডিয়ান মিডফিল্ডার আলফুঁস ডেভিস হয়েছেন তৃতীয়।

গত মৌসুমে দুই ক্লাবের হয়ে সর্বমোট ৪৪ গোল করেছিলেন হালান্ড। মৌসুমের প্রথম ভাগে ছিলেন অস্ট্রিয়ান ক্লাব সলযবুর্গে, সেখানেই দেখিয়েছেন ঝলক। এরপর শীতকালীন দলবদলে তাকে দলে টানে বরুসিয়া। জার্মান ক্লাবটিতে গিয়েই হয়ে উঠেছেন আরও বেশি ক্ষুধার, ১৮ ম্যাচে করেছেন ১৬ গোল। বুন্দেসলিগায় গত মৌসুমে ১০ গোল করেছেন এমন ফরোয়ার্ডদের মধ্যে হালান্ডের চেয়ে কেবল রবার্তো লেভালদোভস্কির রেকর্ডটাই ভালো। প্রতি ৮১.২ মিনিটে একটি করে গোল পেয়েছেন বায়ার্ন মিউনিখের পোলিশ ফরোয়ার্ড, হালান্ডের গোল সেখানে ৮১.৭ মিনিট অন্তর একটি। নতুন মৌসুমেও গোল মেশিনের মতো গোল করেই যাচ্ছেন হালান্ড। লিগ, উয়েফা চ্যাম্পিয়ন্স লিগ মিলিয়ে ১১ ম্যাচে করেছেন সমান সংখ্যক গোল।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

আরও খবর

Copyright JaiJaiDin ©2020

Design and developed by Orangebd


উপরে