logo
রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

প্রবৃদ্ধি বাড়ায় মন্দা এড়াল সিঙ্গাপুর

যযাদি রিপোর্ট

আগের তিন মাসের তুলনায় তৃতীয় প্রান্তিকে প্রবৃদ্ধি দশমিক ৬ শতাংশ বাড়ায় চলতি বছর সিঙ্গাপুরের অর্থনীতি কৌশলগত মন্দায় পড়ার যে শঙ্কা তৈরি হয়েছিল তা দূর হয়েছে। খবর সিএনবিসি।

চলতি বছরের এপ্রিল-জুন প্রান্তিকের সংশোধিত হিসাবে দেশটির প্রবৃদ্ধি কমেছিল ২ দশমিক ৭ শতাংশ। প্রান্তিকওয়ারি হিসেবে দেশটির অর্থনীতি তৃতীয় প্রান্তিকে ঘুরে দাঁড়িয়েছে বলে জানিয়েছে সেখানকার বাণিজ্য ও শিল্প মন্ত্রণালয়। বছরওয়ারি হিসাবে তৃতীয় প্রান্তিকে দেশটির অর্থনীতি বেড়েছে দশমিক ১ শতাংশ।

তৃতীয় প্রান্তিকে দেশটির প্রবৃদ্ধি বাড়লেও তা প্রত্যাশার তুলনায় কম। তৃতীয় প্রান্তিক তথা জুলাই-সেপ্টেম্বরে মোট দেশজ উৎপাদন (জিডিপি) প্রান্তিকওয়ারি হিসাবে ১ দশমিক ৫ শতাংশ ও বছরওয়ারি হিসাবে দশমিক ৩ শতাংশ হতে পারে বলে পূর্বাভাস করেছিল রয়টার্সের জরিপ।

প্রসঙ্গত, কোনো দেশের অর্থনীতি টানা দুই প্রান্তিকে সংকুচিত হলে সংশ্লিষ্ট দেশটির অর্থনীতি কৌশলগত মন্দায় পড়েছে বলে ধরা হয়। এদিকে এক বছরেরও বেশি সময় ধরে চীন-মার্কিন বাণিজ্যযুদ্ধের কারণে বৈশ্বিক মন্দার শঙ্কা সম্প্রতি বেড়েছে।

দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ার এ দেশটি বেশ ছোট হলেও বৈশ্বিক জিডিপিতে এদের ভূমিকা উলেস্নখযোগ্য। এ কারণে বৈশ্বিক বাণিজ্যপ্রবাহ ও ব্যবসায় চক্রে দেশটির অর্থনীতি বেশ গুরুত্বপূর্ণ। চীন-মার্কিন বাণিজ্যযুদ্ধের মুখে বিশ্বের অনেক দেশের ম্যানুফ্যাকচারিং ও বাণিজ্য কার্যক্রম শিথিল হয়ে পড়েছে, স্থবির হয়ে পড়েছে ভোক্তা ব্যয়। অথচ এ সময় সিঙ্গাপুরের পণ্য উৎপাদন ও সেবা খাত উভয় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এদিকে সিএনবিসিকে ইউওবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্টের মাল্টি-অ্যাসেট বিভাগের প্রধান অ্যান্থনি রাজা বলেন, বৈশ্বিক অর্থনীতি শ্লথ হয়ে পড়ায় সবদিকে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে সিঙ্গাপুরের অর্থনীতি। এ কর্মকর্তা বলেন, বিশ্বব্যাপী যে গুমোট এক বাণিজ্যিক পরিবেশ তৈরি হয়েছে, আমরা এর বাইরে নই। বৈশ্বিক অর্থনীতি এখনো বড় ধরনের শ্লথগতিতে পড়ার শঙ্কা রয়ে গেছে বলে মনে করি আমি। এমনটি হলে সিঙ্গাপুরের মতো বিশ্বের অন্য দেশগুলো এর ধাক্কার বাইরে থাকতে পারবে না।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে