logo
শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬

  ক্রীড়া ডেস্ক   ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

রিয়ালের হোঁচট, জুভেন্টাসের জয়

রিয়ালের হোঁচট, জুভেন্টাসের জয়
শিরোপা জয়ের পথটা যে সহজ নয়, সেটি ভালোভাবেই টের পাচ্ছেন জিনেদিন জিদান। লা লিগায় টানা পাঁচ ম্যাচ জিতে ছন্দেই ছিল তার দল রিয়াল মাদ্রিদ। কিন্তু ঘরের মাঠ বার্নাবু্যতে রোববার রাতে সেল্টা ভিগোর বিপক্ষে খেলতে নেমে হোঁচট খেয়েছে তার দল। ম্যাচটি ড্র হয়েছে ২-২ গোলে। এদিকে সিরি'আতে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোকে ছাড়াই ব্রেসিয়ার বিপক্ষে ২-০ গোলে জয় পায় জুভেন্টাস। আর বুন্দেসলিগায় গোল উৎসব করেছে বায়ার্ন মিউনিখ। ক্লোনকে ৪-১ গোলে উড়িয়ে দিয়ে ২২ ম্যাচে ৪৬ পয়েন্ট নিয়ে সবার ওপরে বাভারিয়ানরা।

ঘরের মাঠে এদিন তিন মাস পর গোড়ালির চোট সারিয়ে ফিরেছেন ইডেন হ্যাজার্ড। ছিলেন গ্যারেথ বেল ও মার্সেলোও। কিন্তু ম্যাচ শুরুর ৭ মিনিটেই রিয়ালের রক্ষণে থাবা বসিয়ে দেয় সেল্টা ভিগো। রাশিয়ান স্ট্রাইকার ফেডর স্মোলোভের গোলে আসে অগ্রগামিতা। রিয়াল তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা আক্রমণ শানাতে ব্যর্থ ছিল। তাই ঘরের মাঠে দর্শকদের দুয়োর শিকারও হতে হয়েছে। তবে সেই রিয়াল ছন্দে ফেরার রসদ পায় দ্বিতীয়ার্ধে, ৫২ মিনিটে টনি ক্রুসের গোলে সমতায় ফিরলে। ৬৫ মিনিটে হ্যাজার্ডকে ফাউল করে বসেন সেল্টা কিপার রুবেন বস্নাঙ্কো।

এর পরেই স্পট কিক থেকে রিয়ালকে লিড এনে দেন সার্জিও রামোস। রিয়াল মাদ্রিদের এই স্বস্তি স্থায়ী ছিল না বেশিক্ষণ। ৮৫ মিনিটে দুর্দান্ত এক থ্রম্ন বলে সমতা ফেরায় সেল্টার ফরোয়ার্ড মিনা। রিয়ালের দশা আরও শোচনীয় হতে পারত। অল্পের জন্য লালকার্ড দেখেননি ওয়েলস ফরোয়ার্ড গ্যারেথ বেল। শুধু হলুদ কার্ডেই পার পেয়ে গেছেন। ৫ ম্যাচ পর ড্র করায় ২৪ ম্যাচে রিয়ালের সংগ্রহ ৫৩ পয়েন্ট। দ্বিতীয় স্থানে থাকা বার্সার চেয়ে মাত্র এক পয়েন্ট বেশি তাদের। সমান ম্যাচে বার্সার সংগ্রহ ৫২ পয়েন্ট।

সিরি'আতে আগের ম্যাচে ভেরোনার কাছে ২-১ গোলে হেরেছিল জুভেন্টাস। আর বৃহস্পতিবার ইতালিয়ান কাপ সেমিফাইনালের প্রথম লেগে এসি মিলানের সঙ্গে ড্র করেছে ১-১ গোলে। অবশেষে তিন ম্যাচে প্রথম জয়ের দেখা পেল তারা। আর এই জয়ে ইন্টার মিলানকে ৩ পয়েন্ট পেছনে ফেলে এক নম্বরে উঠে গেছে জুভেন্টাস (৫৭)। অবশ্য এক ম্যাচ কম খেলেছে মিলান ক্লাব। পরের ম্যাচে লাজিওকে হারাতে পারলে আবার শীর্ষে ওঠার সুযোগ তাদের সামনে। লিগ মৌসুমের ষষ্ঠ গোল করেন পাউলো দিবালা। ১০ জনের ব্রেসিসিয়াকে হারাতে জুভেন্টাসের অন্য গোলটি হুয়ান কুয়াদরাদোর।

ম্যাচের শুরুতে গনঞ্জালো হিগুয়েনের সঙ্গে সংঘর্ষে মাথায় আঘাত নিয়ে মাঠ ছাড়েন ব্রেসিয়া গোলকিপার আনরিকো আলফোনসো। নবম মিনিটে তার বদলি নামেন ক্লাবের তৃতীয় বাছাই গোলকিপার লরেঞ্জো আন্দ্রেনাচ্চি। রক্ষণভাগ ও গোলপোস্ট ভালোভাবে সামাল দিচ্ছিল অতিথি ক্লাব। কিন্তু বিরতির ১০ মিনিট আগে তারা ভুল করে বসে। বক্সের ঠিক সামনে অ্যারন রামজিকে ফাউল করেন ফ্লোরিয়ান আই। চার মিনিটের ব্যবধানে দুটি হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন ব্রেসিসিয়া খেলোয়াড়। ওই ঘটনায় পাওয়া ফ্রি কিক থেকে কোনাকুনি শটে ১-০ করেন দিবালা। দ্বিতীয় গোলের জন্য স্বাগতিকদের অপেক্ষা ফুরোয় ৭৫তম মিনিটে। বেস্নইস মাতুইদির সঙ্গে বল দেওয়া নেওয়া করে ভিতরে ঢুকে কাছ থেকে ব্যবধান দ্বিগুন করেন কুয়াদরাদো। দুই মিনিট পর উরুগুয়ের মিডফিল্ডার রদ্রিগো বেন্তানকুরের শট পোস্টে বাধা পেলে ব্যবধান আর বাড়েনি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে