logo
রবিবার, ৩১ মে ২০২০, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

টেস্ট দলে মুশফিক মুস্তাফিজ মিরাজ তাসকিন

বাংলাদেশ জিম্বাবুয়ে টেস্ট মাহমুদউলস্নাহ বাদ। তবে সরাসরি বাদ না বলে 'বিশ্রাম' শব্দটি ব্যবহার করেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন। চমক রয়েছে আরও। প্রথমবারের মতো সাদা পোশাকের দলে ডাক পেয়েছেন পেসার হাসান মাহমুদ ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি।

টেস্ট দলে মুশফিক মুস্তাফিজ মিরাজ তাসকিন
বিপিএলে গতিতে মাত করে পাকিস্তানের বিপক্ষে টি২০ দলে জায়গা পেয়েছিলেন হাসান মাহমুদ। একাদশে জায়গা না পেলেও ছিলেন নির্বাচকদের রাডারে। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবার প্রথমবারের মতো টেস্ট দলেও ঠাঁই হয়েছে ২০ বছরের এই তরুণের -ওয়েবসাইট
ফর্মহীনতার কারণে মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদের বাদ পড়ার জোরালো গুঞ্জন চলছিল। সত্যি হয়েছে সেই জল্পনা-কল্পনা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আসন্ন টেস্টের বাংলাদেশের দল থেকে বাদ পড়েছেন অভিজ্ঞ তারকা ব্যাটসম্যান। তবে সরাসরি বাদ না বলে 'বিশ্রাম' শব্দটি ব্যবহার করেছেন প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন। চমক রয়েছে আরও। প্রথমবারের মতো সাদা পোশাকের দলে ডাক পেয়েছেন পেসার হাসান মাহমুদ ও টপ অর্ডার ব্যাটসম্যান ইয়াসির আলী চৌধুরী রাব্বি।

রোববার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের জন্য ১৬ সদস্যের দল ঘোষণা করেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। দলে এসেছে অনেক পরিবর্তন। রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে দলের বড় হার এবং বাজে পারফরম্যান্সের পর বিসিবি সভাপতি পরের টেস্টের দল ঘোষণায় কঠিন সিদ্ধান্ত নেওয়ার কথা বলেছিলেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ঘরের মাটিতে একমাত্র টেস্ট ম্যাচের জন্য বিসিবির সেই কঠিন সিদ্ধান্তটা গেছে মূলত তিনজনের ওপর দিয়ে। টেস্ট দল থেকে বাদ পড়েছেন মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদ, রুবেল হোসেন ও চোটাক্রান্ত পেসার আল-আমিন হোসেন। আর বিয়ের জন্য ছুটি নিয়েছেন অলরাউন্ডার সৌম্য সরকার।

জিম্বাবুয়ে টেস্টে রাখা হবে না এমন কানাঘুষা উড়িয়ে দলে ফিরেছেন সাদা পোশাকে দেশের সেরা ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিম। টি২০ ও টেস্টের পাকিস্তান সফর থেকে নিজেকে সরিয়ে রেখেছিলেন এই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। মুশফিকের সঙ্গী হয়েছেন আরও তিন ক্রিকেটার। দুই পেসার মুস্তাফিজুর রহমান ও তাসকিন আহমেদ এবং স্পিন অলরাউন্ডার মেহেদী হাসান মিরাজকে ফেরানো হয়েছে।

মুমিনুল হকের ওপরই এই টেস্টে অধিনায়কত্বের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। অধিনায়কত্ব ক্যারিয়ারের প্রথম তিন টেস্টের তিনটিতেই ইনিংস ব্যবধানে হেরেছেন মুমিনুল। ব্যাট হাতেও পেছনের এই তিন টেস্টে তার সময়টা ভালো যায়নি। দেশের মাটিতে প্রথমবারের মতো টেস্ট ম্যাচে অধিনায়কত্ব করতে নামা মুমিনুল ব্যাটেও সাম্প্রতিক টেস্ট ব্যর্থতা কাটিয়ে উঠবেন বলে অপেক্ষায় বিসিবি। টিকে গেছেন গত টেস্টে অভিষিক্ত হয়ে দুই ইনিংসেই বিবর্ণ থাকা ওপেনার সাইফ হাসান।

দলের দুই নতুন মুখ প্রসঙ্গে বিসিবির প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল বলেছেন, 'আমরা মনে করি, হাসান মাহমুদ এবং ইয়াসির আলী চৌধুরীর বিশাল সম্ভাবনা রয়েছে এবং তারা আমাদের ভবিষ্যৎ পরিকল্পনার একটা বড় অংশজুড়ে আছে।'

ঘোষিত স্কোয়াড সম্পর্কে তার মূল্যায়ন, 'আমি বিশ্বাস করি, আমরা বর্তমান পরিস্থিতিতে সম্ভাব্য সেরা টেস্ট দল নির্বাচন করেছি। অভিজ্ঞতা এবং সম্ভাবনার খুব সুন্দর মিশ্রণ রয়েছে এখানে।'

পাকিস্তান সফরে থাকলেও মিরপুর টেস্টের স্কোয়াডে ঠাঁই না পাওয়া মাহমুদউলস্নাহসহ চার ক্রিকেটারের প্রসঙ্গে মিনহাজুল বলেছেন, 'দুর্ভাগ্যজনকভাবে কিছু খেলোয়াড়কে বাদ পড়তে হয়েছে, কিন্তু ভারসাম্য এবং ধারাবাহিকতা নিশ্চিত করাকে আমরা অগ্রাধিকার দিচ্ছি। আমরা অনুভব করেছি যে মাহমুদউলস্নাহরর লাল বলের ক্রিকেট (টেস্ট) থেকে বিরতি প্রয়োজন। আল-আমিনের হালকা চোট রয়েছে এবং সে কারণেই আমরা ভেবেছি যে সীমিত ওভারের ম্যাচগুলোর জন্য পুরোপুরি প্রস্তুত হওয়ার সময় দেওয়া উচিত তাকে যেখানে সে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। রুবেল এই মুহূর্তে আমাদের লাল বলের পরিকল্পনার অংশ নয়। সৌম্য ছুটির জন্য আবেদন করেছিল এবং সে কারণে তাকে বিবেচনা করা হয়নি।' সঙ্গে জানিয়েছেন, নতুন খেলোয়াড়দের বাজিয়ে দেখার ইচ্ছার কথা, 'যেহেতু জিম্বাবুয়ের সঙ্গে নিজেদের মাটিতে আমরা খেলছি। এখানে কিছু নতুন খেলোয়াড়কে আমরা দেখতে চাচ্ছিলাম।'

প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নু বলেন, 'হাসানকে যখন একবছর আগে এইচপিতে (হাই-পারফরম্যান্স ইউনিট) নিয়েছিলাম, তখন থেকেই পরিকল্পনা ছিল। তরুণ বোলারদের মধ্যে সবচেয়ে জোরে বল করতে পারে ছেলেটা। টেস্ট ক্রিকেটে আমাদের জোরে বোলারের যথেষ্ট অভাব আছে। ১৪০-এর কাছাকাছি বা উপরে ধারাবাহিকভাবে বল করতে পারে হাসান।'

'যেহেতু আমরা ওর মাঝে এই ট্যালেন্ট দেখেছি, সেই কারণেই নেয়া। দুর্ভাগ্যজনকভাবে মাঝখানে চোটের কারণে সে বাইরে ছিল। চোট কাটিয়ে আবার ফিরেছে। যে কারণে আমরা তাকে প্রক্রিয়ার মধ্যে টেস্ট দলে নিয়ে এসেছি।'

১৬ সদস্যের এই স্কোয়াড থেকে টেস্টের আগের দিন তিন ক্রিকেটারকে ছেড়ে দেওয়া হবে। বাকি ১৩ জন একাদশে সুযোগ পাওয়ার জন্য বিবেচনায় থাকবেন। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে আগামী ২২ ফেব্রম্নয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সর্বশেষ ২০১৮ সালে জিম্বাবুয়ে ক্রিকেট দল বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট ম্যাচ খেলেছিল। দুই টেস্টের সেই সিরিজ ড্র হয়েছিল ১-১ ম্যাচে।

জিম্বাবুয়ে দল ঢাকায় এসেছে শনিবার। রোববার থেকে মিরপুরে অনুশীলন শুরু করেছে। বাংলাদেশ দল অনুশীলন শুরু করবে মঙ্গলবার। টেস্টের আগে মূল স্কোয়াড হয়ে যাবে ১৩ সদস্যের।

বাংলাদেশ টেস্ট দল: মুমিনুল হক (অধিনায়ক), তামিম ইকবাল, সাইফ হাসান, নাজমুল হোসেন শান্ত, মুশফিকুর রহিম, মোহাম্মদ মিঠুন, লিটন দাস, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ রাহি, নাঈম হাসান, ইবাদত হোসেন, তাসকিন আহমেদ, মেহেদী হাসান মিরাজ, মুস্তাফিজুর রহমান, হাসান মাহমুদ, ইয়াসির আলি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে