logo
শনিবার, ২৮ মার্চ ২০২০, ১৪ চৈত্র ১৪২৬

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

ব্যাটসম্যানদের রোগ সারাতে ব্যস্ত কোচরা

ব্যাটসম্যানদের রোগ সারাতে নিয়মিত কোচদের সঙ্গেই শনিবার নিবিড়ভাবে কাজ করতে দেখা গেল ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম সফল কোচ সালাউদ্দিনকেও। ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কোচরা

ব্যাটসম্যানদের রোগ সারাতে ব্যস্ত কোচরা
জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ সামনে রেখে আনুষ্ঠানিক অনুশীলন ক্যাম্প শুরু না হলেও জাতীয় দলের ক্রিকেটাররা নিজস্ব উদ্যোগে প্রস্তুতি শুরু করেছেন। শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে সেই প্রস্তুতিতে সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন প্রধান কোচ রাসেল ডমিঙ্গো এবং তামিমদের ছোটবেলার গুরু মোহাম্মদ সালাউদ্দিন -বিসিবি
পাকিস্তানের বিপক্ষে রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে টাইগার ব্যাটসম্যানদের করুণদশা ফুটে উঠেছে। এবার ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট। তার আগে তামিম-মুমিনুলদের ব্যাটিং সমস্যা নিয়ে কাজ করছেন কোচিং স্টাফরা। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের রোগ সারাতে নিয়মিত কোচদের সঙ্গেই শনিবার নিবিড়ভাবে কাজ করতে দেখা গেল ঘরোয়া ক্রিকেটের অন্যতম সফল কোচ সালাউদ্দিনকেও। ব্যাটসম্যানদের নিয়ে ব্যস্ত সময় কাটাচ্ছেন কোচরা।

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ খেলতে শনিবার বিকালে ঢাকায় পৌঁছেছে জিম্বাবুয়ে দল। বিকাল ৪টা ৫৫ মিনিটে শাহজালাল বিমানবন্দরে তারা পৌঁছায়। মঙ্গলবার থেকে বিকেএসপিতে দুই দিনের প্রস্তুতি ম্যাচ খেলবে সফরকারীরা।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্ট সামনে রেখে রোববার বাংলাদেশের দল ঘোষণা করবে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি)। রাওয়ালপিন্ডি টেস্টে খেলা দলে আসতে পারে একাধিক পরিবর্তন। দলে ঢুকতে পারেন অন্তত দুজন স্পিনার। এমন আভাস মিলেছে টিম ম্যানেজমেন্ট থেকে।

মুমিনুলের অধিনায়কত্ব নিয়ে প্রশ্ন উঠলেও এ যাত্রায় তার কাঁধেই আস্থা রাখতে পারে বোর্ড। অব্যাহত বাজে ফর্মের কারণে দলের অভিজ্ঞ ক্রিকেটার মাহমুদউলস্নাহ রিয়াদের বাদ পড়া প্রায় নিশ্চিত। তার জায়গায় দলে ঢুকতে পারেন মুশফিকুর রহিম। এছাড়া পেসার রুবেল হোসেনের পরিবর্তে দেখা যেতে পারে অলরাউন্ডার মেহেদি হাসান মিরাজকে।

জিম্বাবুয়ে সিরিজ উপলক্ষে বাংলাদেশ দলের আনুষ্ঠানিক অনুশীলন ক্যাম্প ১৮ ফেব্রম্নয়ারি থেকে। তার আগে বিসিএলে না খেলা ক্রিকেটাররা নিজ উদ্যোগেই আসছেন মাঠে। শনিবার মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে তামিম, মুমিনুল আর মিঠুন সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত নিজেদের ভুল ত্রম্নটি সারাতে ব্যস্ত ছিলেন। তাদের নিয়ে ব্যস্ত সময় পার করেছেন ডমিঙ্গো, গিবসন আর সালাউদ্দিন।

ডমিঙ্গো, গিবসনের তো এটাই চাকরি। সালাউদ্দিনের এখানে যোগ দেওয়ার তাগিদটা আসলে মুমিনুল আর তামিমের জন্য। পুরনো এই দুই শিষ্য যতবার সংকটে পড়েন, ততবারই শরণ নেন সালাউদ্দিনের। এবার ব্যতিক্রম বলতে যা, এবার একা একা নন। সালাউদ্দিনকে ডমিঙ্গো, গিবসনের সঙ্গে পরিচয় করিয়ে একসঙ্গে কাজ করলেন তারা।

কি নিয়ে কাজ হয়েছে? টেস্টে বাংলাদেশের সমস্যাটা আসলে কি? নানা কারণেই এসব নিয়ে গণমাধ্যমে কথা বলতে রাজি নন সালাউদ্দিন। শিষ্যদের ডাকে 'রুটিন দায়িত্ব' সারতে এসেছিলেন। সেখানেই পরিচয় হয়েছে জাতীয় দলের বর্তমান কোচিং স্টাফদের সঙ্গে। লম্বা সময়ের আলাপে ডমিঙ্গো আর গিবসনকে বেশ মনে ধরেছে সালাউদ্দিনের। হয়তো নিজেদের কাজের এলাকায় উদার দৃষ্টিভঙ্গিতে সালাউদ্দিনকে প্রবেশাধিকার দেওয়ার কারণেও আলাপটা জমেছে বেশ। জাতীয় দলের ক্যাম্প শুরুর আগে আরও দুদিন সালাউদ্দিনকে ডমিঙ্গোদের সঙ্গেই এভাবে কাজ করতে দেখা যাবে।

জানা গেল, এই সেশনে তামিম, মুমিনুল, মিঠুনদের আলাদা আলাদা সমস্যা পাওয়া গেছে। টেকনিক্যাল বিষয় আছেই। মাথার পজিশন, শরীরের ভারসাম্য ঠিক রাখার ব্যাপারও আছে। আছে পায়ের নড়াচড়া নিয়ে উদ্বেগ। মানসিকভাবে চাঙ্গা থাকলে পায়ের নড়াচড়াও হয় সাবলীল। বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানদের মনের জড়তা কি তাহলে প্রভাব ফেলছে খেলাতেও? কারো কারো মনে দলে জায়গা পাকা করা নিয়েও নাকি আছে নিরাপত্তাবোধের ঘাটতি।

অনুশীলন শেষে মিঠুন জানালেন তাদের আসলে সবার রোগ একরকম নয়। রাওয়ালপিন্ডির ব্যাটিং বান্ধব উইকেটেও তাদের অমন ধসে পড়া নিয়ে ঘাটতে গিয়ে এই কোচেরা পেয়েছেন ভিন্নরকম কারণ, 'শুধু সালাউদ্দিন স্যারই তো না, ডমিঙ্গো ছিল, গিবসন ছিল। সবাই মিলেই যার যেটা বেস্ট পজিশন সেটা নিয়েই কাজ করছিল। সালাউদ্দিন স্যারও আসছিল, কোচরাও ছিল। প্রত্যেকটা খেলোয়াড়েরই একটা ঘাটতি থাকে, কিভাবে সেটা একটু ভালো হতে পারে সেটা নিয়ে আলোচনা হয়েছে।'

'আসলে আমাদের ধরতে হবে কার কোথায় সমস্যা। সবার তো এক রকম সমস্যা না। একেকজনের কাছে একেকরকম। আমার বুঝতে হবে আমার সমস্যা কোথায়। আমি কিভাবে কাজ করলে, আরেকটু পরিশ্রম করলে এক ধাপ এগিয়ে যাব। এটা যে শুধু ফিটনেস তা না। স্কিল বলেন, ফিটনেস বলেন সব দিক থেকেই আমরা পিছিয়ে আছি। পেশাদার খেলোয়াড় হিসেবে আমাদের সবার উচিত খুঁজে বের করে কাজ করা।'

টেস্টে বাংলাদেশের অন্যতম সফল হলেও বেশ অনেকদিন থেকেই বড় রান নেই মুমিনুলের ব্যাটে। তামিমও লম্বা বিরতি থেকে ফিরে পাচ্ছেন না তাল। টেস্টে বাংলাদেশের অন্যতম ব্যাটিং ভরসা এই দুজনের সব রোগ মুখস্থ সালাউদ্দিনের। মিঠুনের কাছ থেকে জানা গেল জাতীয় দলের কোচিং স্টাফ থাকতেও এ কারণে তাই সালাউদ্দিন শরণ, 'সালাউদ্দিন স্যার যেমন তামিম ভাই, সৌরভের (মুমিনুল) সঙ্গে ব্যক্তিগতভাবে কাজ করে। ওদের ভালোভাবে জানে। ডমিঙ্গো আসছে ছয়, সাত মাস হয়েছে। সালাউদ্দিন স্যার দশ বছর ধরে কাজ করছে তাদের সঙ্গে।'

এসব কাজের ফল দেখতে সামনেই আছে একটি পরীক্ষা। ২২ ফেব্রম্নয়ারি মিরপুরের চেনা আঙ্গিনায় জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টেস্ট খেলতে নামবে বাংলাদেশ। সর্বশেষ ছয় টেস্টে হার, যার মধ্যে শেষ তিন টেস্টেই ব্যাটিং ব্যর্থতায় ইনিংস হারের তেতো স্মৃতি আছে দলের। এসব থেকে বেরিয়ে আসার তাগিদে বিভিন্ন পথ খুঁজছেন ব্যাটসম্যানরা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে