logo
বৃহস্পতিবার ১৩ ডিসেম্বর, ২০১৮, ২৯ অগ্রহায়ণ ১৪২৪

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষেপ

সানচেজকে নিয়ে সিনেমা

ক্রীড়া ডেস্ক

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকা অ্যালেক্সিস সানচেজকে নিয়ে তৈরি হচ্ছে সিনেমা। তার দেশ চিলিতে তৈরি হবে সিনেমাটি। বানাচ্ছেন বিখ্যাত প্রোডাকশন হাউজ ‘ফাবুলা’। যে কোম্পানি অস্কার বিজয়ী সিনেমা ‘এ ফ্যান্টাস্টিক ওমেন’ বানিয়েছিল।

বাসেের্লানা ও আসের্নালের সাবেক ফুটবল তারকাকে নিয়ে বানানো সিনেমার নাম ‘অ্যালেক্সিস’। ২০১৯ ব্রাজিলের অনুষ্ঠিত হতে যাওয়া কোপা আমেরিকা টুনাের্মন্ট শুরুর আগে ছবিটি রিলিজ হওয়ার কথা। চিলির আট থেকে নয় বছর বয়সের বেশ কিছু বালককে এই ছবির অডিশনের জন্যে ডাকা হয়েছে। তিন মাস ধরে চলবে অডিশন। তারপর শুটিং। সানচেজের ছোটবেলার মাঠে হবে অডিশন ও শুটিংয়ের কাজ।

মাসেের্লাকে জুভেন্টাসে

চাইছেন রোনালদো!

ক্রীড়া ডেস্ক

রিয়াল মাদ্রিদ ছেড়ে জুভেন্টাসে যোগ দিয়েছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। এবার তিনি তুরিনের ক্লাবটিতে নিতে চাচ্ছেন আরেক রিয়াল তারকা মাসেের্লাকে। বৃহস্পতিবার স্প্যানিশ ক্রীড়া পত্রিকা মাকার্ এমনটাই খবর প্রকাশ করেছে। অবশ্য রোনালদো সফল হননি। বৃহস্পতিবারই শেষ হয়ে গেছে ইউরোপের দল বদলের সময়।

প্রতিবেদন অনুযায়ী রোনালদোর সঙ্গে নিয়মিত যোগাযোগ রাখছেন মাসেের্লা। তুরিনে কেমন কাটছে সিআর৭ এর সময় তা নিয়মিত জানাচ্ছেন মাসেের্লাকে। এই যোগাযোগে রোনালদো খুব বড় করে তুলে ধরেছেন জুভেন্টাসের ইতিবাচক বিষয়গুলো। জুভেন্টাসের ড্রেসিং রুমের অসাধারণ পরিবেশ ও জুভেন্টাসের সব ইতিবাচক দিকগুলো। যাতে মাসেের্লাও তুরিনের ক্লাবটির ব্যাপারে আগ্রহী হন।

এদিকে গুঞ্জন শোনা যাচ্ছিল লুকা মদ্রিচের রিয়াল ছাড়ার। কিন্তু তার ইন্টার মিলানে যোগ দেয়ার সম্ভাবনা আপতত শেষ হয়ে গিয়েছে। তিনি রিয়াল মাদ্রিদেই থাকছেন।

ব্যতিক্রমী এক রেকডর্ টটেনহামের

ক্রীড়া ডেস্ক

ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগের গ্রীষ্মকালীন দলবদলের বাজারে বড় বিস্ময়টা কী? সবচেয়ে দামি খেলোয়াড় কেপা আরিজাবালাগা নামের একজন গোলরক্ষক, যাকে নিয়ে আসতে বিশ্বরেকডর্ই গড়ে ফেলেছে চেলসি। তবে তার চেয়েও বড় বিস্ময়, প্রিমিয়ার লিগের ইতিহাসে দলবদলের পদ্ধতি চালুর পর এই প্রথম কোনো ক্লাব কোনো খেলোয়াড় কেনা দূরে থাক, ধারেও নেয়নি। এখন পযর্ন্ত টটেনহাম যে একজন খেলোয়াড়কেও দলে না নিয়ে এক ব্যতিক্রমী রেকডর্ গড়েছে।

২০০৩ সালে প্রিমিয়ার লিগের দলবদলের পদ্ধতি চালু হয়। গত ১৪ বছরে প্রতিটি ক্লাব অন্তত একজন করে খেলোয়াড়কে দলে নিয়েছে। কিন্তু এই মৌসুমের শুরু থেকেই আশ্চযর্রকম নীরব ছিল টটেনহাম, এখন পযর্ন্ত একজন খেলোয়াড়কেও দলে নেয়নি। শেষ দিকে এসে জ্যাক গ্রেলিশ বা পিএসজি থেকে লেফটব্যাক কুরুজাওয়াকে নেয়ার গুঞ্জন থাকলেও শেষ পযর্ন্ত কাউকে নেয়নি। শুধু প্রিমিয়ার লিগ নয়, ইউরোপের শীষর্ পঁাচ লিগেও কোনো ক্লাব একজন খেলোয়াড়কেও দলে না নিয়ে বসে থাকেনি। এমনকি ইংল্যান্ডের চতুথর্ বিভাগের সব ক্লাব অন্তত কাউকে না কাউকে কিনেছে বা দলে ভিড়িয়েছে।

ব্যাতিক্রম শুধু টটেনহাম। টটেনহাম কোচ মাউরিসিও পচেত্তিনো অবশ্য কাউকে না কিনতে পেরে খুব একটা অসন্তুষ্ট নন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে