logo
সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

লড়াই করে হারল বাংলাদেশ

ফুটবল বিশ্বকাপ বাছাই

ক্রীড়া প্রতিবেদক

বিশ্বকাপ বাছাইয়ের রাউন্ড টু'তে শুরুটা ভালো হলো না বাংলাদেশ জাতীয় ফুটবল দলের। মঙ্গলবার দুশানবের রিপাবলিকান সেন্ট্রাল স্টেডিয়ামে শক্তিধর আফগানিস্তানের সঙ্গে লড়াই করে ১-০ গোলের ব্যবধানে হেরেছে জেমি ডের শিষ্যরা।

শারীরিক শক্তি আর গতিতে বাংলাদেশ থেকে এগিয়ে আফগানিস্তান। অতীত পরিসংখ্যান আরর্ যাংকিংয়েও তারা এগিয়ে। তবুও তাদের বিপক্ষে ভালো কিছুর প্রত্যাশাতেই দলকে মাঠে নামিয়েছিলেন বাংলাদেশের কোচ জেমি ডে। তাদের বিপক্ষে হারটা যদিও আরও বড় ব্যবধানেও হতো তাতে অবাক হওয়ার কিছুই ছিল না। শুরু থেকেই লাল-সবুজদের ওপর চড়াও হয়ে খেলে প্রতিপক্ষরা। যদিও শুরুর ২৬ মিনিট আফগানদের আটকে রাখতে সমর্থ হয়েছিলেন জামাল-রবিউলরা। ২৭ মিনিটে বাংলাদেশের রক্ষণ ভেঙেচুরে এক গোল আদায় করে নিয়েছে আফগানিস্তান। ডান প্রান্ত থেকে উড়ে আসা বলে ফরশান নূরের জোরালো হেডের বল হাত লাগিয়েও ঠেকাতে পারেননি বাংলাদেশের গোলরক্ষক আশরাফুল ইসলাম রানা। ক্রসবারের নিচের দিকে লেগে বল জড়িয়ে যায় জালে (১-০)। প্রথমার্ধে বল পজিশনে আফগানিস্তান ছিল ৬০ ভাগ, বাংলাদেশের ৪০ ভাগ।

দ্বিতীয়ার্ধে আরও বেশি আধিপত্য ছিল আফগানদের। তবে জামালরাও আর কোনো গোল হজম করবেন না এমন সংকল্প করেই নেমেছিলেন। তাদের দৃঢ়তায় আর কোনো গোল হয়নি। তবে গোল না খেলেও অন্তত শোধ করতে পারবে বাংলাদেশ এমনটাই আশা ছিল সবার। কিন্তু রক্ষণভাগ সুসংগঠিত হলেও এদিন জ্বলে উঠতে পারেনি বাংলাদেশের আক্রমণ ভাগ। আন্তর্জাতিক ম্যাচে সর্বশেষ দুটি জয় এনে দেয়া রবিউল হাসান হয়তো কিছু করে দেখাতে পারবেন। সেই ভরসায় ৫৫ মিনিটে বিপলুর পরিবর্তে তাকে মাঠে নামান কোচ। কিন্তু ইউরোপীয়ান লিগে খেলার অভিজ্ঞতাসম্পন্ন আফগান ফুটবলারদের রক্ষণ ভেদ করতে পারেননি রবিউল। পুরো ম্যাচে বাংলাদেশ একটিও গোলের সুযোগও সৃষ্টি করতে পারেনি। যে কারণে শেষ পর্যন্ত ১-০ গোলের হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়েছে জামাল ভুইয়ার দলকে। দৈহিক গঠন, শক্তি, গতি, টেকনিক- সব দিকেই বাংলাদেশের চেয়ে এগিয়ে ছিল আফগান ফুটবলাররা। ইউরোপসহ বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া ফুটবল খেলা আফগানরা মাঠে প্রমাণ করেছেন কেন তারা বাংলাদেশের চেয়ের্ যাংকিংয়ে ৩৩ ধাপ উপরে। বাংলাদেশের পরবর্তী ম্যাচ আগামী মাসে। যেখানে প্রতিপক্ষ আরও শক্তিধর। ১০ অক্টোবর ঢাকার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে কাতারের বিপক্ষে হোম ম্যাচ খেলবে লাল-সবুজরা। এর ৫ দিন পরই (১৫ অক্টোবর) কলকাতার সল্টলেক স্টেডিয়ামে ভারতের বিপক্ষে অ্যাওয়ে ম্যাচ। ১৪ নভেম্বর ওমানের বিপক্ষে বছরের শেষ ম্যাচটি খেলবে বাংলাদেশ। এরপর ২০২০ সালের ২৬ মার্চ আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে লাল সবুজরা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে