logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

জিতেই চলেছে স্পেন-ইতালি

জিতেই চলেছে স্পেন-ইতালি
ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বে রোববার আইসল্যান্ডের বিপক্ষে গোল করার পর স্পেন খেলোয়াড়দের উচ্ছ্বাস। শেষ পর্যন্ত বড় জয় নিয়েই মাঠ ছেড়েছে সার্জিও রামোসের দল - ওয়েবসাইট
ক্রীড়া ডেস্ক

উয়েফা ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের বাছাই পর্বে জয়ের ধারা অব্যাহত রেখেছে স্পেন ও ইতালি। দুই দলই টানা ষষ্ঠ ম্যাচ জিতেছে ইউরোর বাছাই পর্বে। রোববার রাতে ফারো আইল্যান্ডসকে রীতিমতো ৪-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছে তিনবারের ইউরোপ চ্যাম্পিয়ন স্পেন। টানা ছয় জয়ে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল দলটি। তবে কিছুটা হলের কষ্টার্জিত জয় পেয়েছে ইতালি। ফিনল্যান্ডকে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়েছে ১৯৬৮ সালে প্রথম ও সর্বশেষ ইউরো চ্যাম্পিয়ন হওয়া আজ্জুরিরা।

ঘরের মাঠে খেলতে নেমে এদিন নতুন রেকর্ড গড়েছেন স্প্যানিশ অধিনায়ক সার্জিও রামোস। স্পেনের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ড এখন তার। এর আগে ১৬৭ ম্যাচ খেলা ইকের ক্যাসিয়াস এ রেকর্ডটির মালিক ছিলেন। রোববার রাতে ম্যাচের শুরু থেকেই আধিপত্য বিস্তার করেই খেলে স্পেন। ম্যাচের ১৩তম মিনিটে রদ্রিগোর গোলে এগিয়েও যায় দলটি। তবে গোলের মূল কারিগর ছিলেন মিকেল ওয়ারজাবাল। গোলরক্ষককে ফাঁকি দিয়ে দেয়া নিখুঁত পাস থেকে পেস্নসিং শটে লক্ষ্যভেদ করেন রদ্রিগো। তবে দ্বিতীয় গোলের জন্য অপেক্ষা করতে হয় ৫০ মিনিট পর্যন্ত। থিয়াগো আলকান্তরার পাস ধরে ডি-বক্সে ঢুকে শট নেন রদ্রিগো। প্রতিপক্ষের এক খেলোয়াড়ের পায়ে লেগে দিক পাল্টে জালে জড়ায় বল।

দুই গোলে এগিয়ে থাকা দলটি ম্যাচের শেষ তিন মিনিটে আরও দুটি গোল পায়। দুটি গোলই করেন বদলি খেলোয়াড় পাকো আলকাসের। ৮৯তম মিনিটে আলকান্তারার পাস থেকে লক্ষ্যভেদ করেন। আর যোগ করা সময়ে হোসে গায়ার ক্রস থেকে হেডে বল জালে পাঠান এই ফরোয়ার্ড। শেষ পর্যন্ত ৪-০ গোলের বড় জয় নিয়ে মাঠ ছাড়ে স্পেন। এই জয়ে ছয় ম্যাচের সবকটিতে জিতে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে 'এফ' গ্রম্নপের শীর্ষস্থান আরও মজবুত করল স্পেন। রোববার রাতে 'এফ' গ্রম্নপের অন্য ম্যাচে নরওয়ের সঙ্গে ১-১ গোলে ড্র করা সুইডেন ১১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে আছে। মাল্টাকে ১-০ গোলে হারানো রোমানিয়া ১০ পয়েন্ট নিয়ে আছে তৃতীয় স্থানে।

এদিকে রাতের 'জে' গ্রম্নপের অপর ম্যাচে ইতালি ও ফিনল্যান্ড দুই দলই আক্রমণ প্রতি আক্রমণে খেলতে থাকে। শুরুতে এগিয়ে যাওয়ার সুযোগও ছিল ফিনল্যান্ডের। তবে সে সুযোগ কাজে লাগাতে পারেনি তারা। বেশ কিছু সুযোগ পেয়েছিল ইতালিও। কিন্তু প্রথমার্ধের পাওয়া সুযোগগুলো কাজে লাগাতে পারেনি তারাও। তাই গোলশূন্যভাবে শেষ বিরতিতে যায় দুই দল। দ্বিতীয়ার্ধে ১৪তম মিনিটে এগিয়ে যায় ইতালি। দারুণ এক হেডে লক্ষ্যভেদ করেন সিরো ইমোবিল। তবে ৭২তম মিনিটে সমতায় ফেরে ফিনল্যান্ড। স্পট কিকে লক্ষ্যভেদ করেন টিমু পাক্কি। তাকে ডি-বক্সের মধ্যে স্তেফানো সেনসি ফাউল করলে পেনাল্টির বাঁশি বাজিয়েছিলেন রেফারি। তবে বেশিক্ষণ তারা সমতা ধরে রাখতে পারেনি।মিনিট সাত পর আবারও এগিয়ে যায় ইতালি। জর্জিনহোর সফল স্পট কিকে গোল পায় দলটি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে