logo
বৃহস্পতিবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৯, ২৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষেপ

শেখ কামাল ক্লাব কাপে খেলবে মোহনবাগান

ক্রীড়া প্রতিবেদক

এ বছরের অক্টোবরে মাঠে গড়াবে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ। এ টুর্নামেন্টে অংশ নিতে রাজি হয়েছে কলকাতার মোহনবাগান। ক্লাব কমিটি খুব করে চেয়েছিল ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগান এবারের আসরে খেলুক। এদেরকে রাজি করাতে কলকাতায় গিয়েছেন ফুটবল ক্লাব সমিতির চেয়ারম্যান তরফদার রুহুল আমিন। মোহনবাগানের সঙ্গে প্রথম সভায় সফলও হয়েছেন তিনি।

অক্টোবরের মাঝামাঝি হবে আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টটি। ৮ ক্লাবের টুর্নামেন্টে মোহনবাগানের মূল দলটাই আসবে বলে কলকাতা থেকে তথ্য নিশ্চিত করেছেন রুহুল আমিন, 'মোহনবাগান ক্লাবের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আমরা প্রথম আলোচনায় বসেছিলাম। তারা আনুষ্ঠানিকভাবে চিঠি দিয়ে শেখ কামাল ক্লাবে অংশগ্রহণ করার জন্য সম্মতি দিয়েছে। আমাদের টুর্নামেন্টটিকে তারা আই লিগের প্রস্তুতি হিসেবে নিচ্ছে।'

শুধু ভারতে নয়, দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম সেরা দল বলা হয় কলকাতার জনপ্রিয় ক্লাব ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগানকে। এবার এই দুই দলকে একসঙ্গে নিয়ে শেখ কামাল আন্তর্জাতিক ক্লাব কাপ আয়োজন করতে চায় চট্টগ্রাম আবাহনী। চট্টগ্রামে আয়োজিত আন্তর্জাতিক এই টুর্নামেন্টে মোট ৮টি দল অংশগ্রহণ করবে। এর মধ্যে ৫টি বিদেশি দল রাখতে চায় আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী।

ভারতের দুই ক্লাব থাকলে টুর্নামেন্টের জৌলুস বেড়ে যাবে বহুগুণ। ২০১৫ সালে প্রথম শেখ কামাল টুর্নামেন্টে খেলতে এসেছিল ইস্টবেঙ্গল। সেবার চট্টগ্রাম আবাহনীর সঙ্গে হেরে রানার্সআপ হয়েই সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছিল তাদের। প্রথম আসরে তাদের খেলা দেখার জন্য গ্যালারিতে উপচে পড়েছিল দর্শক। তাই আবার ইস্টবেঙ্গলকে নিয়ে আসার চেষ্টা আয়োজকদের।

বাকি তিনটি বিদেশি দলের জন্য মালদ্বীপ, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর ও কম্বোডিয়াকে চিঠি পাঠানো হয়েছে। আর বাংলাদেশের তিন ক্লাব হলো আয়োজক চট্টগ্রাম আবাহনী, আবাহনী লিমিটেড ও প্রিমিয়ার লিগ চ্যাম্পিয়ন নবাগত বসুন্ধরা কিংস। এবার অংশগ্রহণকারী দলগুলোকে দেয়া হবে ১০ হাজার মার্কিন ডলার। চ্যাম্পিয়ন দলকে দেয়া হবে ৫০ হাজার মার্কিন ডলার। রানার্সআপ দলের পুরস্কারের পরিমাণটা হতে পারে ৩০ হাজার মার্কিন ডলার।

সাঁতারে আসছেন জাপানি কোচ

ক্রীড়া প্রতিবেদক

দক্ষিণ কোরিয়ার পার্ক তে গুন চলে যাওয়ার পর কোচ ছাড়াই অনুশীলন করছিলেন সাঁতারুরা। কিন্তু সামনে এসএ গেমস। তিন বছর আগে এসএ গেমসে পাওয়া চারটি পদকের দুটিই এসেছিল সাঁতারে। বাংলাদেশের প্রথম নারী সাঁতারু হিসেবে এসএ গেমসে স্বর্ণ জিতেছিলেন মাহফুজা খাতুন শিলা। সাঁতারের দুটি স্বর্ণই জিতেছিলেন তিনি।

সাঁতারের সাবেক বিতর্কিত কোচ দক্ষিণ কোরিয়ার পার্ক তে গুন প্রায় ৬ মাস আগে বাংলাদেশকে গুডবাই জানিয়েছেন। তারপর থেকে একজন বিদেশি কোচের সন্ধানে ছিল বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশন। পেয়েও গেছে ইতোমধ্যে। দক্ষিণ কোরিয়ার কোচের ছেড়ে যাওয়া আসনটিতে বসছেন একজন জাপানি। তার নাম তাকিও ইনোকি।

আগামী ১ থেকে ১০ ডিসেম্বর নেপালের কাঠমান্ডু ও পোখারায় হবে সাউথ এশিয়ান গেমস। দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে বড় এ গেমস সামনে রেখে জাপানি এ কোচের সঙ্গে ৬ মাসের চুক্তি সেরে ফেলেছে বাংলাদেশ সাঁতার ফেডারেশন।

জানা গেছে, জাপানি এই কোচের মাসিক বেতন ৩ হাজার মার্কিন ডলার। বেতনের বাইরে আবাসন, খাওয়ার ও অন্যান্য আনুষঙ্গিক খরচ বহন করবে বাংলাদেশ সুইমিং ফেডারেশন। আগস্টের শেষদিকেই এসে সাঁতারুদের দায়িত্ব নেয়ার কথা নতুন কোচের।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে