logo
সোমবার ১৭ ডিসেম্বর, ২০১৮, ৩ পৌষ ১৪২৫

  ক্রীড়া প্রতিবেদক   ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

এবার ম্যাচ জেতাবেন পেসাররা: রুবেল

পেসাররা ওয়ানডে জেতানোর ক্ষমতা রাখে। অনেক ওয়ানডে ম্যাচ জিতিয়েছে পেস বোলাররা। আপনি যদি দেখেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও পেসাররা জিতিয়েছে। আর এই কন্ডিশনেও জেতাতে পারবে। ওয়ানডেতে উইকেট স্পিন সহায়ক থাকবে না, যেভাবে টেস্টে ছিল

এবার ম্যাচ জেতাবেন পেসাররা: রুবেল
ঘরের মাঠে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজ ২-০ ব্যবধানে জিতে নিয়েছে বাংলাদেশ দল। আর তা এসেছে দলের স্পিনারদের হাত ধরে। সদ্য শেষ হওয়া ওই সিরিজে প্রতিপক্ষের ৪০টি উইকেটই নেন বাংলাদেশি স্পিনাররা। সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টে বাংলাদেশের একাদশে কোনো পেসারই রাখা হয়নি। কোনো পেসার ছাড়া টেস্ট ক্রিকেট খেলার বিষয়টিকে দুঃখজনক বলে জানিয়েছেন ফাস্ট বোলার রুবেল হোসেন। টেস্টের পর এবার মিশন ওয়ানডে। আর সেখানে স্পিনারদের চেয়ে পেসারদের ভূমিকাই থাকবে বেশি, এমনটাই মনে করছেন ডানহাতি পেসার রুবেল।

তিন ম্যাচ ওয়ানডে সিরিজ সামনে রেখে মঙ্গলবার থেকে বাংলাদেশ দলের অনুশীলন শুরু হয়েছে। বুধবার টাইগারদের অনুশীলন শেষে সংবাদ মাধ্যমের মুখোমুখি হন রুবেল হোসেন। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের শেষ টেস্টে পেসার না খেলানোর প্রসঙ্গ উঠলে রুবেল বলেন, ‘পেস বোলাররা খেলতে পারছে না, এটা খুব দুঃখজনক। একটা পেস বোলার না নিয়ে আমরা টেস্ট খেলছি, আমাদের কন্ডিশন, উইকেট ওইরকম ছিল। আমাদের দেশের মাটিতে সফল হয়েছি। দলের প্ল্যান হয়তো ওইভাবেই ছিল। এটা পেস বোলারদের জন্য একটু তো খারাপ লাগাই।’

টানা দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজে দারুণ ছন্দে ছিলেন স্পিনাররা। সেটা কী পেসারদের জন্য বাড়তি চাপ কি না এমন প্রশ্নের জবাবে রুবেল বলেন, ‘আমার কাছে মনে হয় ওয়ানডেতে এমন হবে না, ওয়ানডেতে একটু ডিফ্রেন্ট হবে। উইকেটে ওইভাবে স্পিন থাকবে না। আমার কাছে মনে হয় না ওইরকম হবে। আর পেসাররা ওয়ানডে জেতানোর ক্ষমতা রাখে। অনেক ওয়ানডে ম্যাচ জিতিয়েছে পেস বোলাররা। আপনি যদি দেখেন, ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরেও পেসাররা জিতিয়েছে। আর এই কন্ডিশনেও জেতাতে পারবে। ওয়ানডেতে উইকেট স্পিন সহায়ক থাকবে না, যেভাবে টেস্টে ছিল। আর আমাদের যেই পেস বোলাররা আছে, এই কন্ডিশনে অবশ্যই ম্যাচ জেতাতে পারব।’

চলতি বছর জুলাইতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের মাটিতে তাদের ২-১ ব্যবধানে ওয়ানডে সিরিজ জিতে এসেছে বাংলাদেশ। এবারের টাগের্টটা কেমন হবে জানতে চাইলে রুবেল বলেন, ‘কেমন হবে, আসলে এটা বলা যাচ্ছে না। আমরা অবশ্যই সিরিজ জেতার জন্য মাঠে নামব। ৩-০ বা ২-০ এ ধরনের কোনোকিছুই বলা যাচ্ছে না। আমাদের প্রতিটা ক্রিকেটার খুব আত্মবিশ্বাসী। ভালো একটা টেস্ট সিরিজ আমরা জিতেছি, এটা আমাদের ক্রিকেটারদের অনেক আত্মবিশ্বাস নিয়ে খেলবে ওয়ানডে সিরিজে। ’

বাংলাদেশের পেস আক্রমণে বেশির ভাগ সময়ই ডেথ ওভারের দায়িত্ব পড়ে রুবেলের ওপর। তাতে সফল না বিফল দুইটাই হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। নিজের এই অভিজ্ঞতার বিষয়ে ডানহাতি এ পেসার বলেন, ‘আমি নয় বছর আন্তজাির্তক ক্রিকেট খেলছি, অবশ্যই একটু অভিজ্ঞতা হয়েছে। তারপর অনেক কষ্ট করছি ডেথ ওভারের বোলিং নিয়ে। কারণ আমার মূল চিন্তা হচ্ছে ডেথ বোলিং। কারণ আমাকে ডেথ ওভারে বল করতেই হবে। এমন অবস্থায় বল করি যেখানে ম্যাচ জেতানো যায় আবার ম্যাচ হেরেও যায়। যার কারণে আমাকে আরও বেশি ফোকাসে রাখতে হয়। এখন একটু বেশি জোর দিচ্ছি ডেথ বোলিংয়ের ওপর।’

এখন পযর্ন্ত ২৬টি টেস্ট ম্যাচ খেলেছেন রুবেল। সেখানে উইকেট পেয়েছেন মাত্র ৩৩টি। গড় ৮০.৩৩। সেখানে ৯৩টি ওয়ানডে খেলে ৩২.৫১ গড়ে উইকেট পেয়েছেন ১১৮টি। আর ২৭টি টি২০তে ২৮ উইকেট। সবচেয়ে বড় কথা সাদা বলের তুলনায় লাল বলে তার গতি অনেকটাই কমে আসে। যেখানে লাল বলেই গতি বেশি থাকার কথা। মূলত এসব কারণেই ধারণা করা হয় টেস্টের প্রতি ততটা মনযোগী নন রুবেল।

আর তাই প্রায় সময় শোনা যায়, বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চায় না। বিশেষ করে ঘরোয়া ক্রিকেট। এই বিষয়টি সম্পূণর্ মিথ্যা বলে জোর গলায় দাবি করলেন রুবেল, ‘এটা সম্পূণর্ মিথ্যা। এ ধরনের কথা কারা বের করছে, তা আমি জানি না। আমি টেস্ট খেলতে চাইব না কিসের জন্য। এই ক্রিকেটই আমার রটি-রুজি। এটার ওপরেই আমি চলি। আমার পরিবার চলে। তাই না, এটার সঙ্গে তো আমার প্রতারণা করার কিছু নেই। আমি জানি না এটা কারা বের করছে, কিন্তু আমি কখনই বলি নাই আমি টেস্ট ক্রিকেট খেলতে চাই না।’
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে