logo
বৃহস্পতিবার, ২৮ মে ২০২০, ১৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

চট্টগ্রাম নগরে দাপিয়ে বেড়ায় নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত রিকশা

চট্টগ্রাম নগরে দাপিয়ে বেড়ায় নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত রিকশা
চট্টগ্রাম নগরের একটি সড়কে নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত রিকশা -যাযাদি

দুর্ঘটনা, বিদু্যতের অপচয়সহ নানা কারণে নগরে নিষিদ্ধ ব্যাটারিচালিত রিকশা। এসব ব্যাটারিচালিত রিকশা বন্ধে পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা নির্দেশও দেন ট্রাফিক বিভাগ ও সংশ্লিষ্ট থানাকে। কিন্তু তবুও নগরজুড়ে চলছে এসব ব্যাটারিচালিত রিকশা। এছাড়া গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা বন্ধ ঘোষণা করলেও অবৈধ 'টোকেন বাণিজ্য'র মাধ্যমে নগরের কয়েকটি এলাকায় চলাচল করে এসব গ্রাম সিএনজি। এসব সিএনজি অটোরিকশার অধিকাংশের কোনো নম্বর নেই। নগরে ছিনতাইসহ নানা অপরাধ কর্মকান্ডে এসব নম্বরবিহীন সিএনজি অটোরিকশা ব্যবহার হয়। নগর গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরা বেশ কয়েকবার নম্বরবিহীন সিএনজি অটোরিকশা আটক করেন যেসব অটোরিকশা ব্যবহৃত হয়েছিল ছিনতাইয়ে। এসব নম্বরবিহীন গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা ও ব্যাটারি চালিত রিকশা বন্ধের নির্দেশ দেওয়ার পর বেশ কয়েকদিন বন্ধ থাকে। পরে ফের নগরের বিভিন্ন সড়কে দেখা যায়। অভিযোগ রয়েছে, সংশ্লিষ্টদের ম্যানেজ করে নগরে চলে এসব গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত রিকশা। এসব সিএনজি অটোরিকশা ও ব্যাটারি রিকশাকে এলাকা নির্দিষ্ট করেও দেওয়া হয়। ওই নির্দিষ্ট এলাকার ভেতর দাপটের সঙ্গেই চলাচল করে। কয়েকদিন ধরে ঘুরে দেখা যায়, নগরের চান্দগাঁও, বায়েজিদ, খুলশী, কোতোয়ালী, পাহাড়তলী, আকবরশাহ থানাসহ বিভিন্ন এলাকায় চলছে এসব ব্যাটারিচালিত রিকশা। পলিটেকনিক মোড়, টেক্সটাইল মোড়, শেরশাহ মোড়, বহদ্দারহাট খাজা রোডসহ কয়েকটি এলাকায় দেখা যায় গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা। মঙ্গলবার সকালেও নগরের বহদ্দারহাট, রাহাত্তারপুল, চকবাজার ও দেওয়ানবাজার এলাকায় অবৈধ গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা ও ব্যাটারিচালিত রিকশা চলতে দেখা গেছে। সোমবার রাতেও নগরের জামালখান থেকে চকবাজার এলাকায় ব্যাটারিচালিত রিকশা চলতে দেখা গেছে। সোমবার নগরে গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা, ব্যাটারি রিকশা চলাচল বন্ধে সভা করে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের ট্রাফিক বিভাগ। সভায় অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) এসএম মোস্তাক আহমদ খানসহ পুলিশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা ও পরিবহণ সংগঠনের নেতারা উপস্থিত ছিলেন। এর আগেও অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (ট্রাফিক) যোগদানের পর নগরে অবৈধ এসব গ্রাম সিএনজি অটোরিকশা বন্ধে নির্দেশনা দিয়েছিলেন। তার নির্দেশের পর সপ্তাহখানেক উধাও হয়ে গিয়েছিল এসব সিএনজি অটোরিকশা। পরে ফের আগের মতোই এসব সিএনজি অটোরিকশা চলাচল করতে দেখা যায়।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে