logo
বুধবার, ০১ এপ্রিল ২০২০, ১৮ চৈত্র ১৪২৫

  যাযাদি রিপোর্ট   ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

হাঁটা দিবস পালিত

'সুস্থ থাকতে হাঁটার বিকল্প নেই'

'প্রতিদিন হাঁটি, সুস্থ থাকি' প্রতিপাদ্য নিয়ে প্রথমবারের মতো সারাদেশে পালিত হলো 'হাঁটা দিবস'।

দিবসটি উপলক্ষে বুধবার সকাল ১০টায় রাজধানীর শাহবাগ মোড় থেকে 'হেল্প ফর ইউ নামে' একটি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের ব্যানারে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রা শুরু হয়।

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে রাজু ভাস্কর্যের পাদদেশে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয় সেই শোভাযাত্রা। বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ এ কর্মসূচিতে অংশ নেয়।

যুব ও ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. আখতার হোসেন সংক্ষিপ্ত সমাবেশে বলেন, 'সুস্থ থাকার জন্য হাঁটার বিকল্প নেই। একটি ইঞ্জিন যেমন ফেলে রাখলে অকেজো হয়ে যায়, তেমনি মানুষও যদি হাঁটাচলা না করে, সে মানুষ কিন্তু স্বাভাবিকভাবে জীবন-যাপন করতে পারে না। আমাদের যদি সুস্থ ও নীরোগ থাকতে হয়, তাহলে দুটো জিনিসকে গুরুত্ব দিতে হবে। তা হলো হাঁটা ও ব্যায়াম এবং স্বাস্থ্যকর খাবার।'

'হেল্প ফর ইউ' এর চেষ্টায় হাঁটা দিবস পালনের এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়ে সচিব বলেন, 'বর্তমানে এটা ছোট আকারে পালিত হলেও দিন দিন এটা আরও জনপ্রিয় হবে। সব মানুষ এই হাঁটার যাত্রায় অংশীদার হবে। আগামীতে আমরা প্রতিবছর ১৯ ফেব্রম্নয়ারিকে আরও জাঁকজমকপূর্ণভাবে পালন করতে পারব বলে আশা করি।'

হাঁটার গুরুত্ব তুলে ধরে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ফরেনসিক বিভাগের চিকিৎসক সোহেল মাহমুদ বলেন, 'হাঁটা দিবস পালন নিয়ে অনেকে হয়তো হাসবে। কিন্তু বিষয়টির গুরুত্ব বোঝে না বলেই তারা হাসবে। যারা শারীরিক পরিশ্রম করে না, তাদের জন্য হাঁটা একটি উত্তম ব্যায়াম। কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করতে, ডায়াবেটিসমুক্ত থাকতে প্রতিদিন অন্তত আধা ঘণ্টা নিয়মমাফিক হাঁটা উচিত।'

'হেল্প ফর ইউ' এর সভাপতি জান্নাতুল মাওয়া রুমা বলেন, 'আমি হাঁটতে চাই, হাঁটাতে চাই। আমি কার্বনমুক্ত বিশ্ব গড়তে চাই। সুস্থ জনশক্তি গড়ে তোলার লক্ষ্যে আমি ২০১৪ সাল থেকে এ যাত্রায় হাঁটছি। সরকার এখন জাতীয়ভাবে হাঁটা দিবস পালনের অনুমতি দিয়েছে। আজকে থেকে আমরা এটি সরকারিভাবে পালন করছি।'

অন্যদের মধ্যে যুব ক্রীড়া মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব আব্দুল করিম, জাতীয় গ্রন্থাগারের সহকারী পরিচালক হামিদুর রহমান তুষার, সাবেক ফুটবলার শেখ মো. আসলাম সমাবেশে বক্তব্য দেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে