logo
শুক্রবার, ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ১৬ ফাল্গুন ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ২২ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

হাতিরঝিল থেকেও সুন্দর হবে বেরাইদ: আতিক

হাতিরঝিল থেকেও সুন্দর হবে বেরাইদ: আতিক
ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম মঙ্গলবার রাজধানীর বেরাইদ মুসলিম হাইস্কুল মাঠে নির্বাচনী প্রচারণা চালান -ফোকাস বাংলা

গুলশান-বনানী-হাতিরঝিলের চেয়েও ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের (ডিএনসিসি) আওতাধীন ভাটারার বেরাইদ এলাকা হবে সুন্দর। প্রশস্ত করা হবে রাস্তা, উদ্ধার করা হবে দখল হওয়া খাল। আসন্ন সিটি করপোরেশন নির্বাচন সামনে রেখে বেরাইদবাসীর কাছে এমনই প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছেন মেয়র পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী আতিকুল ইসলাম। মঙ্গলবার গণসংযোগের অংশ হিসেবে বেরাইদ মুসলিম হাইস্কুল মাঠে এক পথসভায় অংশ নেন আতিকুল ইসলাম। এ সময় তিনি বলেন, 'আমার আগের নির্বাচনের প্রচারণার সময় এই এলাকায় এসেছিলাম। তখন ১০০ ফিট রাস্তা ছাড়া আর কোনো রাস্তা ছিল না। মানুষের কী দুর্ভোগ হতো সেটি দেখেছি। বিগত নয় মাসে এখানকার রাস্তার অবস্থা এখন আগের যেকোনো সময়ের থেকে ভালো। তবে আরও ভালো করতে ডিএনসিসির নতুন এই ১৮টি ওয়ার্ডের জন্য চার হাজার ২০০ কোটি টাকার বরাদ্দ একনেকে পাস হওয়ার অপেক্ষায়।' তিনি বলেন, 'এই ৪২ নম্বর ওয়ার্ডসহ নতুন ওয়ার্ডগুলোর উন্নয়নে নগর পরিকল্পনাবিদদের নিয়ে একটি মাস্টারপস্ন্যান করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা হয়েছে, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়, এলজিইডির সঙ্গে কথা হয়েছে, এই এলাকার প্রতিটি রাস্তা চওড়া হবে, ড্রেন হবে, রাস্তায় বাতি থাকবে। কথা দিচ্ছি আমি মেয়র নির্বাচিত হলে এই এলাকা গুলশান-বনানী থেকে উন্নত হবে।' বেরাইদ এলাকায় অনেক খাল দখল হয়ে আছে উলেস্নখ করে সেগুলো উদ্ধারের প্রতিশ্রম্নতিও দেন আতিক। তিনি বলেন, হাতিরঝিলে অনেক খাল দখল হয়েছিল। সেগুলো উদ্ধার করা হয়েছে। এই এলাকায়ও বেশ কিছু দৃষ্টিনন্দন খাল আছে। সেগুলোকে উদ্ধার করে হাতিরঝিলের থেকে সুন্দর করা হবে। আপনাদের (বেরাইদবাসী) আর কষ্ট করে হাতিরঝিল যেতে হবে না। এটিই হবে হাতিরঝিল থেকে সুন্দর। এ সময় ৪২ নম্বর ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলমকে পরিচয় করিয়ে দেন আতিক। পথসভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন আওয়ামী যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল, আওয়ামী লীগ ঢাকা মহানগর উত্তর কমিটির সভাপতি শেখ বজলুল এবং সাধারণ সম্পাদক মান্নান কচিসহ অন্যরা। উলেস্নখ্য, ঢাকা দক্ষিণ ও উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচন পহেলা ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত হবে। গত ২২ ডিসেম্বর ঢাকার দুই সিটি করপোরেশনের তফসিল ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। দুই সিটি করপোরেশনে নির্বাচনের জন্য ৩০ জানুয়ারি তারিখ নির্ধারণ করা হয়। পরবর্তীতে হিন্দুধর্মাবলম্বীরা আপত্তি তোলেন যে, ৩০ তারিখে সরস্বতী পূজা রয়েছে। সে সময়ে নির্বাচন হলে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে পূজা উদযাপনে সমস্যা হবে। যেহেতু নির্বাচনের সময় অনেক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ভোটকেন্দ্র হিসেবে ব্যবহৃত হবে। পরে নির্বাচনের তারিখ পরিবর্তনের আবেদন জানিয়ে হাইকোর্টে একটি রিট আবেদন করা হলেও, সেটি খারিজ করে দেয়া হয়। পরে নির্বাচনের সময় পরিবর্তনের দাবিতে আন্দোলন ও অনশন শুরু করেন হিন্দু শিক্ষার্থীরা। সর্বশেষ গত শনিবার বিকালে জরুরি বৈঠকে বসে নির্বাচন কমিশন। সেখান থেকেই সিদ্ধান্ত এলো- পহেলা ফেব্রম্নয়ারি নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে