logo
রবিবার, ২৬ জানুয়ারি ২০২০, ১২ মাঘ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর দাবি

সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স বাড়ানোর দাবি
ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটির সাগর-রুনি মিলনায়তনে মঙ্গলবার সংবাদ সম্মেলনে করে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ -যাযাদি

যাযাদি রিপোর্ট সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর দাবি জানিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্রপরিষদ। তারা বলছে, দেশের মানুষের গড় আয়ু বেড়েছে। ২০১২ সালে সরকারি চাকরিতে অবসরের বয়সসীমাও দুই বছর বাড়ানো হয়। কিন্তু গড় আয়ু বৃদ্ধির সঙ্গে সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়স এক বছরও বাড়ানো হয়নি। মঙ্গলবার দুপুর ১২টার দিকে রাজধানীর সেগুনবাগিচার সাগর-রুনি মিলনায়তনে এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদ। তারা সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩৫ বছর করার দাবি জানিয়ে আসছে। সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্যে পরিষদের সমন্বয়ক নাসরিন সুমি বলেন, ২০১২ সালে সরকারি চাকরিতে অবসর গ্রহণের বয়সসীমা দুই বছর বাড়ানো হয়। এর পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি চাকরিতে আবেদনের বয়সসীমা বৃদ্ধি করা হয়নি। সরকার তখন যুক্তি দিয়েছিল যে, গড় আয়ু বেড়েছে। তাহলে প্রশ্ন, শুধু কি সরকারি চাকরিজীবীদের গড় আয়ু বেড়েছে, সাধারণ শিক্ষার্থীদের গড় আয়ু বাড়েনি? বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের এই সমন্বয়ক বলেন, 'বর্তমান সরকার তার সর্বশেষ নির্বাচনী ইশতেহারে সরকারি চাকরিতে বয়সসীমা যৌক্তিকভাবে বাড়ানোর অঙ্গীকার করে। কিন্তু প্রায় এক বছর হয়ে গেছে, এই অঙ্গীকারের কোনো বাস্তবায়ন আমরা দেখতে পাইনি।' চাকরিতে আবেদনের বয়স ৩৫ করার প্রত্যাশীরা বলছেন, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাত কলেজ, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিলস্না বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে তীব্র সেশনজট রয়েছে। গুটিকয়েক কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট কমেছে। কিন্তু বেশিরভাগ কলেজ-বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট বিদ্যমান। সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা ৩০ বছর হওয়ার কারণে বর্তমানে শিক্ষার্থীরা একাডেমিক পড়াশোনায় মনোযোগী হতে পারছেন না। বরং তারা শুধু চাকরি নামক প্রতিযোগিতায় টিকে থাকার জন্য পড়াশোনায় মন দিচ্ছেন। ফলে উচ্চশিক্ষা ও জ্ঞান অর্জন ব্যাহত হচ্ছে। যদি বয়সসীমা বাড়ানো হতো, তাহলে একাডেমিক শিক্ষায় শিক্ষার্থীরা মনযোগ দিতে পারতেন। সংবাদ সম্মেলন থেকে চার দফা দাবি তুলে ধরা হয়। দাবিগুলো হলো সেশনজটে হারিয়ে যাওয়া বছরগুলো ফেরত, প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাতের ব্যবস্থা, জনপ্রশাসন সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সুপারিশকৃত চাকরিতে আবেদনের বয়স ৩৫ বাস্তবায়ন করা এবং ৪১তম বিসিএসে আবেদনের সুযোগ দেওয়া। দাবি আদায় না হলে আগামী ১৯ ডিসেম্বর সকাল ১০টায় রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অবস্থান কর্মসূচির ডাক দিয়েছে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্রপরিষদ। সংবাদ সম্মেলনে বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র পরিষদের সমন্বয়ক অরুনিমা দে, ইমতিয়াজ হোসেন, বিজিত সিকদার, ফয়সাল মাহমুদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে