logo
  • Thu, 18 Oct, 2018

  যাযাদি রিপোটর্   ১১ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০  

আগেভাগেই বাজারে শিম, দাম চড়া

আগেভাগেই বাজারে শিম, দাম চড়া
রাজধানীর একটি সবজির দোকানে শিম -যাযাদি
শীতকালীন সবজি হিসেবে পরিচিত শিম বেশ আগেভাগেই বাজারে চলে এসেছে। তবে দাম বেশ চড়া। রাজধানীর বিভিন্ন বাজারে প্রতি কেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১৬০ টাকায়। শিমের পাশাপাশি চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে ফুলকপি, পাকা টমেটো ও উস্তা।

শুক্রবার রাজধানীর কারওরানবাজার, রামপুরা, মালিবাগ হাজীপাড়া, খিলগঁাও, সেগুনবাগিচা এবং শান্তিনগরের বিভিন্ন বাজার ঘুরে এমন তথ্য পাওয়া গেছে।

ব্যবসায়ীরা বলছেন, শিম ও ফুলকপি শীতকালীন সবজি। শীত আসতে এখনও বেশ সময় বাকি আছে। তবে শীতের আগাম সবজি হিসেবে শিম ও ফুলকপি ইতোমধ্যে বাজারে চলে এসেছে। আগাম বাজারে আসায় এ দু’টি সবজির দাম একটু চড়া।

বিভিন্ন বাজার ঘুরে দেখা গেছে, মান ও বাজার ভেদে প্রতিকেজি শিম বিক্রি হচ্ছে ১৪০-১৬০ টাকায়। ছোট আকারের ফুলকপির পিস বিক্রি হচ্ছে ৩৫-৪০ টাকায়। উস্তার কেজি বিক্রি হচ্ছে ৬০-৮০ টাকায়। আর পাকা টমেটো ১০০-১২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে।

শিমের দামের বিষয়ে রামপুরা বাজারের ব্যবসায়ী সাইফুল বলেন, বাজারে যে কোনো সবজি নতুন আসলে দাম একটু বেশিই থাকে, এটা স্বাভাবিক। এখন এক কেজি শিম ১৫০ টাকায় বিক্রি করছি। এক সময় এই শিমই ২০ টাকা কেজিতে বিক্রি হবে। কিন্তু ১৬০ টাকার শিমের যে স্বাদ তা ২০ টাকা কেজির শিমে পাওয়া যাবে না।

পাকা টমেটো ও উস্তার চড়া দামের বিষয়ে কারওয়ানবাজারের ব্যবসায়ী আলী হোসেন বলেন, ঢাকাতে এখন ১২ মাস টমেটো পাওয়া যায়। কিন্তু বাস্তবতা হলো এখন টমেটোর মৌসুম না। কিছু ব্যবসায়ী মৌসুমের সময় টমেটো মজুদ করে রেখেছিলেন। এখন বাজারে সেই টমেটো পাওয়া যাচ্ছে। যে কারণে দাম চড়া।

আর এখন উস্তার চাষ খুব একটা হয় না। যে কারণে বাজারে সরবরাহ খুব কম। কিন্তু ক্রেতাদের মধ্যে উস্তার চাহিদা আছে বেশ। এ কারণে এর দাম বেশি। কিন্তু করলার দাম উস্তার চেয়ে বেশ কম।

ফুলকপির দামের বিষয়ে কারওয়ানবাজারের আরেক ব্যবসায়ী বাবু বলেন, শীতের আগাম সবজি খেতে হলে দাম একটু বেশি দিতেই হবে। এটি শুধু এখন নয়, সব সময় আগাম সবজির দাম একটু বেশি থাকে। এখন যে ফুলকপি ৪০ টাকা বিক্রি হচ্ছে কয়েক মাস পরে এর দশ গুণ বড় ফুলকপি ৩০ টাকায় পাওয়া যাবে।

এদিকে টানা বৃষ্টি ও নিরাপদ সড়কের দাবিতে শিক্ষাথীের্দর আন্দোলনের প্রভাবে গত সপ্তাহে বেশকিছু সবজির দাম বেড়ে যায়। বৃষ্টি ও শিক্ষাথীের্দর আন্দোলন থামলেও বেড়ে যাওয়া সবজির দাম কমেনি।

পটল, ঝিঙা, ধুন্দল, চিচিংগা, কাকরল, ঢেড়স, মিষ্টি কুমড়া বাড়তি দামেই বিক্রি হচ্ছে। পেঁপের দামও অপরিবতির্ত থাকলেও নতুন করে দাম বাড়ার তালিকায় স্থান করে নিয়েছে বেগুন। সবজির পাশাপাশি চড়া দামে বিক্রি হচ্ছে কঁাচামরিচ, ডিম, মুরগি এবং পেঁয়াজ।

গত সপ্তাহের মতো বেশিরভাগ বাজারে চিচিংগা, পটল, ঝিঙা, ধুন্দল, কাকরল বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা কেজিতে। বরবটি বিক্রি হচ্ছে ৪০-৫০ টাকা কেজিতে। গত সপ্তাহে এ সবজির দাম ছিল ৫০-৬০ টাকা কেজি। পেঁপে আগের সপ্তাহের মতো ২০-৩০ টাকা কেজিতে বিক্রি হচ্ছে। তবে ৩০-৩৫ টাকা কেজি দরে বিক্রি হওয়া বেগুনের দাম বেড়ে হয়েছে ৪০-৫০ টাকা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

উপরে