logo
শনিবার ১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯, ৪ ফাল্গুন ১৪২৫

  যাযাদি রিপোটর্   ১১ জুলাই ২০১৮, ০০:০০  

ডিএমসি দিবস পালিত

পিছিয়ে পড়া মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করুন : স্পিকার

পিছিয়ে পড়া মানুষের চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করুন : স্পিকার
মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজের সেমিনারকক্ষে ডিএমসি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত আলোচনা সভায় বক্তৃতা করেন জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী Ñযাযাদি

জাতীয় সংসদের স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরী বলেছেন, ‘আমাদের দেশের চিকিৎসক ও রোগীর যে আনুপাতিক হার, সেটা উন্নত দেশগুলোর সঙ্গে তুলনা করলে হবে না। নানা সীমাবদ্ধতার মধ্য দিয়েও আমাদের চিকিৎসকরা রোগীদের জন্য নিবেদিতভাবে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন।’ চিকিৎসকদের উদ্দেশে তিনি বলেন, ‘পিছিয়ে পড়া দরিদ্র জনগোষ্ঠীর চিকিৎসাসেবা নিশ্চিত করতে কাজ করে যাবেন। কারণ, এই কাজে আপনাদেরই গুরুত্বপূণর্ ভ‚মিকা পালন করতে হয়।’ মঙ্গলবার ঢাকা মেডিকেল কলেজের সেমিনারকক্ষে ডিএমসি দিবস উপলক্ষে আয়োজিত এক আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন। ‘চিকিৎসা, শিক্ষা, খাদ্য, অথর্নীতি ও নারীর ক্ষমতায়ন- সবদিক থেকে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশ। যে কারণে বিশ্বের বুকে আমাদের দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল।’ শিরীন শারমিন বলেন, ‘স্বাস্থ্যসেবা মানুষের দোরগোড়ায় পেঁৗছে দিতে চিকিৎসকদের ভ‚মিকা অপরিসীম। আপনাদের সেবার কারণে মাতৃমৃত্যু, শিশুমৃত্যুর হার অনেকগুণ কমেছে। অনেক ধরনের সংক্রামক রোগ আমরা নিয়ন্ত্রণ করতে সক্ষম হয়েছি।’ তিনি বলেন, ‘সাধারণ মানুষকে রোগ-প্রতিরোধ বিষয়ে ব্যাপকভাবে সচেতন করে তুলতে পারেন আপনারা। রোগে আক্রান্ত হওয়ার আগেই মানুষ যেন যেকোনো রোগের বিষয়ে সচেতন হয়, সে বিষয়ে কাজ করতে হবে। রোগে আক্রান্ত হওয়া থেকে মানুষ যদি পরিত্রাণ পেতে পারে, তাহলে চিকিৎসার খরচ কমে আসবে। সে কারণে চিকিৎসকরাই পারেন রোগাক্রান্ত হওয়ার আগেই সচেতনতা সৃষ্টি করতে।’ ‘স্বাস্থ্যসেবার বিষয়ে বতর্মান সরকার নানা ধরনের পদক্ষেপ গ্রহণ করেছে, সেসব সেবা আপনারা সাধারণ মানুষের কাছে পেঁৗছে দেবেন।’ আলোচনায় অংশ নিয়ে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ প্রতিমন্ত্রী জাহিদ মালেক বলেন, ‘স্বাস্থ্যসেবা মানুষের কাছে পেঁৗছে দিতে বতর্মান সরকার নতুন করে আরও ১০ হাজার চিকিৎসক নিয়োগ দিতে যাচ্ছে। তিনটি মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের কাজ দ্রæতগতিতে এগিয়ে চলছে। ইতোমধ্যে আমরা ১০ হাজার নাসর্ নিয়োগ দিয়েছি। এ ছাড়া এ বছর আরও পঁাচ হাজার নাসর্ নিয়োগ দেয়া হবে।’ তিনি বলেন, ‘মেডিকেল কলেজ ও জেলা পযাের্য় মানুষ চিকিৎসাসেবা ভালো করে পাচ্ছেন। তবে এ কথা স্বীকার করতে হবে যে, উপজেলা পযাের্য় স্বাস্থ্যসেবা কেন্দ্রিক কাযর্ক্রম আরও বাড়াতে হবে। কারণ, একটি উপজেলায় ২-৩ জন চিকিৎসক দিয়ে পুরোপুরি স্বাস্থ্যসেবা দেয়া সম্ভব নয়। এ কারণে এ বিষয়ে কাযর্কর পদক্ষেপ নিতে হবে আমাদের।’ ঢাকা মেডিকেল কলেজের অ্যালামনি ট্রাস্টের চেয়ারম্যান ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ ডা. খান আবুল কালাম আজাদ, অধ্যাপক সাহারা খাতুন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচাযর্ অধ্যাপক ডা. কনক কান্তি বড়ুয়া, ট্রাস্টের ভাইস চেয়ারম্যান জামাল উদ্দীন চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ডা. শফিকুল আলম চৌধুরী প্রমুখ।

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে