logo
  • Wed, 21 Nov, 2018

  অনলাইন ডেস্ক    ১০ নভেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষপে

ট্রেনে ছুরিকাঘাতে

যুবক আহত

যাযাদি রিপোটর্

রাজধানীতে কমলাপুরগামী চলন্ত ট্রেনের ছাদে বৃহস্পতিবার রাত ১০টার দিকে ছিনতাইকারীর ছুরিকাঘাতে মবিন মিয়া (২৪) নামে এক যুবক আহত হয়েছেন। মবিন মাতুয়াইল কেরানীপাড়া এলাকায় ভাড়া বাড়িতে থাকেন। তিনি লিফ্ট মেরামতের কাজ করেন।

ঢাকা রেলওয়ে থানার ওসি ইয়াসিন ফারুক মজুমদার বলেন, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় বিমানবন্দর রেলস্টেশন থেকে কমলাপুরের উদ্দেশে একটি ট্রেনের ছাদে চড়েন মবিন। ট্রেনটি তেজগঁাও অতিক্রম করার পর ছাদে থাকা ছয় থেকে সাতজন ছিনতাইকারী অন্যদের মোবাইল-মানিব্যাগ ছিনিয়ে নেয়ার চেষ্টা করে। এতে বাধা দিলে ছিনতাইকারীরা মবিনের বুকে, ডান হাতে ও বাম কানে ছুরিকাঘাত করে একজনের মোবাইল ছিনিয়ে নিয়ে যায়। ট্রেনটি কমলাপুর রেলস্টেশনে পৌঁছানোর পর আহত মবিনকে নিয়ে হাসপাতালে যান তার সহকমীর্ তানভির রহমান তামিম।

ট্রেনের ধাক্কায়

নারীর মৃত্যু

যাযাদি রিপোটর্

রাজধানীতে বিমানবন্দর রেলস্টেশনের এক নম্বর প্লাটফমের্ শুক্রবার সকালে ট্রেনের ধাক্কায় আফরোজা বেগম (৫৫) নামে এক প্রতিবন্ধী নারীর মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা রেলওয়ে থানার বিমানবন্দর পুলিশ ফঁাড়ির এসআই নজরুল ইসলাম জানান, সকালে স্টেশনের প্লাটফমের্ সামনে লাঠিতে ভর দিয়ে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে রেললাইন পার হওয়ার সময় ট্রেনের ধাক্কায় গুরুতর আহত হন আফরোজা। তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল নেয়া হলে চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মগের্ রাখা হয়েছে।

নারীর ঝুলন্ত

মরদেহ উদ্ধার

বোয়ালখালী (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে বৃহস্পতিবার রাত ১২টার দিকে রেহানা বেগম (৫১) নামের এক মহিলার ঝুলন্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। রেহানা উপজেলার মধ্যম কধুরখীল শরীফ পাড়ার প্রবাসী আলী আকবরের স্ত্রী।

থানার এসআই মানিক ভ‚ঁইয়া জানান, নিজ ঘরের সিলিংয়ের আড়ার সঙ্গে গলায় প্লাস্টিকের দড়ি জড়ানো ঝুলন্ত অবস্থায় পাওয়া যায় রেহানা বেগমকে। এ ব্যাপারে অপমৃত্যু মামলা রুজু করা হয়েছে। রেহানা বেগমের স্বামী বিদেশে থাকেন। ঘরে ছেলে, পুত্রবধূ ও নাতি নাতনিরা থাকে। এরমধ্যে ১ ছেলে প্রবাসে ও আরেকজন নগরে বসবাস করেন। রেহানা বেগম দীঘির্দন ধরে মানসিক ভারসাম্যহীনতায় ভুগছিলেন। তার চিকিৎসাও চলছিল। তিনি আত্মহত্যা করে থাকতে পারেন।

মদপানে দুই

যুবকের মৃত্যু

যাযাদি ডেস্ক

যশোরের মণিরামপুরে বৃহস্পতিবার দিনগত রাতে বিষাক্ত মদপানে পলাশ সরকার (৩৫) ও পবিত্র মÐল (২৮) নামের দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তাদের বাড়ি উপজেলার খড়িঞ্চা খেদাপাড়া গ্রামে।

যশোর ২৫০ শয্যা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক ডা. মাজহারুল ইসলাম বলেন, অতিরিক্ত অ্যালকোহল গ্রহণ করায় ওই ?দুই যুবকের মৃত্যু হয়েছে। তবে এগুলোতে ‘পয়জন’ ছিল কিনা তা ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা সম্ভব নয়। মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মগের্ রাখা হয়েছে।

শ্বাসরোধ করে

যুবককে হত্যা

যাযাদি ডেস্ক

পাবনা সদর উপজেলার মধুপুর গ্রাম থেকে শুক্রবার সকালে সোহেল প্রামাণিক (২৩) নামে এক যুবকের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। সোহেল ওই গ্রামের হেলাল প্রামাণিকের ছেলে। নিহতের গলায় ও শরীরের বিভিন্ন স্থানে আঘাতের চিহ্ন রয়েছে।

আতাইকুলা থানার ওসি মনিরুজ্জামান জানান, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সোহেল ব্যক্তিগত কাজের কথা বলে বাড়ি থেকে বের হয়ে আর ফেরেনি। সকালে স্থানীয়রা মধুপুর মাদ্রাসাসংলগ্ন মাঠে সোহেলের মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে থানায় খবর দেয়। পরে পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মগের্ পাঠায়। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে তাকে শ্বাসরোধ করে হত্যা করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

ছেলের হাতে

বাবা খুন

যাযাদি ডেস্ক

নরসিংদী শহরের চৌয়ালা এলাকায় শুক্রবার সকালে ছেলের শাবলের আঘাতে বাবা ফজলুল করিমের (৫৫) মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় নিহতের ছেলে মাসুম মিয়াকে (২৮) আটক করেছে পুলিশ। ফজলুল চৌয়ালা মাকেের্ট মুদি মালের ব্যবসা করতেন।

নরসিংদী সদর মডেল থানার ওসি সৈয়দুজ্জামান জানান, ছয় বছর আগে ফজলুলের প্রথম পক্ষের স্ত্রী মারা গেলে তিনি আবার বিয়ে করেন। এরপর তার মেঝো ছেলে মাসুম মিয়া বাবাকে সম্পদ ভাগ করে দিতে বলেন। সম্পত্তি ভাগ না করায় মাসুম প্রায়ই তার সৎমায়ের ওপর নিযার্তন করতেন। শুক্রবার সকালে মাসুমের সঙ্গে তার বাবার ঝগড়া বাধে। একপযাের্য় মাসুম শাবল দিয়ে ফজলুলের ঘাড়ে কোপ দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই তিনি মারা যান। তার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য নরসিংদী সদর হাসপাতাল মগের্ পাঠানো হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে