logo
সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৫

  যাযাদি রিপোর্ট   ২৯ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

জুমার নামাজের পর বিক্ষোভ, মোদিকে না আনার দাবি

জুমার নামাজের পর বিক্ষোভ, মোদিকে না আনার দাবি
ভারতে নিরীহ মুসলমানদের ওপর সহিংস হামলা ও মসজিদে অগ্নিসংযোগসহ বিভিন্ন হয়রানির প্রতিবাদে শুক্রবার জুমার নামাজ শেষে জাতীয় মসজিদ বায়তুল মোকাররমের সামনে বিভিন্ন ইসলামি সংগঠন বিক্ষোভ করে -ফোকাস বাংলা
ভারতের রাজধানী দিলিস্নতে মুসলিমদের উপর সহিংসতার প্রতিবাদে ঢাকার বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে বিক্ষোভ করেছে ইসলামভিত্তিক কিছু দল ও সংগঠন। জুমার নামাজের পরে অনুষ্ঠিত এ বিক্ষোভে কয়েক হাজার মানুষ অংশ নিয়েছে।

বায়তুল মোকাররম মসজিদের সামনে একটি সমাবেশ শেষে সেখান থেকে একটি মিছিল বের করা হয়।

বিক্ষোভকারীরা দাবি তুলেছেন, বাংলাদেশের প্রতিষ্ঠাতা রাষ্ট্রপতি শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি যাতে ঢাকায় আসতে না পারেন।

এই সমাবেশে নরেন্দ্র মোদি-বিরোধী নানা পস্ন্যাকার্ড বহন করেন বিক্ষোভকারীরা।

সমাবেশে বক্তারা বলেন, ভারতে সংখ্যালঘু মুসলিমরা নরেন্দ্র মোদি সরকারের নির্দেশে নির্যাতনের শিকার হচ্ছে।

বিক্ষোভে অংশ নেয়া সানোয়ার হোসেন বলেন, 'আমরা চাই ভারতের মুসলমানরা যাতে সমভাবে বসবাস করে। তারা যাতে নির্যাতনের শিকার না হয়। সেজন্যই আমরা এ বিক্ষোভ করছি।'

বাংলাদেশ সরকার এরই মধ্যে জানিয়েছে শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকীর অনুষ্ঠানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে এবং তিনি আসতে সম্মত হয়েছেন।

বিক্ষোভে অংশগ্রহণকারীদের অনেকেই বলেছেন, শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী অনুষ্ঠানে নরেন্দ্র মোদি এবং বিজেপি সরকারের সাথে সম্পৃক্ত ব্যক্তিরা ছাড়া ভারতের অন্য কেউ আসলে তাদের আপত্তি নেই।

সমাবেশে অংশ নেয়া মো. মঈন রহমান বলেন, 'বাংলাদেশের ১৯৭১ সালের যুদ্ধে কংগ্রেসের সহায়তা ছিল। বিজেপি তো উগ্র। নরেন্দ্র মোদিকে কোন যুক্তিতে বাংলাদেশে আসার অনুমতি দেয়া হয়? কংগ্রেস দলের প্রতিনিধিরা আসুক, আমরা তাদের সমর্থন জানাব।'

ইসলামপন্থী দলগুলোর নেতারা সমাবেশে বলেন, নরেন্দ্র মোদি বাংলাদেশে আসলে প্রয়োজনে তারা আবারো রাস্তায় নেমে বিক্ষোভ করবেন।

এ সমাবেশকে কেন্দ্র বায়তুল মোকাররম এবং তার আশপাশের এলাকায় ব্যাপক পুলিশের উপস্থিতি ছিল।

\হ
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে