logo
সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১১ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

মুজিববর্ষে দেশবাসী উপহার পাচ্ছে 'বিষমুক্ত আম'

মুজিববর্ষে দেশবাসী উপহার পাচ্ছে 'বিষমুক্ত আম'
মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে শুক্রবার রাজশাহী সার্কিট হাউজ সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে অতিথিরা -যাযাদি
আগামী ১৭ মার্চ জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মবার্ষিকী। জাতির জনকের জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে মুজিববর্ষ শুরু হচ্ছে ওই দিন। আর আগামী মে মাস থেকেই রাজশাহীর বাগানে বাগানে আম ভাঙা শুরু হবে। তাই 'মুজিববর্ষে' রাজশাহীর আমকে শতভাগ বিষমুক্ত রাখতে দৃঢ় প্রতিশ্রম্নতি ব্যক্ত করেছে রাজশাহী জেলা প্রশাসন। কঠোর নজরদারির মধ্যে দিয়ে দেশবাসীর জন্য এ বছর রাজশাহীর আমকে শতভাগ রাসায়নিকমুক্ত রাখা হবে।

প্রতিবার এমন উদ্যোগ থাকলেও 'মুজিববর্ষ' উপলক্ষে সবাইকে বিষমুক্ত আম উপহার দিতে এবার বিশেষ কৌশল নিয়ে সতর্ক থাকবে সবাই। এরই মধ্যে বিষয়টি নিয়ে মাঠে নেমেছে জেলা প্রশাসন।

মুজিববর্ষ উদযাপন উপলক্ষে শুক্রবার সকালে সার্কিট হাউজ সম্মেলনকক্ষে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে বিষয়টি জানান জেলা প্রশাসক হামিদুল হক। রাজশাহী জেলা প্রশাসন এ সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করে।

সংবাদ সম্মেলনে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের সচিব আবু হায়াত মো. রহমাতুলস্নাহ, রাজশাহীর পুলিশ সুপার মো. শহিদুলস্নাহ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) শরীফুল হক, মহানগর পুলিশের অতিরিক্ত উপকমিশনার আবদুর রশিদ উপস্থিত ছিলেন।

রাজশাহী জেলা প্রশাসক হামিদুল হক বলেন, গত কয়েক বছর গাছ থেকে আম ভাঙার সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হচ্ছে। এতে এমনিতেই রাজশাহীর আমে কোনো রাসায়নিক প্রয়োগের সুযোগ পান না চাষিরা। এর ওপর মুজিববর্ষ উপলক্ষে পুরো আমের মৌসুমটি আরও কঠোর নজরদারির মধ্যে আনা হবে। এ লক্ষ্যে বাগান মালিক, আমচাষি ও ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিয়মিত বসবে জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তারা। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা পুরো বিষয়টি সমন্বয় করবেন।

রাজশাহী কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর ও ফল গবেষণা কেন্দ্রের সমন্বয়ে শতভাগ রাসায়নিক মুক্ত আম নিশ্চিত করা হবে। এবার মুজিববর্ষে রাজশাহীর বিষমুক্ত আম হবে জাতির জন্য উপহার।

মুজিববর্ষে সরকারি সব দপ্তরের অতীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে ভালো হলে উলেস্নখ করে রাজশাহী জেলা প্রশাসক বলেন, রাজশাহীসহ গোটা দেশেই ভূমিসংক্রান্ত সেবা নিয়ে নেতিবাচক ভাবনা রয়েছে। সে জন্য মুজিববর্ষে প্রতিটি উপজেলায় ভূমি মেলার আয়োজন করা হবে। সেখানে মানুষ সবচেয়ে দ্রম্নত সময়ে উন্নত সেবা পাবেন। এভাবে প্রতিটি দপ্তরেই সেবার মান বাড়বে।

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয়, মুজিববর্ষ উপলক্ষে রাজশাহী সিটি করপোরেশন, জেলা ও উপজেলা প্রশাসন সমগ্র জেলায় ব্যাপক কর্মসূচি নিয়েছে। এরই মধ্যে রাজশাহীর ৯ উপজেলায় ৯টি ক্ষণগণনা যন্ত্র বসানো হয়েছে। এ ছাড়া সরকারি উদ্যোগে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের নগর ভবন এবং মহানগরীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে দু'টি ক্ষণগণনা যন্ত্র বসানো হয়েছে। আর আলাদাভবে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষও নিজস্ব ক্যাম্পাসে মুজিববর্ষের ক্ষণগণনার জন্য যন্ত্র বসিয়েছে।

বঙ্গবন্ধুর স্বদেশ প্রত্যাবর্তন দিবস উপলক্ষে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের উদ্যোগে শনিবার 'অপ্রতিরোধ্য অগ্রযাত্রায় বাংলাদেশ' শীর্ষক অনুষ্ঠিতব্য অনুষ্ঠান প্রতিটি উপজেলায় বড়পর্দায় সরাসরি সম্প্রচার করা হবে। সকল শ্রেণি-পেশার মানুষকে নিয়ে অনুষ্ঠিত হবে আনন্দ শোভাযাত্রা, বঙ্গবন্ধুর জীবনভিত্তিক স্থিরচিত্র প্রদর্শনী এবং বঙ্গবন্ধুর উন্নয়ন দর্শন শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠিত হবে।

এ ছাড়া সবার জন্য থাকবে বর্ণিল আতশবাজি উৎসব। মুজিববর্ষ উপলক্ষে একটি বুকলেট প্রকাশ করবে রাজশাহী জেলা প্রশাসন। মুজিববর্ষে বছরজুড়েই থাকবে নানা অনুষ্ঠান।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে