logo
বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৭

  অনলাইন ডেস্ক    ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

১১ দফা দাবিতে আমরণ অনশনে পাটকল শ্রমিকরা

যাযাদি ডেস্ক

বকেয়া মজুরি পরিশোধ, জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে পরিবার-পরিজন নিয়ে মঙ্গলবার সকাল থেকে আমরণ অনশনে নেমেছেন আন্দোলনরত পাটকল শ্রমিকরা। আমাদের আঞ্চলিক অফিস ও প্রতিনিধিদের পাঠানো খবর-

চট্টগ্রাম : পূর্ব ঘোষণা অনুযায়ী মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে চট্টগ্রামের আমিন জুট মিলের সামনে জড়ো হয়ে তারা আমরণ অনশন শুরু করে। সেখানে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করে সিবিএ এবং নন-সিবিএ নেতা-শ্রমিক ও তাদের পরিবারের সদস্যরা।

আমিন জুট মিল সিবিএ সভাপতি আরিফুর রহমান বলেন, 'জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবিতে আমরা দীর্ঘদিন ধরে আন্দোলন করে আসছি। এ বিষয়ে বেশ কয়েকবার আমরা বস্ত্র ও পাটমন্ত্রীর কাছে গিয়েছি। কিন্তু পাটশিল্প রক্ষায় তার কোনো উদ্যোগ আমরা দেখতে পাচ্ছি না। তাই আজ আমরা পরিবার-পরিজন নিয়ে লাগাতার অনশনে নেমেছি।'

আমিন জুট মিল সিবিএ সাধারণ সম্পাদক মো. মোস্তফা জানান, আমিন জুট মিল ছাড়াও চট্টগ্রামে আরও ৯টি পাটকল রয়েছে। চট্টগ্রামের সব শ্রমিক নেতাও কর্মসূচিতে অংশ নিয়েছেন।

রাজশাহী : মঙ্গলবার দুপুর ২টার পর রাজশাহী জুট মিলসের প্রধান ফটকে শ্রমিকরা অনশন শুরু করেন। এ সময় তারা রাস্তার উপর চট বিছিয়ে শুয়ে পড়েন এবং দাবি মেনে নিতে বিভিন্ন সেস্নাগান দেন।

রাজশাহী জুট মিলসের সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের সভাপতি জিলস্নুর রহমান জানান, 'সকাল ১০টায় জাতীয় মজুরি কমিশনের চেয়ারম্যানের সঙ্গে জুট মিলস সিবিএ নেতাদের বৈঠক হয়। ওই বৈঠকে আমাদের দাবি মেনে নেয়ার আশ্বাস পাওয়া যায়নি। এ কারণে আমরা দাবি না মানা পর্যন্ত অনশন যেতে বাধ্য হয়েছি।'

তিনি বলেন, রাজশাহী জুট মিলসে প্রায় দুই হাজার ২০০ শ্রমিক কর্মচারী রয়েছে। এদের মধ্যে কর্মচারীদের তিন মাসের ও শ্রমিকদের ১১ সপ্তাহের বেতন বকেয়া রয়েছে। তবে তাদের প্রধান দাবি তিনটি- জাতীয় মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন, সরকারি-বেসরকারি অংশীদারির সিদ্ধান্ত বাতিল, অবসরপ্রাপ্ত শ্রমিক-কর্মচারীদের পিএফ গ্রাচু্যইটির টাকা প্রদান।

নরসিংদী:মজুরি কমিশন বাস্তবায়নসহ ১১ দফা দাবি আদায়ে পূর্ব ঘোষিত কর্মসূচি অনুযায়ী আমরণ অনশন শুরু করেছে নরসিংদীর ইউএমসি জুটমিলের শ্রমিকরা। বাংলাদেশ রাষ্ট্রায়ত্ত পাটকল শ্রমিক সিবিএ-নন সিবিএ সংগ্রাম পরিষদের উদ্যোগে মঙ্গলবার দুপুর ১২টা থেকে কর্মসূচি শুরু হয়। ইউএমসি জুটমিলের প্রধান ফটকে এই অনশনে মিলের হাজারের অধিক শ্রমিক অংশ নিয়েছেন। আমরণ অনশন কর্মসূচিতে শ্রমিক নেতারা বলেন, ২০১৫ সালে ঘোষণা দিয়েও মজুরি কমিশন বাস্তবায়ন না হওয়ায় পরিবার পরিজন নিয়ে অনেকটা মানবেতর জীবন যাপন করছেন শ্রমিকরা। এ জন্য বাধ্য হয়ে আমরণ অনশন কর্মসূচি পালন করছে শ্রমিকরা। দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত অনশন কর্মসূচি অব্যাহত থাকবে বলেও জানায় শ্রমিকরা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে