logo
রবিবার, ১৭ নভেম্বর ২০১৯, ৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

সিএনজিতে বিজ্ঞাপন প্রচারে চাপ, মালিকদের অসন্তোষ

যাযাদি রিপোর্ট

সিএনজি অটোরিকশার বডিতে বিজ্ঞাপন দেয়ার জন্য চাপ সৃষ্টি করায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন সিএনজি অটোরিকশা মালিকরা। মালিক-শ্রমিক বৈঠকে বিজ্ঞাপন প্রচারের রাজি না হলেও মালিক সমিতির কাছে ফের বিবেচনার জন্য বিআরটিএ চিঠি দেয়ায় অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন তারা।

জানা গেছে, বর্তমানে রাজধানীতে ভাড়ায় চালিত ১৫ হাজার ৬৯৬টি নিবন্ধিত সিএনজি অটোরিকশা চলাচল করছে। একটি বিজ্ঞাপনী সংস্থা রাজধানীতে চলাচলকারী এ সব সিএনজি অটোরিকশার বডির (হুটের) পেছনে পুলিশ কন্ট্রোল রুমের ৯৯৯ নাম্বর ও সড়ক দুর্ঘটনার ব্যাপারে জনসচেতনামূলক সেস্নাগান প্রচার করার জন্য যোগাযোগ মন্ত্রণালয় আবেদন করেন। মন্ত্রণালয় বিজ্ঞাপনী সংস্থাটির আবেদনের প্রেক্ষিতে বাংলাদেশ রোড ট্রান্সপোর্ট অথরিটিকে (বিআরটিএ) সিএনজি অটোরিকশার মালিক-শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে আলাপ করে এবং তারা সম্মতি দিলে বিজ্ঞাপনটি প্রচার করা যায় কিনা সে ব্যাপারে নির্দেশ দেয়। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশের প্রেক্ষিতে গত ১২ সেপ্টেম্বর বিআরটিএর চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে ঢাকা মহানগরীর সিএনজি অটোরিকশার সব মালিক-শ্রমিক নেতাদের নিয়ে বৈঠক হয়। বৈঠকে বিজ্ঞাপনী সংস্থাটির বিজ্ঞাপন প্রচারে অসম্মতি জানান অটোরিকশা মালিক-শ্রমিক নেতৃবৃন্দ। কিন্তু বৈঠকে মালিকরা বিজ্ঞাপন প্রচারে রাজি না হলেও এ্যাড কর্তৃপক্ষ সিএনজি অটোরিকশার পিছনে বিজ্ঞাপনটি প্রচারের নির্দেশ দিয়ে চিঠি দেয়ার জন্য বিআরটিএ উপরে চাপসৃষ্টি করেন যাচ্ছেন বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন। তাই বিজ্ঞাপন প্রচারের ব্যাপারে পুনরায় বিবেচনার লক্ষে মালিকদের অনুরোধ জানানোর জন্য ২৪ সেপ্টেম্বর চিঠি দিয়েছে বিআরটিএ।

এ ব্যাপারে নাম প্রকাশ না করার শর্তে বেশ কয়েকজন কর্মকর্তা বলেন, মালিকরা রাজি না হলে কি করে সিএনজি অটোরিকশায় বিজ্ঞাপন লাগানোর নির্দেশ দেবে বিআরটিএ? তবে মন্ত্রণালয় অটোরিকশা মালিক-শ্রমিকদের সাথে আলাপ করে তাদের সম্মতি নেয়ার কথা না বলে সরাসরি বিজ্ঞাপনটি প্রচারের নির্দেশ দিলে বিআরটিএ কোন দায় থাকত না। এখন মালিকরা যেহেতু রাজি নয় তারা কি করবেন?

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে অটোরিকশা শ্রমিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মো. হানিফ খোকন যায়যায়দিনকে বলেন, যাত্রীদের সঙ্গে সমস্যা হয় বাসে। পুলিশের সহায়তা চাওয়ার জন্য সেখানে ট্রিপল নাইন (৯৯৯) লেখা দরকার। এছাড়া সিএনজি অটোরিকশায় চালকের দুই পাশে পুলিশের সাহায্য নেয়ার জন্য ট্রিপল নাইন মালিকরাই লিখে দিয়েছেন। তাই নতুন করে বিজ্ঞাপনের কি দরকার?

ঢাকা থ্রি-হুইলার অটোরিকশা মালিক সমিতির সভাপতি লায়ন মির্জা হামিদুল ইকবাল মিরাজ বিজ্ঞাপন প্রচারের ব্যাপারে চাপ সৃষ্টির কারায় অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, সেপ্টেম্বরের সভাতেই বিষয়টি বাতিল হয়েগেছে। তাই নতুন করে বিবেচনা করার সুযোগ নেই।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে বিআরটিএর চেয়ারম্যান, মো. মশিয়ার রহমান বলেন, কোনো চাপ নেই। মন্ত্রণালয়ের নির্দেশেই অটোরিকশা মালিক-শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে বৈঠক করা হয়েছে। মালিকরা রাজি না হলে তাদের কিছু করার নেই।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে