logo
বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ৩০ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৭ জুলাই ২০১৯, ০০:০০  

দুর্যোগ মোকাবিলায় ডিসিদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশ

যাযাদি রিপোর্ট

দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে শুরু হওয়া বন্যাসহ যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলায় ডিসিদের প্রস্তুত থাকার নির্দেশনা দেয়া হয়েছে। একই সঙ্গে নিরাপদ খাদ্য উপহার দেয়ার জন্য দেশব্যাপী ভেজালবিরোধী অভিযান আরও জোরদার, বিদেশে শ্রমিক পাঠানোর নামে দালালদের দৌরাত্ম্য কমাতে সারাদেশে দালাল ধরতে ডিসিদের আরও তৎপর হতে বলা হয়েছে। দ্রব্যমূল্যের দাম স্থিতিশীল রাখতে নিয়মিত বাজার মনিটরিং আরও জোরদার, ভেজাল ও নকল পণ্যের ব্যাপারে জিরো টলারেন্স নীতি, পাটের ব্যবহার বাড়াতে মোবাইল কোর্টের সংখ্যা বাড়ানো এবং সারাদেশে ফৌজদারি মামলাগুলো দ্রম্নত নিষ্পত্তি করতে ডিসিদের সহায়তা চাওয়া হয়। মঙ্গলবার সচিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত জেলা প্রশাসক (ডিসি) সম্মেলনের তৃতীয় দিনে ডিসিদের কাছ থেকে এমন সহায়তা চান বিভিন্ন মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিবরা। একই সঙ্গে ডিসিদের বেশ কিছু প্রস্তাবনা আমলে নেন তারা। পর্যায়ক্রমে এগুলো বাস্তবায়নে আশ্বাসও দেন। মঙ্গলবার ডিসি সম্মেলনে মোট ৫টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। এসব অধিবেশনে ১১টি মন্ত্রণালয় ও একটি বিভাগের সঙ্গে বৈঠক করেন তারা। সেখানে সংশিষ্ট মন্ত্রণালয়ের মন্ত্রী ও সচিবরা ডিসিদের উদ্দেশে বিভিন্ন ধরনের নির্দেশনা দেন। এছা্‌ড়া সন্ধ্যায় প্রধান বিচারপতির সঙ্গে আলাদা একটি অধিবেশনে বসেন ডিসিরা। সকালে প্রথম অধিবেশনে খাদ্য, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রাণ মন্ত্রণালয়, দ্বিতীয় অধিবেশনে পানি ও নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন তারা। চা বিরতির পর বেলা ১১টায় তৃতীয় অধিবেশনে বাণিজ্য, শিল্প এবং বস্ত্র ও পাট মন্ত্রণালয়ের বসে বৈঠক করেন। চর্র্তুথ অধিবেশন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান, পররাষ্ট্র এবং শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয় বৈঠক করেন। বিকালে ৫ম অধিবেশনে আইন ও বিচার এবং লেজিসলেটিভ ও সংসদ বিষয়ক বিভাগ আলাদা বৈঠক করেন।

সরকারের সক্ষমতা রয়েছে খাদ্যমন্ত্রী

সাম্প্রতিক বন্যাসহ যেকোনো দুর্যোগ মোকাবেলার প্রস্তুতি সরকারের রয়েছে বলে ডিসিদের জানিয়েছেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার। তিনি বলেন, সরকারের পর্যাপ্ত প্রস্তুতি রয়েছে। বন্যায় ফসল নষ্ট হওয়ার কোনো অবকাশ নেই, মাঠে কোনো ফসল নেই। এখন ধান লাগানোর সময়। তৃণমূলে কৃষকদের কাছ থেকে ধানের ন্যায্যমূল্য নিশ্চিত করতে ধান সংগ্রহে জেলা প্রশাসকদের (ডিসি) কার্যক্রম জোরদার করার নির্দেশ দিয়ে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, 'আমরা ধান কিনছি, এবার চার লাখ টন (বোরো) ধান কিনব। অথচ গতকাল পর্যন্ত এক লাখ ১৫ হাজার টন ধান কেনা হয়েছে। ওনারা (ডিসি) সাহায্য করছেন, সেটা আরও জোরদার করার জন্য এবং আমাদের লোকেরা যাতে আরও বেশি অ্যাকটিভ হয়, ডিসি সাহেবরা যাতে নির্বাহী অফিসারদের মাঠে নামিয়ে দিয়ে কৃষকদের কাছ থেকে ধান কিনতে পারেন, সে জন্য আমরা নির্দেশনা দিয়েছি।'

দালাল ধরতে ডিসিদের

সহায়তা কামনা

বিদেশগামী যাত্রীদের প্রতারণা ও হয়রানি বন্ধে দালাল ধরতে ডিসিদের আরও সচেষ্ট হওয়ার জন্য নির্দেশ দিয়েছেন প্রবাসী কল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থানমন্ত্রী ইমরান আহমদ। মন্ত্রী বলেন, আমি ডিসিদের কাছে সাহায্য চেয়েছি, আমি বলেছি দালালদের ধরেন, যে দালাল গরিব মানুষকে লুটেপুটে দেড় লাখ টাকার জায়গায় সাত লাখ টাকা নেয়। এভাবে যারা যায় তারা বিদেশে অবৈধ হিসেবে থাকে, এটা দেশের জন্য খারাপ, মানুষ তো মরেই। তিনি বলেন, আমরা চেষ্টা করছি যাতে পুরো অভিবাসন প্রক্রিয়াটা একটা সিস্টেমে ফেলতে পারি, গরিবরা যাতে নিরাপদে যেতে পারে, এই ব্যবস্থা যাতে হয়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে