logo
  • শনিবার, ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৮

  যাযাদি রিপোটর্   ১৩ জুলাই ২০১৮, ০০:০০  

২০০১ সালের মতো নীলনকশার নিবার্চন আর হবে না: কাদের

২০০১ সালের মতো  নীলনকশার নিবার্চন আর হবে না: কাদের
ওবায়দুল কাদের

একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চনে সব দলের অংশগ্রহণ নিশ্চিত করাসহ নিবার্চনী সব কাজ নিবার্চন কমিশন করবে বলে মন্তব্য করেছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের। বৃহস্পতিবার চট্টগ্রামের পটিয়ার কচুখাইনে বাইপাস সড়কের কাজের অগ্রগতি দেখে সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক। আগামী জাতীয় সংসদ নিবার্চনে সব দলের অংশগ্রহণের বিষয়ে বিদেশি ক‚টনীতিকদের মন্তব্য ও সরকারের উদ্যোগ নিয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নে তিনি বলেন, ‘উদ্যোগ নেয়ার কোনো বিষয় নেই। উদ্যোগ নেবে নিবার্চন কমিশন। তফসিল ঘোষণার পর লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি করাসহ সব নিবার্চনী কাজ করবে নিবার্চন কমিশন। এখানে সরকারের করণীয় কিছু নেই। নিবার্চন কমিশন কোনো সহযোগিতা চাইলে সরকার শুধু সেই সহযোগিতা দেবে।’ ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বিএনপি যতই রঙিন খোয়াব দেখুক না কেনো, ২০০১ সালের মতো নীলনকশার নিবার্চন বাংলাদেশে আর হবে না।’ নিবার্চনের বছরে দেশের প্রধান দুই রাজনৈতিক দলের নেতাদের ভারত সফর নিয়েও কথা বলেন কাদের। ক্ষমতাসীন বিজেপির (ভারতীয় জনতা পাটির্) আমন্ত্রণে গত ২২ এপ্রিল ওবাদুল কাদেরের নেতৃত্বে ভারত সফরে যায় আওয়ামী লীগের ১৯ সদস্যের প্রতিনিধিদল। তিন দিনের সফরে প্রতিনিধিদল লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ ও পালাের্মন্ট অধিবেশন দেখা ছাড়াও বিজেপি নেতা এম জে আকবরের দেয়া মধ্যাহ্ন ভোজে অংশ নেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গেও সাক্ষাৎ করে আওয়ামী লীগ প্রতিনিধিদল। পরে বিজেপি সঙ্গে দ্বিপক্ষীয় আলোচনা শেষে নৈশভোজে অংশে নেন প্রতিনিধিদলের সদস্যরা। অন্যদিকে জুনের প্রথমদিকে ভারত সফর করেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ভাইস চেয়ারম্যান আবদুল আউয়াল মিন্টু ও দলের আন্তজাির্তক-বিষয়ক সম্পাদক হুমায়ুন কবীর। তারা অবজারভার রিসাচর্ ফাউন্ডেশন, বিবেকানন্দ ইন্টারন্যাশনাল ফাউন্ডেশন, রাজীব গান্ধী ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ‘বাংলাদেশ-ভারত সম্পকর্, বাংলাদেশের বতর্মান রাজনীতি ও আগামী নিবার্চন’ শীষর্ক তিনটি সেমিনারে অংশ নেন। এ ছাড়া ভারতে ক্ষমতাসীন বিজেপি, বিরোধী দল কংগ্রেস নেতাদের সঙ্গেও আলোচনা হয়েছে বলে জানিয়েছিলেন বিএনপি নেতারা। ওবায়দুল কাদের বলেন, বিজেপির আমন্ত্রণে আওয়ামী লীগের প্রতিনিধিদল সেখানে গেলেও বিএনপি নেতারা নিজেদের ইচ্ছায় সেখানে গেছেন। তিনি বলেন, নিবার্চন নিয়ে আমরা ভারত সফর করিনি। বিজেপির সেক্রেটারি জেনারেল রামমাধব আমাকে আমন্ত্রণ জানিয়েছিলেন। সেই আমন্ত্রণের কারণে আমার নেতৃত্বে একটি টিম ভারতে গিয়েছিল। তবে সেখানে কোনো রাজনৈতিক আলাপ হয়নি দাবি করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ভারতে আমরা পাটির্ টু পাটির্, পিপল টু পিপল কন্ট্যাক্টের কথা বলেছি। আমরা আমাদের ইন্টারেস্ট নিয়ে কথা বলেছি। রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সহযোগিতার পাশাপাশি তিস্তা নিয়েও আলোচনা হয়েছে বলে জানান তিনি। সম্প্রতি প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক উপদেষ্টা এইচটি ইমামের ভারত ‘সেমি গভনের্মন্ট পযাের্য়র’ ছিল উল্লেখ করে তিনি বলেন, ‘এর সঙ্গে আওয়ামী লীগ কিংবা বিজেপির কোনো সম্পকর্ নেই।’ নিধাির্রত সময়ের ছয় মাস আগেই পটিয়া বাইপাস নিমার্ণকাজ শেষ হবে বলে জানান ওবায়দুল কাদের। তিনি বলেন, ৫ দশমিক ২ কিলোমিটারের এই বাইপাস নিমাের্ণর সময়সীমা আগামী বছরের জুন মাস পযর্ন্ত হলেও এর ছয় মাস আগে জানুয়ারিতে সড়কটির নিমার্ণকাজ শেষ হবে। ইতোমধ্যে সড়কের সেতু, কালভাটর্ নিমার্ণকাজ শেষ হয়েছে। এদিকে বহদ্দারহাট থেকে শাহ আমানত সেতু পযর্ন্ত ছয় লেইন সড়ক ও মইজ্জ্যারটেক থেকে ওয়াই জংশন পযর্ন্ত চার লেইন সড়কের কাজ ৬০ শতাংশ শেষ হয়েছে বলেও জানান তিনি। এই সড়কগুলোর মধ্যে ছয় লেইন সড়কে চারটি সেতু ও একটি কালভাটর্ নিমাের্ণর কাজ শেষ হয়েছে। আর চার লেইন অংশে সাতটি কালভাটর্ ও দুটি ওভারপাস নিমার্ণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে বলে জানান তিনি

  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি

উপরে