logo
  • Wed, 21 Nov, 2018

  যশোর প্রতিনিধি   ১২ জুলাই ২০১৮, ০০:০০  

জামিনে মুক্তির পর নিখেঁাজ অত:পর গুলিবিদ্ধ লাশ

যশোরের মনিরামপুর উপজেলার গাঙ্গুলিয়া জামতলা গ্রাম থেকে বাবলা হোসেন (২৬) নামের এক যুবকের গুলিবিদ্ধ লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। তার বাবার দাবি, মঙ্গলবার একটি মামলায় জামিনে কারাগার থেকে বেরিয়ে যাওয়ার পর সাদাপোশাকে পুলিশ বাবলাকে তুলে নিয়ে যায়। আর পুলিশ বলছে, দুই দল সন্ত্রাসীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে ওই যুবক নিহত হয়েছেন বলে তাদের ধারণা।

বুধবার ভোর পঁাচটার দিকে পুলিশ লাশটি ময়নাতদন্তের জন্য যশোর জেনারেল হাসপাতাল মগের্ রেখে যায়।

নিহত বাবলা যশোর সদর উপজেলার হাসিমপুর গ্রামের মো. আমজাদ হোসেন মোল্লার ছেলে।

মনিরামপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কমর্কতার্ (ওসি) মোকাররম হোসেন বলেন, বুধবার ভোর পৌনে পঁাচটার দিকে আমরা খবর পাই, যশোর-রাজগঞ্জ সড়কের পাশে একটি লাশ পড়ে আছে। লাশটি মাথায় গুলিবিদ্ধ অবস্থায় ছিল। লাশ উদ্ধার করে হাসপাতাল মগের্ নিয়ে রাখা হয়। ধারণা করা হচ্ছে, দুই দল সন্ত্রাসীর মধ্যে বন্দুকযুদ্ধে ওই যুবক নিহত হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে দেশে তৈরি একটি পাইপগান উদ্ধার করা হয়েছে।’

গতকাল দুপুর ১২টার দিকে হাসপাতাল মগের্র সামনে গিয়ে দেখা যায়, নিহত বাবলার পরিবারের স্বজনরা আহাজারি করছেন। সেখানে বাবলার বাবা আমজাদ হোসেন বলেন, ‘আমার ছেলে বাবলা একটি হত্যা মামলায় যশোর কারাগারে আটক ছিল। গতকাল সন্ধ্যায় সে জামিনে কারাগার থেকে বের হয়। সাদা পোশাকে কয়েকজন কারাগারের ফটক থেকেই সাদা রঙের একটি মাইক্রোবাসে করে যশোর সদর উপজেলার রূপদিয়ার দিকে তুলে নিয়ে যায়। রাত একটা পযর্ন্ত থানায় গিয়ে বসে ছিলাম। কিন্তু পুলিশ তাকে আটকের কথা স্বীকার করেনি। সকালে হাসপাতালের মগের্ এসে ছেলের লাশ পেলাম।’

এ ব্যাপারে যশোর কোতোয়ালি মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কমর্কতার্ (ওসি) অপূবর্ হাসান বলেন, ‘শুনেছি, কে বা কারা তাকে কারাগারের গেট থেকে তুলে নিয়ে গেছে। বিষয়টি আমাদের জানা নেই। তবে সে সন্ত্রাসী প্রকৃতির লোক। তার বিরুদ্ধে ১২টি মামলা রয়েছে। এর মধ্যে পঁাচটি হত্যা, পঁাচটি অস্ত্র ও দুটি মাদকের মামলা।’
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে