logo
বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০, ২৪ আষাঢ় ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ৩০ মে ২০২০, ০০:০০  

শিশুর শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ নারী গ্রেপ্তার

শিশুর শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ নারী গ্রেপ্তার
শিশু হাবিবুর রহমান
লক্ষ্ণীপুরে দেড় বছরের শিশু হাবিবুর রহমানের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করার অভিযোগে দায়ের করা মামলায় আসামি খুকি বেগমকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। শুক্রবার বেলা ১১টার দিকে লক্ষ্ণীপুর সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আজিজুর রহমান মিয়া বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

জানা গেছে, নাতি হাবিবের শরীরে বিষাক্ত ইনজেকশন দেয়ার অভিযোগে দাদা লাতু মিয়া বৃহস্পতিবার (২৮ মে) সন্ধ্যায় সদর মডেল থানায় মামলা করেন। এতে খুকি বেগমকে একমাত্র আসামি করা হয়। রাতেই থানার উপপরিদর্শক কামরুজ্জামানের নেতৃত্বে অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলার চর পার্বতীনগর গ্রামের বাড়ি থেকে খুকি বেগমকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। খুকি ওই গ্রামের আবুল কাশেমের স্ত্রী।

শিশু হাবিব একই গ্রামের মো. নুর নবীর ছেলে। গত ১১ মে বিকালে কৌশলে শিশুটিকে ঘরে নিয়ে অভিযুক্ত খুকি তিনটি বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করেন। পরে চিৎকার শুনে মা শামছুন্নাহার শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

মামলা সূত্র জানায়, চরপার্বতীনগর গ্রামের লাতু মিয়ার পরিবারের সঙ্গে প্রতিবেশী খুকিদের পারিবারিক বিরোধ চলে আসছে। এর জের ধরে গত ১১ মে বিকালে খুকি কৌশলে শিশু হাবিবকে তার ঘরে নিয়ে যায়। একপর্যায়ে খুকি শিশুটির শরীরে তিনটি বিষাক্ত ইনজেকশন পুশ করেন। চিৎকার শুনে মা ও বোন গিয়ে খুকির ঘর থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করেন।

এদিকে বিষক্রিয়ায় শিশুটি অসুস্থ হয়ে পড়ে। পরে তাকে লক্ষ্ণীপুর সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। অবস্থার অবনতি ঘটলে কর্তব্যরত চিকিৎসক শিশুটিকে নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করেন। সেখান থেকে উন্নত চিকিৎসার জন্য তাকে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে শিশুটি ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে চিকিৎসাধীন আছে।

এ ব্যাপারে লক্ষ্ণীপুর সদর মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) একেএম আজিজুর রহমান মিয়া বলেন, গ্রেপ্তারকৃত নারী থানা হেফাজতে আছে। তাকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠানো হবে। এছাড়া ইনজেকশনের সিরিঞ্জসহ আলামত জব্দ করা হয়েছে। সেগুলো পরীক্ষার জন্য ল্যাবে পাঠানো হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে