logo
সোমবার, ২৫ মে ২০২০, ১১ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  দশমিনা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি   ০৭ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০  

অনাহারে দশমিনার নির্মাণ শ্রমিকরা

করোনাভাইরাসকে কেন্দ্র করে বিপাকে পড়েছেন পটুয়াখালীর দশমিনা উপজেলার নির্মাণ শ্রমিকরা। করোনাভাইরাসে উপজেলা লকডাউন ও সকল প্রকার কাজকর্ম বন্ধ থাকায় অনাহারে ঘরে বসে দিন পার করছেন সিংহভাগ নির্মাণ শ্রমিক।

জানা গেছে, উপজেলায় প্রায় চার হাজারের অধিক নির্মাণ শ্রমিক রয়েছেন। এসব শ্রমিকদের মধ্যে কেউ ভবন, ঘর ও রং মিস্ত্রীসহ বিভিন্ন নির্মাণ কাজ করে জীবিকা নির্বাহ করেন। এদের মধ্যে সিংহভাগ নির্মাণ শ্রমিক দিন আনেন দিন খান। একদিন কাজ না করলে চুলোয় আগুন জলে না। প্রশাসনের ভয়ে ঘর থেকে বের হয়ে কাজে যেতে পারছেন না। এখন পর্যন্ত উপজেলায় সরকারি ও সামাজিক সংগঠনগুলো যে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে তা পৌঁছায়নি বেশিরভাগ নির্মাণ শ্রমিকের কাছে। ফলে পরিবার পরিজন নিয়ে না খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে।

মো. জাকির নামে এক নির্মাণ শ্রমিক বলেন, তিনি সরকারের ঘোষণার পর কাজে যাওয়া বন্ধ করেছেন। নতুন করে কোনো কাজ পাওয়ার সুযোগ নেই। তিনি যে ভবনের নির্মাণ কাজ করতেন তাও বন্ধ হয়ে গেছে। তার ৬ সদস্যর পরিবার। একদিন কাজে না গেলে না খেয়ে থাকতে হয়। তিনিই তার পরিবারের একমাত্র উপার্জনকারী ব্যক্তি। আয় না থাকায় এখন খেয়ে না খেয়ে দিন পার করছেন। তার মতো কয়েক শত শ্রমিক না খেয়ে দিন গুনছেন।

বাংলাদেশ ইমারত নির্মাণ শ্রমিক ইউনিয়নের (ইনসাব) দশমিনা শাখার সাধারণ সম্পাদক আনিচুর রহমান মোলস্না বলেন, নির্মাণ শ্রমিকরা করোনা পরিস্থিতিতে মানবেতর জীবন-যাপন করছেন। প্রশাসনের কাছে যাচাই-বাছাই করে প্রকৃত শ্রমিকদের ত্রাণ সহায়তার অনুরোধ জানিয়েছেন এই শ্রমিক নেতা। এ বিষয়ে ইউএনও তানিয়া ফেরদৌস বলেন, সরকারি যে বরাদ্দ দেয়া হয়েছিল তা শেষের দিকে। নতুন করে বরাদ্দ পেলে যাচাই-বাছাই করে ত্রাণ বিতরণ করা হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে