logo
মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ০৪ এপ্রিল ২০২০, ০০:০০  

প্রশাসনের হস্তক্ষেপে বাল্যবিবাহ বন্ধ

ঘাটাইল (টাঙ্গাইল) প্রতিনিধি

টাঙ্গাইলের ঘাটাইলে ইউএনওর হস্তক্ষেপে অল্পের জন্য বাল্যবিবাহ থেকে রক্ষা পেয়েছে দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। বুধবার সন্ধ্যা ৭টায় উপজেলার দিঘর ইউনিয়নে ধোপাজানী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সে ধোপাজানী গ্রামের মজনু মিয়ার মেয়ে ও ব্রাহ্মণ শাসন বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের ছাত্রী।

ইউপি চেয়ারম্যান আবুল কালাম আজাদ মামুন জানান, মজনু মিয়া মেয়েকে টাঙ্গাইল বেড়াডোমা গ্রামের সুমন নামে এক বেকার ছেলে সঙ্গে বিয়ে দেওয়ার জন্য সিদ্ধান্ত গ্রহণ করেন। বিষয়টি জানতে পেরে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। তাদের দেখে বরযাত্রীর সবাই পালিয়ে যায়।

এ সময় মেয়ের বাবা এবং মাকে জানানো হয় যে মেয়ে সাবালিকা না হওয়া পর্যন্ত বিয়ে দেওয়া যাবে না। মেয়ের বাবা-মাকে মুচলেকা দিয়ে ছেড়ে দেওয়া হয়।

ইউএনও অঞ্জন কুমার সরকার দৈনিক যায়যায়দিনকে জানান, মেয়ের বাবা এবং মাকে মুচলেকা দিয়ে স্বীকারোক্তি নিয়েছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে