logo
মঙ্গলবার, ০৭ জুলাই ২০২০, ২৩ আষাঢ় ১৪২৬

  পাবনা প্রতিনিধি   ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

পাবনায় ব্রিজের সংযোগ সড়কে কাঠের সিঁড়ি!

পাবনায় ব্রিজের সংযোগ সড়কে কাঠের সিঁড়ি!
পাবনার আটঘড়িয়ায় সেতুর সংযোগ সড়ক না থাকায় কাঠ দিয়ে ঝুঁকিপূর্ণ পারাপার -যাযাদি
দুই বছর আগে পাঁচ কোটি টাকায় সম্পন্ন ব্রিজের দুই পাশের সংযোগ সড়ক করা হয়নি দীর্ঘদিনেও। কাঠ দিয়ে স্থানীয়ভাবে তৈরি করা হয়েছে সংযোগ সড়ক। আর এই সড়ক দিয়েই সীমাহীন দুর্ভোগে ১৫ গ্রামের স্কুল-কলেজের শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন শ্রেণি-পেশা ও বয়সের মানুষকে পারাপার হতে হয়।

জানা যায়, পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার সুজাপুর-কদমতলীহাট সড়কে পাঁচ কোটি টাকা ব্যয়ে ব্রিজটি নির্মিত হয়েছিল। দুই বছর আগে নির্মাণকাজ শেষ হলেও আজও ব্যবহার উপযোগী হয়নি। ফলে কোমলমতি শিক্ষার্থীসহ বিভিন্ন পেশার কয়েক হাজার মানুষ ঝুঁকি নিয়ে ব্রিজটি পার হচ্ছেন প্রতিদিন। আর এতে এই সড়কে চলাচলরত ১৫টি গ্রামের মানুষকে সীমাহীন দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে।

খোঁজ নিয়ে জানা যায়, সুজাপুর-কদমতলীহাটের সংযোগের জন্য রত্নাই নদীর ওপর দিয়ে ৯৬ দশমিক ২০ মিটার দৈর্ঘ্য পিসি গার্ডার ব্রিজটির কাজ শেষ হয় প্রায় দুই বছর আগে। কিন্তু ঠিকাদারের অবহেলায় দুই পাশে সংযোগ সড়কের কাজটুকু এখনো সম্পন্ন হয়নি। ফলে ঝুঁকি নিয়ে পারাপার হচ্ছেন স্থানীয় লোকজন। সুজাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আক্কেল আলী জানান, গ্রামের মানুষ এই ব্রিজ দিয়ে আটঘরিয়া-চাটমোহর উপজেলাসহ বিভিন্ন এলাকায় যাতায়াত করেন। ব্রিজ দিয়ে কদমতলী মহিলা মাদ্রাসা, ফৈলজানা উচ্চবিদ্যালয় ও সুজাপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রী এবং এলাকার সাধারণ মানুষ চলাফেরা করেন। কিন্তু সংযোগ সড়ক না থাকায় ব্যবহৃত কাঠের সিঁড়ির কারণে ব্রিজের দুই পাশে প্রায়ই ঘটছে দুর্ঘটনা।

আটঘরিয়া উপজেলা নির্বাহী প্রকৌশলী (এলজিইডি) এএইচএম রবিউল আলম রিজভী বলেন, সংযোগ সড়ক নির্মাণে ঠিকাদারকে চিঠি দেয়া হয়েছে। শিগগিরই ব্রিজটির সংযোগ সড়ক নির্মাণ করা হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে