logo
সোমবার ২৩ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৮ আশ্বিন ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৬ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

জনবল সংকটে চিকিৎসাসেবা পাচ্ছেন না দিরাইয়ের মানুষ

দিরাই (সুনামগঞ্জ) সংবাদদাতা

দিরাই উপজেলার ৯টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার প্রায় আড়াই লাখ মানুষের উন্নত চিকিৎসাসেবা পাওয়ার একমাত্র প্রতিষ্ঠান দিরাই সদরের ৫০ শয্যার হাসপাতাল। চিকিৎসক, নার্সসহ জনবল সংকটে প্রয়োজনীয় সেবা পাচ্ছেন না হাওরপাড়ের মানুষ।

৩০ শয্যার হাসপাতালটি প্রায় আড়াই বছর আগে প্রয়াত সুরঞ্জিত সেনগুপ্তের চেষ্টায় ৫০ শয্যায় উন্নীত হলেও এখনো উন্নত সেবা দিতে পারছেনা হাওরপাড়ের অসহায় মানুষদের।

হাসপাতালে স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, আবাসিক মেডিকেল অফিসারসহ ১৯টি পদের বিপরীতে আছেন মাত্র ৪জন। ২২জন নার্স থাকার কথা থাকলেও আছেন মাত্র ৮জন। টেকনিশিয়ান, ফার্মাসিস্টসহ প্রশাসনের অধিকাংশ পদই শূন্য। হাসপাতালের এক্সরে মেশিনটি দীর্ঘদিন ধরে অকেজো, দুটি অ্যাম্বুলেন্সের একটি রক্ষণাবেক্ষণের অভাবে খোলা আকাশের নিচে নষ্ট হচ্ছে।

হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা রোগীরা বলেন, নতুন ভবনে উন্নতমানের ফার্নিচার ও কারুকাজ দেখে মনে হয়েছিল উন্নত চিকিৎসা হবে। কিন্তু বাস্তবে তার উল্টো। ৪ তলাবিশিষ্ট হাসপাতালে এখনও রোগীর ঠাঁই হয়নি, পুরানো বিল্ডিংয়েই রাখা হয় অধিকাংশ রোগীকে। ডাক্তাররা প্রাইভেট চিকিৎসা নিয়ে ব্যস্ত থাকেন বেশিরভাগ সময়।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, জনবল সংকটে আমরা হাওরপাড়ের মানুষকে কাঙ্ক্ষিত সেবা দিতে পারছি না, বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষকে জানানো হয়েছে।

সুনামগঞ্জের সিভিল সার্জন আশুতোষ দাস বলেন, জনবলের স্বল্পতায় নতুন ভবনটি চালু করা সম্ভব হচ্ছে না। অচিরেই একটা ব্যবস্থা হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে