logo
বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ৮ ফাল্গুন ১৪২৬

  যাযাদি রিপোর্ট   ১৭ জানুয়ারি ২০২০, ০০:০০  

অভিযোগ-পালটা অভিযোগ

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে জমজমাট প্রচারণা

প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণায় হামলা-পালটা হামলার ঘটনা ও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। হামলার জন্য একে অন্যকে দায়ি করছেন তারা

ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে জমজমাট প্রচারণা
ঢাকা উত্তর ও দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই নির্বাচনী উত্তাপ ছড়িয়ে পড়ছে রাজধানীজুড়ে। প্রতিদিনই সকাল থেকে রাত পর্যন্ত প্রার্থীরা রাজধানীর বিভিন্ন জায়গায় জমজমাট প্রচারণা চালাচ্ছেন। পোস্টারে পোস্টারে ছেয়ে গেছে পুরো ঢাকা। ভোটারদের বাড়ি বাড়ি গিয়ে মেয়র-কাউন্সিলর প্রার্থীর কর্মী-সমর্থকরা লিফলেট বিতরণ করেন। সেই সঙ্গে স্ব স্ব প্রার্থীর জন্য ভোটও প্রার্থনা করেন। দুপুরের পর থেকেই মাইকে গান বাজিয়ে প্রার্থীদের পক্ষে ভোট প্রার্থনা করেন তাদের লোকজন। এরই মধ্যে প্রার্থীদের প্রচার-প্রচারণায় হামলা-পালটা হামলার ঘটনা ও আচরণবিধি লঙ্ঘনের অভিযোগ উঠেছে। হামলার জন্য আওয়ামী লীগের প্রার্থীরা বিএনপিকে এবং বিএনপির প্রার্থীরা আওয়ামী লীগকে দায়ী করেছেন। অভিযোগ জানিয়েছেন নির্বাচন কমিশনেও। যদিও এখন পর্যন্ত নির্বাচন কমিশনে দেওয়া অভিযোগগুলোর বিষয়ে কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়নি বলে জানিয়েছেন দুই বড় দলের প্রার্থীরা।

বৃহস্পতিবার ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম মিরপুরে, বিএনপির মেয়ারপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল সকালে বসুন্ধরা সিটির সামনে গণসংযোগ করেন। এছাড়া ঢাকা দক্ষিণে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস আজিমপুর নিউমার্কেট এলাকায় এবং বিএনপির মেয়রপ্রার্থী ইসরাক হোসেন দয়াগঞ্জ এলাকায় গণসংযোগ করেন।

আতিকুল ইসলাম : সরস্বতী পূজার জন্য আসন্ন ঢাকার সিটি নির্বাচন পেছানোর দাবি করেছেন ঢাকা উত্তরে আওয়ামী লীগের মেয়রপ্রার্থী আতিকুল ইসলাম। নির্বাচন কমিশনকে বিষয়টি বিবেচনার অনুরোধ করেছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মিরপুর-১২ নম্বরে আলুব্দি ঈদগাহ ময়দানে

আয়োজিত নির্বাচনী প্রচার ও গণসংযোগ সমাবেশে এই অনুরোধ জানান আতিকুল। ঢাকা-১৬ আসনের আওয়ামী লীগের সাংসদ ও নেতা-কর্মীরা এই সমাবেশের আয়োজক।

আতিকুল ইসলাম বলেন, 'বাংলাদেশ একটি অসাম্প্রদায়িক দেশ। আমি চাই না সরস্বতী পূজার দিন নির্বাচন হোক। পূজার কথা স্মরণ রেখে নির্বাচন পেছানো হোক, এই দাবি করছি। আমাদের খেয়াল রাখতে হবে, ধর্ম পালনে কারও যেন কোনো বিঘ্ন না হয়। আমি চাই, নির্বাচন কমিশন এ বিষয়টি বিবেচনা করবে।'

ঢাকা উত্তরে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়ালের নির্বাচনী পোস্টার ছিঁড়ে ফেলার অভিযোগের বিষয়ে আতিকুল ইসলাম বলেন, 'আমরা রাস্তায় রাস্তায় তাবিথ আউয়ালের পোস্টার দেখেছি।'

আতিকুল ইসলাম বলেন, 'আমি বলব, আমাদের পোস্টার দেন, আমরা আপনাদের (তাবিথ আউয়ালের) পোস্টার লাগিয়ে দেব।'

ঢাকা-১৬ আসনের অন্তর্ভুক্ত উত্তর সিটি করপোরেশনের ৩, ৫ ও ৬ নম্বর ওয়ার্ডের আলুব্দি ঈদগাহ মাঠ থেকে শুরু করে মিরপুর-১২, সেকশন-১১, পলাশ নগর, সেকশন-১০, পলস্নবী, মিল্ক ভিটা, রূপনগর এলাকায় গণসংযোগ-প্রচার চালিয়েছেন আতিকুল ইসলাম।

গতকালের প্রচার-গণসংযোগে ৬ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী সালাউদ্দিন রবীন, ৬, ৭ ও ৮ নম্বর সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর প্রার্থী শিখা চক্রবর্তী, আওয়ামী লীগের ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এম মান্নান কচি অংশ নেন।

তাবিথ আউয়াল : ঢাকা সিটি করপোরশন নির্বাচনে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিন (ইভিএম) ব্যবহারের সিদ্ধান্ত থেকে নির্বাচন কমিশনকে সরে আসার আহ্বান জানিয়েছেন ঢাকা উত্তর সিটির বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল।

বৃহস্পতিবার নির্বাচনী গণসংযোগকালে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনে বিএনপির মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল এ আহ্বান জানান। বেলা ১১টায় বসুন্ধরা সিটির সামনে থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেন তাবিথ। এ সময় হাজার হাজার নেতাকর্মী ও স্থানীয় মানুষের সমাগম হয়। এ সময় মেয়রপ্রার্থী তাবিথ আউয়াল সাধারণ মানুষের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন এবং নগর উন্নয়নে ভূমিকা রাখতে ধানের শীষ প্রতীকে ভোট চান। এ সময় উপস্থিত ছিলেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আতাউর রহমান ঢালী, বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, নিপুণ রায় চৌধুরী, ঢাকা মহানগর বিএনপি উত্তরের সহসভাপতি বজলুল বাসিদ আঞ্জু, যুবদলের সভাপতি সাইফুল আলম নীরব, মহিলা দলের সাধারণ সম্পাদিকা সুলতানা আহমেদ, স্বেচ্ছাসেবক দলের সভাপতি শফিউল বারী বাবু, সাধারণ সম্পাদক আব্দুল কাদের ভূইয়া জুয়েল, সিনিয়র সহসভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান, সহসভাপতি গোলাম সরোয়ার, কমিশনার প্রার্থী আনোয়ারুজ্জামান আনোয়ার, যুবদল ঢাকা মহানগর উত্তরের সভাপতি এসএম জাহাঙ্গীর হোসেনসহ বিএনপি ও তার অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা।

তাবিথ বলেন, বিএনপি প্রযুক্তিবিরোধী নয়, কিন্তু ভোট দেওয়ার ক্ষেত্রে ইভিএম প্রযুক্তি ব্যবহার নিয়ে আশঙ্কা ও আপত্তি রয়েছে। কারণ, নির্বাচন কমিশন নিজেরাই স্বীকার করেছেন ইভিএম ব্যবহার করার মতো নিজস্ব লোকবল তাদের নেই, এ প্রযুক্তি ব্যবহার করতে তাদের লোক ধার করতে হচ্ছে। তাছাড়া ইভিএম ব্যবহার করতে দেশের মানুষ এখনো প্রস্তুত নয়।

ডিএনসিসির এ মেয়রপ্রার্থী বলেন, 'ইভিএমের সফটওয়্যার ও এর ব্যবহারের নানা বিষয় নিয়ে ইসির কাছে কিছু প্রশ্নের উত্তর জানতে চেয়েছি, কিন্তু এখনো তারা এ বিষয়ে কিছুই জানায়নি। নির্বাচন কমিশনকে বলব, দেশের বেশিরভাগ রাজনৈতিক দল ভোটারদের ইচ্ছার কথা বিবেচনায় এনে ইভিএম ব্যবহারের সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসুন।'

শেখ ফজলে নূর তাপস: ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের নগরবাসীর জন্য ২৪ ঘণ্টার হেল্পলাইন চালু করে সমস্যার তাৎক্ষণিক সমাধান দেওয়ার প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছেন আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থী শেখ ফজলে নূর তাপস।

হেল্পলাইনে সমাধান না হলে সরাসরি অভিযোগ জানানোর সুযোগও থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

বৃহস্পতিবার আজিমপুর-নিউমার্কেট এলাকার বিজিবি ৩ নম্বর গেটের সামনে থেকে নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করার আগে তিনি বলেন, 'আমি নির্বাচিত হলে মেয়র হিসেবে নয় একজন সেবক হিসেবে ঢাকাবাসীর জন্য কাজ করে যাব। সেখানে একজন সেবক হিসেবে ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন ২৪ ঘণ্টা ঢাকাবাসীর সেবা করবে। ঢাকাবাসী আমাকে তাদের কাছে ২৪ ঘণ্টাই পাবে।'

তিনি আরও বলেন, 'আমাদের হেল্পলাইন আমরা চালু করব, যাতে ঢাকাবাসীর যেকোনো সমস্যা যে কোনো অভিযোগ দিতে পারে। হেল্পলাইনের মাধ্যমে সমস্যা সমাধান না হলে তারা সরাসরি মেয়রকে ফোন করতে পারবে। মেয়র সেই বিষয়ে সাথে সাথে সমাধান দেবে। এভাবে আমরা আমাদের সেবাকে সার্বক্ষণিক ঢাকাবাসীর দোরগোড়ায় পৌঁছাব।'

ঐতিহ্যের ঢাকা, সুন্দর ঢাকা, সচল ঢাকা, সুশাসিত ঢাকা এবং উন্নত ঢাকা- এই পাঁচ লক্ষ্যের কথা পুনর্ব্যক্ত করে আওয়ামী লীগের এই মেয়রপ্রার্থী বলেন, 'ঢাকা নগরীকে আমরা পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থেকে শুরু করে বাসযোগ্য সুন্দর নগরী হিসেবে গড়ে তুলব। রাস্তায় আবর্জনা মুক্ত অবস্থায় থাকবে না। মশক নিধন, সবুজায়ন এসব আমরা দৈনন্দিন ভিত্তিতে করব। ২৪ ঘণ্টা সিটি করপোরেশন এই কাজে নিয়োজিত থাকবে। আমাদের প্রাণের ঐতিহ্যের ঢাকা থাকবে একটি গর্বের জায়গায়।'

গণসংযোগে তাপসের সঙ্গে ছিলেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির কার্যনির্বাহী সদস্য মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন, আনোয়ার হোসেন, সাহাবুদ্দিন ফরাজি, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবীর প্রমুখ।

ইশরাক হোসেন : দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) একটি মামলার বিষয়ে বিভিন্ন গণমাধ্যমে ভুল তথ্য পরিবেশন করা হচ্ছে বলে দাবি করেছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ইঞ্জিনিয়ার ইশরাক হোসেন।

বৃহস্পতিবার নির্বাচনী প্রচারণা শুরুর প্রাক্কালে তিনি বলেন, 'কিছু কিছু গণমাধ্যমে ভুলভাবে আমার মামলার খবরটি পরিবেশন করা হচ্ছে। উদাহরণ হিসেবে ইন্ডিপেন্ডেন্ট টিভির কথা বলতে পারি। বলা হচ্ছে দুর্নীতির মামলায় অভিযোগ গঠন করা হয়েছে। ইংলিশে টিকার যাচ্ছে ্তুরহফরপঃবফ রহ পড়ৎৎঁঢ়ঃরড়হ পধংব্থ.

ইশরাক বলেন, 'মামলায়- সম্পদ বিবরণী চেয়ে নোটিশ দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু আমি দেশের বাইরে থাকায় সময়মতো তা জমা দিতে পারিনি। এখানে দুর্নীতির কোনো বিষয় নেই। আশা করি সব গণমাধ্যম এ বিষয়ে একটু সতর্কভাবে সংবাদটি পরিবেশন করবে।'

তিনি বলেন, '২০১০ সাল থেকে আমি ট্যাক্স পে করে আসছি। তাদের কাছে আমার সম্পদের বিবরণী রয়েছে। নির্বাচন কমিশনে দুটি ইলেকশনের আগে আমার সম্পদের বিবরণী দাখিল করতে হয়েছে। এটি রাজনৈতিক হয়রানিমূলক ছাড়া আর অন্য কিছুই নয়।'

এদিকে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার দিকে ৫০ নম্বর ওয়ার্ড দয়াগঞ্জ মোড় থেকে যাত্রাবাড়ী মোড়, ৪৮ নম্বর ওয়ার্ড শহীদ জিয়া স্কুল থেকে গণসংযোগ শুরু করেন ইশরাক হোসেন। এরপর কাজলা ভাংগা প্রেস, বাঁশপট্টি হয়ে শনির আখড়ায় গণসংযোগ করেন তিনি। তার সঙ্গে বিএনপির দলীয় নেতাকর্মীরা ছিলেন।

কাউন্সিলর প্রার্থীদের প্রচারণা

এদিকে মেয়র প্রার্থীদের পাশাপাশি ঢাকার দুই সিটি নির্বাচনে কাউন্সিলর প্রার্থীরাও মাঠের গণসংযোগে ব্যস্ত রয়েছেন। তারা ভোটারদের কাছে গিয়ে নিজ নিজ প্রতীকে ভোট চাচ্ছেন। ভোটারদের যথেষ্ট সাড়াও পাচ্ছেন। ব্যাপক উৎসাহের সঙ্গে নেতাকর্মীরা নির্বাচনী প্রচারণায় রয়েছেন। ক্ষমতাসীন দল সমর্থিত প্রার্থীদের অভিযোগ না থাকলেও বাধা, পোস্টার চুরিসহ না অভিযোগ রয়েছে বিএনপি সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থীদের।

বৃহস্পতিবার ঢাকা উত্তর সিটির ১০ নং ওয়ার্ডে বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী মাসুদ খান নির্বাচনী এলাকার কয়েকটি সড়কে গণসংযোগ করে ঠেলাগাড়ি প্রতীকে ভোট চান। ডিএনসিসির ১৫ নং ওয়ার্ডে বিএনপির কাউন্সিলর প্রার্থী সাইফুল ইসলাম কাজল পশ্চিম নাখালপাড়া এলাকায় নির্বাচনী প্রচার-প্রচারণা চালান। তিনি জানান, সেখানে প্রচার-প্রচারণা চালাতে গিয়ে সাধারণ মানুষের মধ্যে ব্যাপক আগ্রহ লক্ষ্য করেছেন। কিন্তুতার প্রায় সব পোস্টার চুরি হয়ে যাচ্ছে। ডিএনসিসির ৬নং ওয়ার্ডের বিএনপি-সমর্থিত প্রার্থী মাহফুজ হোসাইন খান সুমন তার নির্বাচনী এলাকায় ৭নং সেকশনের প্রচার-প্রচারণা চালিয়েছেন। এ সময় তিনি বেডমিন্টন মার্কায় ভোট চান। তিনি জানান, মাঠে এখন পর্যন্ত তেমন কোনো সমস্যা নেই। প্রচারণা চালাতে কোনো বাধা নেই বলেও জানান এ কাউন্সিলর প্রার্থী।

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন ৭নং ওয়ার্ডে বিএনপি-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী দেলোয়ার হোসেন দুলু রূপনগর আবাসিক এলাকায় গণসংযোগ চালিয়েছেন। ঘুড়ি মার্কার এ কাউন্সিলর প্রার্থী জানান, সকাল থেকে তিনি রূপনগর আবাসিক এলাকায় গণসংযোগ চালিয়েছেন। এলাকাবাসীর ব্যাপক সাড়া পাচ্ছেন। তিনি বলেন, শুধু ঘুড়ি মার্কায় ভোট চাওয়ার পাশাপাশি তার লোকেরা ধানের শীষ প্রতীকেও ভোট চাচ্ছেন। তিনি বলেন, জনগণ ভোট দেয়ার জন্য অপেক্ষায় রয়েছেন।

ডিএনসিসির ৩১ নং ওয়ার্ডে বিএনপি-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী সাজেদুল হক খান রনি জানিয়েছেন, তার নির্বাচনী এলাকায় জাকির হোসেন রোড, কাজী নজরুল ইসলাম রোড ও শাজাহান রোডে গণসংযোগ চালিয়েছেন। ইয়ারকন্ডিশন মার্কার এ প্রার্থী জানান, তিনি ভোটাদের যথেষ্ট সাড়া পাচ্ছেন। তার কর্মীরা শান্তিপূর্ণভাবে প্রচারণা চালাচ্ছেন।

ডিএনসিসির ৩৪ নং ওয়ার্ডে কাউন্সিলর প্রার্থী অ্যাডভোকেট মাসুম খান রাজেশ মেঠো হাউজিং, বরাইখালী ও শাহআলী রোড গণসংযোগ চালিয়েছেন। পলস্নবী থানা ১১ নম্বর সেকশন ওয়ার্ড ৫-এর আদর্শনগর লাল মাঠ অঞ্চলে গণসংযোগ করেন বিএনপি-সমর্থিত কাউন্সিলর প্রার্থী মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেন। ৪৭ নং ওয়ার্ডে বিএনপির সমর্থিত প্রার্থী মোতালেব হোসেন রতন তার নির্বাচনী এলকায় দিনব্যাপী গণসংযোগ করেন। ১৬ নং ওয়ার্ডে হাবিবুর রহমান রাব্বি ঘড়ি প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালান। অন্যদিকে দক্ষিণের ৬০ নং ওয়ার্ডে জাহাঙ্গীর মেম্বার তার প্রতীক টিফিন ক্যারিয়ার নিয়ে ধনিয়ার বিভিন্ন সড়কে প্রচারণা চালান। একই ওয়ার্ডের ইসলামী শাসতন্ত্র আন্দোলন সমর্থিত প্রার্থী মাহবুব হোসেন মামুন ঘুড়ি প্রতীক নিয়ে প্রচারণা চালান।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে