logo
বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১১ অক্টোবর ২০১৯, ০০:০০  

এবার ইয়াবার মামলায় গ্রেপ্তার ক্যাসিনো গুরু আরমান

ক্যাসিনো কেলেঙ্কারিতে জড়িত ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সহসভাপতি (বর্তমানে বহিষ্কৃত) এনামুল হক ওরফে আরমানকে (৪৫) ইয়াবার মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো (শ্যোন অ্যারেস্ট) হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে আরমানকে কড়া পুলিশ প্রহরায় কুমিলস্নার আমলি আদালত-৫ এর বিচারক ও কুমিলস্নার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট রোকেয়া আক্তারের আদালতে হাজির করা হয়। পরে পুলিশের আবেদনের প্রেক্ষিতে ১৪০ পিস ইয়াবা রাখার দায়ে দায়ের মামলায় তাকে গ্রেপ্তার দেখানোর ( শ্যোন এরেস্ট) নির্দেশ দেন বিচারক। মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৬ নভেম্বর অনুষ্ঠিত হবে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের এসআই মনির হোসেন।

এর আগে গত শনিবার গভীর রাতে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি (বর্তমানে বহিষ্কৃত) ইসমাইল হোসেন চৌধুরী সম্রাট ও তার সহযোগী এনামুল হক ওরফে আরমানকে কুমিলস্না থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। তারা জেলার চৌদ্দগ্রামের আলকরা ইউনিয়নের ভারত সীমান্তবর্তী গ্রাম কুঞ্জুশ্রীপুর গ্রামের জামায়াত নেতা ও ফেনীর পৌর মেয়র আলাউদ্দিনের ভগ্নিপতি মনিরুল ইসলাম চৌধুরী প্রকাশ ছক্কা মিয়ার বাড়ি আত্মগোপন করেছিলেন।

গ্রেপ্তারের সময় আরমানকে মদ্যপ অবস্থায় পাওয়া যায়। তার পকেট থেকে ১৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধার করের্ যাব সদস্যরা। এ সময় মাদক সেবনের দায়ের্ যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত আরমানকে ছয় মাসের কারাদন্ড দেন। রোববার রাতে আরমানকে ফেনী থেকে কুমিলস্না কারাগারের একটি সেলে রাখা হয়। মঙ্গলবার সন্ধ্যায় আরমানকে ঢাকায় নেয়া হয়।

এদিকে বৃহস্পতিবার ইয়াবার মামলায় গ্রেপ্তার দেখাতে তাকে কুমিলস্নার আদালতে হাজির করা হয়। ইয়াবা রাখার দায়ের্ যাব-৭ এর এসআই নিজাম উদ্দিন বাদী হয়ে আরমানের বিরুদ্ধে চৌদ্দগ্রাম থানায় ওই মামলাটি দায়ের করেছিলেন।

মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানা পুলিশের এসআই মনির হোসেন জানান, আরমানের কাছ থেকে ১৪০ পিস ইয়াবা উদ্ধারের মামলায় তাকে গত সোমবার গ্রেপ্তার দেখানোর আবেদন করা হয়েছিল। কুমিলস্নার ৫নং আমলি আদালতের বিজ্ঞ বিচারক আজ আবেদন মঞ্জুর করেছেন। বিচারক মামলার পরবর্তী শুনানি আগামী ৬ নভেম্বর ধার্য করেছেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে