logo
রোববার ২২ সেপ্টেম্বর, ২০১৯, ৭ আশ্বিন ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

সংসদে রওশনের উপনেতা জিএম কাদের

যাযাদি রিপোর্ট

নানা নাটকীয়তার পর জাতীয় পার্টির সমঝোতা বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দলটির কো চেয়ারম্যান রওশন এরশাদকে জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতার স্বীকৃতি দিয়ে গেজেট প্রকাশ হয়েছে।

আর জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান জিএম কাদের বিরোধীদলীয় উপনেতা হিসেবে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর স্বীকৃতি পেয়েছেন।

জাতীয় সংসদ সচিবালয় রোববারের তারিখে এ প্রজ্ঞাপন জারি করলেও তা প্রকাশিত হয় সোমবার। রওশনের সঙ্গে বিরোধীদলীয় উপনেতা কে হচ্ছেন, তা রোববার পর্যন্ত সাংবাদিকদের কাছে প্রকাশ করেনি জাতীয় পার্টি।

স্পিকারের কার্যালয়ের একজন কর্মকর্তা বলেন, জিএম কাদের রোববারই ওই পদের স্বীকৃতি দিতে স্পিকারকে অনুরোধ জানিয়ে চিঠি দেন।

গেজেটে

বলা হয়, 'জাতীয় সংসদে সরকারি দলের বিরোধীতাকারী সর্বোচ্চ সংখ্যক সদস্য নিয়ে গঠিত সংসদীয় দলের নেতা রওশন এরশাদকে (ময়মনসিংহ ৪) জাতীয় সংসদের কার্যপ্রণালি বিধি অনুযায়ী বিরোধীদলীয় নেতা এবং উপনেতা (পারিতোষিক ও বিশেষাধিকার) অধ্যাদেশ মোতাবেক (১৮ লালমনিরহাট-৩) সংসদ সংদস্য গোলাম মোহাম্মদ কাদেরকে রিরোধীদলীয় উপনেতা হিসেবে জাতীয় সংসদের স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরী স্বীকৃতি প্রদান করেছেন। আইন অনুযায়ী বিরোধীদলীয় নেতা মন্ত্রী ও উপনেতা প্রতিমন্ত্রীর মর্যাদা ভোগ করেন।'

জাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ পার্টির সংসদীয় দলের নেতা এবং একাদশ জাতীয় সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা ছিলেন। তার স্ত্রী রওশন দলের জ্যেষ্ঠ কো-চেয়ারম্যানের পাশাপাশি বিরোধীদলীয় উপনেতার দায়িত্বে ছিলেন। আর এরশাদের ভাই জি এম কাদের ছিলেন পার্টির কো-চেয়ারম্যানের দায়িত্বে।

এরশাদের মৃতু্যর পর জিএম কাদের দলের চেয়ারম্যানের দায়িত্ব নিলে রওশন তাতে আপত্তি তোলেন। এরশাদের আসনে উপ নির্বাচনের মনোনয়ন নিয়ে সেই দ্বন্দ্ব আরও প্রকট হয়।

এরপর জিএম কাদের বিরোধীদলীয় নেতার পদটি পাওয়ার জন্য স্পিকারকে চিঠি দিলে প্রকাশ্যে দ্বিধাবিভক্ত হয়ে পড়ে জাতীয় পার্টি। দলের একটি অংশ রওশনকে চেয়ারম্যান ঘোষণা করলে জাতীয় পার্টি ভেঙে যাওয়ার উপক্রম হয়।

শেষ পর্যন্ত শনিবার দুই পক্ষের নেতাদের সমঝোতা বৈঠকে সিদ্ধান্ত হয়, জিএম কাদেরই পার্টির চেয়ারম্যান থাকবেন আপাতত। আর রওশন হবেন বিরোধীদলীয় নেতা।

এরপর রোববার একাদশ সংসদের চতুর্থ অধিবেশন শুরুর আগে জাতীয় পার্টির সংসদীয় দল রওশনের সভাপতিত্বে বৈঠকে বসে। সেখানে দলের ২৫ জন এমপির সবাই উপস্থিত ছিলেন বলে পরে সাংবাদিকদের কাছে দাবি করেন জাতীয় পার্টির মহাসচিব ও বিরোধীদলীয় প্রধান হুইপ মসিউর রহমান রাঙ্গা।

সাংবাদিকদের তিনি বলেছিলেন, সভায় সর্বসম্মতিক্রমে সিদ্ধান্ত হয়েছে, রওশন এরশাদই হবেন সংসদের বিরোধীদলীয় নেতা। তবে বিরোধীদলীয় উপনেতা কে হবেন, সে সিদ্ধান্ত সেখানে হয়নি।

রওশনকে বিরোধীদলীয় নেতা করতে স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীকে চিঠি দেয়া হয়েছে কি না জানতে চাইলে রাঙ্গা বলেছিলেন, 'স্পিকারের কাছে চিঠি এখনো দেয়া হয়নি। চেয়ারম্যান সাহেব নিজেই স্পিকারকে একটা চিঠি দেবেন। রওশন এরশাদকে তিনি বিরোধীদলীয় নেতার স্বীকৃতি দিতে বলবেন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে