logo
  • Wed, 24 Oct, 2018

  মধুপুর (টাঙ্গাইল) সংবাদদাতা   ১২ অক্টোবর ২০১৮, ০০:০০  

একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চন

আ’লীগে রাজ্জাক, বিএনপিতে প্রাথীর্জট

টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী)

আ’লীগে রাজ্জাক, বিএনপিতে প্রাথীর্জট
আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চন ঘিরে টাঙ্গাইল-১ (মধুপুর-ধনবাড়ী) আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপির একাধিক সম্ভাব্য প্রাথীর্র নাম শোনা যাচ্ছে। প্রথমদিকে এ আসনটি বিএনপির দখলে থাকলেও স্থানীয় হেভিওয়েট প্রাথীর্র অভাবে তা আওয়ামী লীগের দখলে চলে যায়।

১৯৭৩ সালে দেশের প্রথম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে ২৯৩টি আসন পেয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের নেতৃত্বে আওয়ামী লীগ সরকার গঠন করলেও মধুপুরের এ আসনটি তাদের হাত ছাড়া হয়। সে সময় আওয়ামী লীগের প্রাথীর্ মহেন্দ্র লাল বমর্ণকে (নৌকা) প্রায় ৫ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন জাসদের মো. আবদুস সাত্তার (মশাল)।

১৯৭৯’র দ্বিতীয় জাতীয় সংসদ নিবার্চনে আওয়ামী লীগের প্রাথীর্ কাজী আসাদুজ্জামকে (নৌকা) প্রায় ২৯ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন বিএনপির প্রাথীর্ ধনবাড়ীর নওয়াব সৈয়দ হাসান আলী চৌধুরী (ধানের শীষ)।

১৯৮৬’র তৃতীয় জাতীয় সংসদ নিবার্চন বিএনপি বজর্ন করায় আওয়ামী লীগের প্রাথীর্ ডা. নিজামুল ইসলাম এমপি নিবাির্চত হন। ৮৮’র নিবার্চনেও বিএনপি না আসায় খন্দকার আনোয়ারুল হক (স্বতন্ত্র) এমপি নিবাির্চত হন।

টানা দুইবার বিএনপি সংসদ নিবার্চনের বাইরে থাকায় ১৯৯১ সালের পঞ্চম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে বিএনপির আশিকা আকবরকে (ধানের শীষ) মাত্র ২ হাজার ভোটের ব্যবধানে পরাজিত করেন আওয়ামী লীগের আবুল হাসান চৌধুরী কায়সার (নৌকা)। সাবেক রাষ্ট্রপতি আবু সাঈদ চৌধুরীর পুত্র আবুল হাসান চৌধুরী পরে আ’লীগ সরকারের পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী হন।

৯৬’র ১৫ ফেব্রæয়ারি ৬ষ্ঠ জাতীয় সংসদ নিবার্চনে বিএনপির ব্যারিস্টার আব্দুস সালাম তালুকদার এমপি হন। একই বছর ১২ জুনের সপ্তম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে আওয়ামী লীগের আবুল হাসান চৌধুরী কায়সার (নৌকা) প্রায় ১১ হাজার ভোটের ব্যবধানে বিএনপি মহাসচিব ব্যারিস্টার আব্দুস সালাম তালুকদারকে (ধানের শীষ) পরাজিত করেন।

পররাষ্ট্রপ্রতি মন্ত্রী আবুল হাসান চৌধুরী স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাকমীের্দর আন্দোলনের মুখে মধুপুর ছাড়ায় ২০০১ সালে অষ্টম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে এ আসনে আওয়ামী লীগ ও বিএনপিতে আসে নতুন মুখ। ব্যারিস্টার আব্দুস সালাম তালুকদারের মৃত্যুতে বিএনপির মনোনয়ন পান ব্যবসায়ী ফকির মাহবুব আনাম স্বপন। তৎকালীন বিএনপি নেতা অধ্যাপক আব্দুল গফুর মন্টু মনোনয়ন না পেয়ে দলের বিদ্রোহী প্রাথীর্ হন। আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পান কৃষিবিদ ড. আব্দুর রাজ্জাক। ওই নিবার্চনে ড. আব্দুর রাজ্জাক (নৌকা) ৯৮, ৪১৩ ভোট পেয়ে প্রথমবার এমপি নিবাির্চত হন। বিএনপির ফকির মাহবুব আনাম স্বপন (ধানের শীষ) পান ৪০, ৯৭২ ভোট। অপরদিকে বিএনপির বিদ্রোহী প্রাথীর্ অধ্যাপক আব্দুল গফুর মন্টু পান ৫৩, ৫৩৯ ভোট। ড. আব্দুর রাজ্জাক আওয়ামী লীগ সরকারের প্রথমেই দুযোর্গ ব্যবস্থাপনা প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব পান। পরে আওয়ামী লীগের কৃষি বিষয়ক সম্পাদক ও খাদ্যমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেন।

২০০৮ সালে নবম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে ড. আব্দুর রাজ্জাক (নৌকা) প্রায় ৮০ হাজার ভোটের ব্যবধানে ফকির মাহবুব আনাম স্বপনকে (ধানের শীষ) পরাজিত করেন। দশম জাতীয় সংসদ নিবার্চনে ড. আব্দুর রাজ্জাক বিনাপ্রতিদ্ব›িদ্বতায় নিবাির্চত হন।

আগামী একাদশ জাতীয় সংসদ নিবার্চনেও আওয়ামী লীগের একমাত্র প্রাথীর্ ড. আব্দুর রাজ্জাক। তবে তার বোন দলের শিক্ষা ও মানব সম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন নাহার চঁাপাও মনোনয়ন চাইতে পারেন।

মধুপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি সাবেক চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট মো. ইয়াকুব আলী বলেন, ড. আব্দুর রাজ্জাক মধুপুর-ধনবাড়ীর আওয়ামী লীগের একক প্রাথীর্, তার কোনো বিকল্প নেই।

মধুপুর পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি এবং শিল্প ও বণিক সমিতির নবনিবাির্চত সভাপতি আলহাজ মো. সিদ্দিক হোসেন খান বলেন, ড. আব্দুর রাজ্জাক মধুপুর-ধনবাড়ীর যে উন্নয়ন করেছেন, এতে তিনি এখান থেকে বার বার এমপি নিবাির্চত হবেন।

অন্যদিকে বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য ও সাবেক জেলা বিএনপির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি ফকির মাহবুব আনাম স্বপন মধুপুর-ধনবাড়ীর জনগণের জন্য উল্লেখযোগ্য কোনো কাজ না করায় তার সমথর্ন কমেছে। গত দেড় যুগে স্থানীয় সমাজসেবামূলক কোনো কমর্কাÐে তাকে দেখা যায়নি। নিবার্চন বিশ্লেষকরা মনে করেন স্থানীয় যে কোনো লোককে মনোনয়ন দিলে বিএনপির ভোটের সংখ্যা বাড়তে পারে। ফকির মাহবুব আনাম স্বপন ছাড়াও আগামী নিবার্চনে মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক তিনবারের সাবেক পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম সরকার (শহিদ), সুপ্রীম কোটের্র আইনজীবী অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী এবং উপজেলা বিএনপির উপদেষ্টা বীর মুক্তিযোদ্ধা এম এ সামাদও মনোনয়ন চাইতে পারেন। তবে সাবেক পৌর মেয়র শহিদুল ইসলাম সরকারকে (শহিদ) দলের মনোনয়ন দিলে হারানো আসনটি পুনরুদ্ধার করা সম্ভব বলে মনে করেন স্থানীয় বিএনপির নেতাকমীর্রা। নাম প্রকাশ না করার শতের্ বিএনপির কয়েকজন নেতা বলেন, ব্যবসায়ী ফকির মাহবুব আনাম স্বপন মূলত দলের ডোনার। গত দেড়যুগ তিনি নিবার্চনে যত টাকা খরচ করেছেন তার চেয়ে কয়েকগুণ বেশি টাকা মধুপুর থেকে ব্যবসা করে নিয়ে গেছেন। দেড়যুগ আগে মধুপুরের যে জমি যত টাকা দিয়ে তিনি কিনেছেন বতর্মানে সে জমির দামই প্রায় দশগুণ বেশি হবে।

এ ব্যাপারে ফকির মাহবুব আনাম স্বপন জানান, দল পুনরায় তাকে মনোনয়ন দিলে দুটি উপজেলাকেই আধুনিক উপজেলায় রূপান্তর করবেন।

মধুপুর উপজেলা বিএনপির সভাপিত মো. জাকির হোসেন সরকার বলেন, বিএনপির মতো বড় দলে যে কেউ মনোনয়ন চাইতে পারেন। স্বপন ফকির মধুপুর-ধনবাড়ীর অনেক উন্নয়নমূলক কাজ করেছেন। ২০০১ সাল থেকে তৃণমূল থেকে শীষর্ রাজনৈতিক পযর্ন্ত স্বপন ফকিরকে চায়। এবারও তিনি মনোনয়ন পাবেন।

মধুপুর উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মো. শহিদুল ইসলাম সরকার (সরকার শহিদ) বলেন, এ আসনে যারা এমপি হয়েছেন তাদের মধ্যে শুধু জাসদের আ. ছাত্তার মধুপুরের স্থায়ী বাসিন্দা ছিলেন। আর প্রায় সবাই ধনবাড়ী উপজেলার। কেউবা আবার অন্য উপজেলার। এ অবস্থায় দল তাকে মনোনয়ন দিলে তিনি নিবার্চন করবেন ইনশাল্লাহ।

অ্যাডভোকেট মোহাম্মদ আলী বলেন, যদি নিবার্চনের সুষ্ঠু পরিবেশ হয় এবং দল তাকে মনোনয়ন দেয়, তবে আসনটি ফিরিয়ে আনতে পারবেন।

উপজেলা বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক সাবেক চেয়ারম্যান মো. হুমায়ূন কবির, তারেক রহমানের নিদেের্শ সরকার শহিদ মধুপুর-ধনবাড়ীর যুবদল ও ছাত্রদলের কমিটি গঠন করে দলকে সুসংগঠিত করা হয়েছে। তারা তাকে মনোনয়ন দিলে আসনটি বিএনপির ঘরে আসবে।

এছাড়া জাতীয় পাটির্র মধুপুর উপজেলা সভাপতি এম. এ হান্নান (ইস্পাহানি) এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের মধুপুর উপজেলা শাখার সভাপতি মাও. মো. আশরাফ আলী দলের মনোনয়ন পেয়ে নিবার্চন করবেন বলে জানিয়েছেন।

এম. এ হান্নান (ইস্পাহানি) বলেন, জাতীয় পাটির্র চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদের নিদেের্শ মধুপুরে তৃণমূলে পাটিের্ক সুসংগঠিত করা হয়েছে। তাকে মনোনয়ন দিলে বিজয়ী হবেন ইনশাল্লাহ।

এ আসনে মধুপুর উপজেলায় মোট ভোটার ২ লাখ ১৫ হাজার ৮শ ৫৩ জন। পুরুষ ভোটার ১ লাখ ৭ হাজার ৬শ ৬১ জন আর মহিলা ভোটার ১ লাখ ৮ হাজার ১শ ৯২ জন। ধনবাড়ী উপজেলায় মোট ভোটার ১ লাখ ৪০ হাজার ৭শ ৬৫ জন। দুই উপজেলা মিলে এ আসনে মোট ভোটার ৩ লাখ ৬৬ হাজার ৬শ ৮ জন।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে