logo
শনিবার, ৩০ মে ২০২০, ১৬ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২৩ মে ২০২০, ০০:০০  

গাঁজাবাহী ট্রাকে লেখা ছিল 'জরুরি কৃষিপণ্য'

সামনে 'জরুরি কৃষিপণ্য' লেখা কাগজ ঝুলিয়ে কুড়িগ্রাম থেকে পাবনা যাচ্ছিল একটি ট্রাক। দীর্ঘপথ নির্বিঘ্নে চলে আসলেও নাটোর শহরের মাদ্রাসা মোড়ে ট্রাকটি আটকে দেয় র?্যাব সদস্যরা। ট্রাকের পেছনে কিছু না থাকায় সন্দেহ বাড়ে। পরে চালকের ক্যাবিন তলস্নাশি করে পাওয়া যায় ৫৫ কেজি গাঁজা। আটক করা হয় চার তরুণকে। আজ শুক্রবার ভোর সাড়ে ৩টায় এ ঘটনা ঘটে।

র্

যাব, রাজশাহীর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার এ টি এম মাইনুল ইসলাম জানান, শুক্রবার ভোরে তারা শহরের মাদ্রাসা মোড়ে বগুড়া-পাবনা মহাসড়কে যানবাহন তলস্নাশি করছিলেন। এ সময় একটি খালি ট্রাক জরুরি কৃষিপণ্য পরিবহণের স্টিকার লাগিয়ে পাবনার দিকে যাচ্ছিল। তারা ট্রাকটি থামিয়ে তলস্নাশি করেন। এ সময় চালকের পেছনের ক্যাবিনে বিশেষ কায়দায় টেপ দিয়ে আটকানো ৫৫ কেজি গাঁজা পাওয়া যায়। গাঁজা বহনের অভিযোগে ক্যাবিনে থাকা চালকসহ চারজনকে আটক করা হয়। পরে তাদের সদর থানায় হাজির করে মাদকের নিয়মিত মামলা দেওয়া হয়।

গাজা বহনকারী ট্রাকটিও জব্দ করে থানায় জমা দেয়।

আটক তরুণরা হলেন পাবনা সদরের গড়গড়ি এলাকার ছানা আলী (২৯), মো. সাকিব (১৯), আওতাপাড়ার সাগর বিশ্বাস (২২) ও শাহপাড়ার সুলভ ইসলাম (২০)। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে র?্যাবকে জানায়, তারা কুড়িগ্রাম থেকে গাঁজা সংগ্রহ করে পাবনায় নিয়ে যাচ্ছিলেন।

এ টি এম মাইনুল ইসলাম বলেন, করোনা প্রতিরোধে সরকারি ছুটি ও গণপরিবহণ বন্ধ থাকায় মাদক চোরাকারবারিরা বিভিন্ন পন্থা অবলম্বন করে মাদকের ব্যবসা করছে। এ ক্ষেত্রে তারা জরুরি কৃষিপণ্য পরিবহণের নামে মাদক পাচার করছিল। মূলত আইন শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনীকে বিভ্রান্ত করতেই তাদের এ অপচেষ্টা।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে