logo
মঙ্গলবার, ২৬ মে ২০২০, ১২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৬

  বিনোদন রিপোর্ট   ৩১ মার্চ ২০২০, ০০:০০  

করোনা প্রতিরোধে এবার মমতাজ

করোনা প্রতিরোধে এবার মমতাজ
মমতাজ বেগম
মমতাজ। বাংলাদেশের সংগীতাঙ্গনে অনন্য একটি নাম। রাজনৈতিক অঙ্গনেও তার বেশ সুনাম। গান এবং রাজনীতির পাশাপাশি ব্যক্তিগতভাবেও বিভিন্ন সমাজসচেতনতামূলক কর্মকান্ডে সুনামের সঙ্গে অংশগ্রহণ করে আসছেন বাউলসম্রাজ্ঞী ও সংসদ সদস্য মমতাজ বেগম। যদিও সংসদ সদস্য হওয়ার অনেক আগে থেকেই সুবিধাবঞ্চিত মানুষের পাশে দাঁড়াতে দেখা গেছে তাকে। সাংসদ হওয়ার পর সেই দায়িত্ব যেন আরো বহুগুণে বেড়ে যায়। যে কারণে নিয়মিত রাজনীতিতে ব্যস্ত থাকলেও জনসচেতনতামূলক কাজে তাকে সবসময়ই পাওয়া যায় একজন নিবেদিত শিল্পী হিসেবে। সেই ধারাবাহিকতায় এবার করোনার প্রতিরোধে মাঠে নেমেছেন এই সংগীত তারকা। ব্যক্তিগতভাবে অসহায়দের বিভিন্ন সহযোগিতার হাত বাড়ানোর পাশাপাশি গান এবং বিজ্ঞাপনের মাধ্যমেও মানুষকে সচেতন করছেন তিনি। মমতাজের কণ্ঠের বহুল জনপ্রিয় গান 'বুকটা ফাইট্টা যায়' এই গানেরই আদলে 'ব্র্যাক'-এর সহযোগিতায় বাংলাদেশের মানুষের করোনাভাইরাস সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলতে মমতাজ একটি গান গেয়েছেন। গানটি হচ্ছে 'মনটা ভইরা যায়, মাইনা যায়, নিয়মটা মাইনা যায়'। এরই মধ্যে গানটির রেকডির্ং এবং দৃশ্যধারণের কাজ শেষ হয়েছে। মূলত ব্র্যাক ও মমতাজের সহযোগিতায় জনসচেতনতা গড়ে তুলতেই এই গানটির প্রচারণা শুরু হচ্ছে আজ থেকে। শুরুতেই গানটি প্রচার হবে চ্যানেল আইতে। পরবর্তী সময়ে দেশের সবগুলো চ্যানেলেই গানটি 'করোনাভাইরাস' সম্পর্কে সচেতনতা গড়ে তুলতে গানটি প্রচার করা হবে।

মমতাজ বলেন, 'ঠিক এই মুহূর্তে আমরা করোনাভাইরাসে আতঙ্কিত। আতঙ্কিত না হয়ে আমরা যেন আরো সচেতন হই, করোনা রোধে কী কী নিয়ম মেনে চলতে হবে তাই গানে গানে জনগণকে সচেতন করার চেষ্টা আমার। আমারই জনপ্রিয় গান বুকটা ফাইট্টা যায়'র সুরেই গানটি গেয়েছি আমি। কারণ এই সুরটি সবার মনে গেঁথে আছে। তাই সুরটি শুনেই যেন জনগণ গানটি শোনার জন্য মনোযোগী হয়ে উঠেন। এটাও একধরনের দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য জনপ্রিয় গানের সুরেই করা। নতুন করে গানটির সঙ্গীতায়োজন করেছেন লাবিক কামাল গৌরব। আর শুধু চ্যানেলেই নয় জনসচেতনতায় ব্র্যাক গ্রামে গ্রামে মাইকিং করে গানটি প্রচার করবে। আমার বিশ্বাস এই গানটি প্রচারণার মধ্য দিয়ে মানুষের মধ্যে করোনাভাইরাস প্রতিরোধে আরো সচেতনতা বাড়বে। ব্র্যাক'র আপা ভাইদের নিয়ে আমি বাংলাদেশের মানুষের পাশে থাকব।' গানটি লিখেছেন ব্র্যাক কমিউনিকেশন টিম। শুধু গানের মাধ্যমেই নয়, করোনাভাইরাস থেকে বাঁচাতে মমতাজকে নিয়ে একটি বিজ্ঞাপনও প্রচারিত হচ্ছে বিভিন্ন টিভি ও রেডিও চ্যানেলগুলোতে।

গত বছরটি ছিল মমতাজের জন্য সম্মাননা প্রাপ্তির একটি সেরা বছর। গেল বছরই তিনি একজন গায়িকা হিসেবে সেরা করদাতা পুরস্কৃত হয়েছেন। আবার একই সময়ে তিনি ২০১৭ সালের জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কারে শ্রেষ্ঠ সংগীতশিল্পী হিসেবে পুরস্কৃত হয়েছেন। হাছিবুর রেজা কলেস্নালের 'সত্ত্বা' সিনেমাতে সেজুলে হোসেনের কথায় ও বাপ্পা মজুমদারের সুর সংগীতে 'না জানি কোন অপরাধে দিলা এমন জীবন' গানটির জন্য মমতাজ পুরস্কৃত হয়েছিলেন। রবিন খানের নির্দেশনায় মমতাজ বেগম সর্বশেষ বাল্যবিবাহ রোধে একটি তথ্যচিত্রে কাজ করেন।

গান নিয়ে মমতাজ বলেন, 'যতই ব্যস্ত থাকি, গান ছাড়া মমতাজ কোনো দিন থাকতে পারবে না। গান আমার রক্তের প্রতিটি কণায় কণায় মিশে আছে। এই গানের জন্যই আজ আমি মমতাজ হয়েছি। নাম যশ খ্যাতি পেয়েছি। সংসদ সদস্য হয়েছি। গান আমার প্রাণের খোরাক। এত ব্যস্ততার মাঝেও কিন্তু থেমে নেই আমার গান। কয়দিন পরপরই আমাকে মঞ্চে উঠতে হয়। টেলিভিশন অনুষ্ঠানে গাইতে হয়। শুধু তাই নয়, নিয়মিত নতুন গানও তৈরি করতে হচ্ছে আমাকে। যতদিন মমতাজ আছে, ততদিন তার গানও থাকবে। মৃতু্যর আগমুহূর্ত পর্যন্ত গান গাইতে চাই।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে