logo
সোমবার, ০৬ এপ্রিল ২০২০, ২৩ চৈত্র ১৪২৫

  বিনোদন রিপোর্ট   ২৫ মার্চ ২০২০, ০০:০০  

সংবাদ সংক্ষপে

হানিফ সংকেতের সচেতন বার্তা

সারা বিশ্বের স্বাভাবিক গতিময়তাকে এক ঝটকায় থামিয়ে দিয়েছে করোনাভাইরাস। এই সময়ে বিশ্ব-তারকারাও করোনা নিয়ে সোচ্চার ভূমিকা পালন করছেন। কেউ পরামর্শ দিচ্ছেন ভাইরাস থেকে নিরাপদে থাকার বিষয়ে, কেউ শেখাচ্ছেন কোয়ারেন্টিনে থাকার সহজ উপায়। দেশের জনপ্রিয় গণমাধ্যম ব্যক্তিত্ব হানিফ সংকেত তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে এক ভিডিও বার্তায় করোনা নিয়ে সবাইকে সচেতন হবার আহ্বান জানান।

হানিফ সংকেত বলেন, 'প্রিয় দর্শক আজ একটি অত্যন্ত জরুরি প্রয়োজনে আপনাদের সামনে হাজির হয়েছি এই ভার্চুয়াল মিডিয়াতে। আপনারা সবাই জানেন, অতি সম্প্রতি আবিষ্কৃত হওয়া করোনাভাইরাস সম্পর্কে। এটি একটি বৈশ্বিক দুর্যোগ। পৃথিবীর অধিকাংশ দেশই এখন এই ভাইরাসে আক্রান্ত। করোনাভাইরাস থেকে সংক্রমিত রোগের নামই হচ্ছে কোভিট-১৯। ২০১৯ সালের ডিসেম্বর চীনের উহান শহরে শুরু হওয়ার আগ পর্যন্ত এই নতুন ভাইরাস ও রোগটি সবার কাছে ছিল অজানা।'

সব্যসাচী এই টিভি ব্যক্তিত্ব করোনাভাইরাসকে বৈশ্বিক দুর্যোগ হিসেবে বিবেচনা করে বলেন, ?'এটা এমন একটা সময়, যখন গুজব ছড়ানো শুধু নিন্দনীয় কাজই নয়, দন্ডনীয় অপরাধও। ফেসবুক ফ্যান পেজে প্রকাশের জন্য বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা আমার কাছে কিছু তথ্য-উপাত্ত পাঠিয়েছে করোনাভাইরাস প্রতিরোধ বিষয়ে। যেটি আমি প্রকাশের প্রস্তুতি নিচ্ছি। এখন সচেতনতার বিকল্প নেই।' ভিডিও বার্তায় তিনি আরও বলেন, 'এই রোগ থেকে মুক্তি পেতে হলে এই মুহূর্ত থেকে আমাদের দৈনন্দিন আচরণ ও চলাফেরায় পরিবর্তন আনতে হবে। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া বাড়ির বাইরে কারোরই যাওয়া উচিত হবে না। মনে রাখতে হবে। আমরা যে কেউ যে কোনো সময় এই রোগে আক্রান্ত হতে পারি। কারণ আমরা সবাই এই রোগের ঝুঁকিতে আছি। তাই প্রয়োজন সচেতনতা, সতর্কতা।'

ভয়ে দেশে ফিরছেন

না সনু নিগম

বিনোদন ডেস্ক

বলিউডের বিখ্যাত গায়ক সনু নিগম। দুবাই থেকে গত সপ্তাহে ফেরার কথা থাকলেও, সেখানেই রয়ে গিয়েছেন তিনি। কারণ? করোনার সংক্রমণ যাতে আরও না ছড়ায়, তার জন্যই আগাম সতর্কতা হিসেবে এই পদক্ষেপ নিয়েছেন। গত ৫ মার্চ থেকে তিনি দুবাইতে। ১৭ মার্চ তার ফেরার কথা ছিল। সেখানে তার স্ত্রী এবং ছেলেও রয়েছে। দেশে সনুর বাবা এবং বোন রয়েছেন। তাদের কথা ভেবেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভিডিও পোস্ট করে তিনি বলেছেন, 'দেশে বাবার সঙ্গে থাকতে এই মুহূর্তে খুব ইচ্ছে করছে। তবে আমি যেহেতু বাইরে, তাই ওদের বিপদে ফেলতে চাই না। আমি যদি এখন দেশে ফিরি, এয়ারপোর্ট থেকে সংক্রমণের সম্ভাবনা বাড়বে।' রবিবার দেশে 'জনতা কার্ফু'র আবহে বিদেশের মাটি থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় তার শ্রোতাদের গান শুনিয়েছেন সনু। আমাল মালিক, জসলিন রয়্যালও একই উদ্যোগের শামিল।

অস্ট্রেলিয়ায়

গৃহবন্দি শাবনূর

বিনোদন রিপোর্ট

করোনাভাইরাসে মারাত্মকভাবে আক্রান্ত সারা দুনিয়া। এই ভাইরাসের সংক্রমণ কমাতে বারবার বলা হচ্ছে বিপজ্জনক কয়েকটা দিন ঘরে থাকার জন্য। এজন্য একের পর এক লকডাউন হয়ে পড়েছে বিশ্বের ব্যস্ত সব শহর, দেশ। সবাই ঘরে বসেই করোনাকে মোকাবিলা করছেন। বিশ্বের নানাপ্রান্তে ছড়িয়ে-ছিটিয়ে আছেন অনেক বাংলাদেশি। কেউ ফিরেছেন, কেউ ফিরতে পারছেন না। তাদের মধ্যে অস্ট্রেলিয়ায় হোম কোয়ারেন্টিনে আছেন চিত্রনায়িকা শাবনূর। ঢাকাই চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা শাবনূর অনেকদিন ধরেই অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে বসবাস করছেন। করোনাভাইরাস আঘাত হেনেছে দেশটিতে। তাই সেখানে শাবনূর গৃহবন্দি আছেন।

এ প্রসঙ্গে নিশ্চিত করে শাবনূর বলেন, 'বাজার করা ছাড়া আপাতত বাসার বাইরে যাওয়া হচ্ছে না। পুরো অস্ট্রেলিয়া আতঙ্কিত। সিডনি থেকে মেলবোর্ন যাওয়া-আসা বন্ধ করে দিয়েছে এদেশের সরকার। ডিপার্টমেন্টাল স্টোরগুলোতেও খাবার শেষ হয়ে আসছে। কী যে হবে। সবাই আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছে।' নিজের দেশের কথা প্রসঙ্গে শাবনূর বলেন, 'দেশ ও দেশের মানুষকে খুব মিস করছি। আলস্নাহ যেন আমার প্রিয় বাংলাদেশকে ভালো রাখে।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে