logo
রবিবার, ১৫ ডিসেম্বর ২০১৯, ১ পৌষ ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ১৪ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় হুমায়ূন আহমেদকে স্মরণ

শ্রদ্ধা-ভালোবাসায় হুমায়ূন আহমেদকে স্মরণ
গতকাল নুহাশ পলস্নীতে দুই ছেলেকে নিয়ে কেক কাটেন মেহের আফরোজ শাওন
বিনোদন রিপোর্ট

নানা আয়োজনে পালিত হলো কিংবদন্তি কথাসাহিত্যিক, বাংলা চলচ্চিত্র, টেলিভিশন নাটকের নন্দিত নির্মাতা হুমায়ূন আহমেদের ৭১তম জন্মদিন। এই কিংবদন্তির জন্মদিন উপলক্ষে গতকাল সারাদিন বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনগুলো নানা কর্মসূচি পালন করেছে। রেডিও-টেলিভিশনে সারাদিন প্রচারিত হয়েছে বিশেষ অনুষ্ঠানমালা। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১২টা ১ মিনিটে হুমায়ূন আহমেদের বাসা দখিন হাওয়ায় কেক কেটে জন্মদিন উদযাপন করেন পরিবারের সদস্যরা। গতকাল দিনব্যাপী নুহাশ পলস্নীতে ছিল বিশেষ আয়োজন। মঙ্গলবার রাতেই হুমায়ূনের কবর ও পুরো নুহাশ পলস্নীতে মোমবাতি জ্বালানো হয়। গতকাল সকালে হুমায়ুন আহমেদের স্ত্রী মেহের আফরোজ শাওন ও তার দুই ছেলে গাজীপুরের নুহাশ পলস্নীতে তার সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে প্রতিকৃতির সামনে কেক কাটেন তারা। এ সময় শাওন বলেন, অর্থাভাবে নয় উদ্যোক্তার অভাবে হুমায়ুন আহমেদ ক্যান্সার হাসপাতাল বাস্তবায়ন হচ্ছে না। তিনি আরও জানান, নুহাশ পলস্নীতে হুমায়ুন আহমেদ জাদুঘর নির্মাণ করা হবে। এজন্য স্থান নির্বাচন ও নকশাও করা হয়েছে।' প্রিয় লেখককে শ্রদ্ধা জানাতে নুহাশ পলস্নীতে যান হিমু পরিবহন নামে একটি দল।

প্রতি বছরের মতো এবারও চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে চেতনা চত্বরে অনুষ্ঠিত হয়েছে 'সিটি ব্যাংক চ্যানেল আই হুমায়ুন মেলা ২০১৯'। ১১টা ৫ মিনিটে শুরু হয় 'চ্যানেল আই হুমায়ুন মেলা'র অনুষ্ঠান। চ্যানেল আইয়ের পরিচালক ও বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজসহ বক্তব্য রাখেন হুমায়ুন আহমেদের বন্ধু, স্বজনসহ বহু গুণীজন। শাইখ সিরাজ বলেন, 'বাংলা সাহিত্যের এক অসাধারণ প্রতিভার নাম হুমায়ুন আহমেদ। তিনি সত্যিকার অর্থেই মানুষকে বইমুখী করায় বিশাল অবদান রেখেছেন। কালজয়ী উপন্যাস লিখে, চলচ্চিত্র নির্মাণ করে সংস্কৃতিকে সমৃদ্ধ করেছেন।' এরপর একে একে বক্তব্য দেন মঞ্চ সারথি ও হুমায়ুন আহমেদের সঙ্গে কাজ করা অভিনেতা আতাউর রহমান, কবি হাসান হাফিজ, হুমায়ুন আহমেদের অত্যন্ত কাছের মানুষ হিসেবে পরিচিত ইঞ্জিনিয়ার আব্দুল করিম, প্রকাশক সমিতির সভাপতি ফরিদ আহমেদ, সংগীতশিল্পী সেলিম খান, আকরামুল ইসলাম, তপন চৌধুরী, শাকুর মজিদ, কবি মারুফুল ইসলাম, সিটি ব্যাংকের পক্ষে কথা বলেন শাহরিয়ার জামিল খানসহ উপস্থিত অতিথিবৃন্দ। এরপর সাড়ে ১১টায় হলুদ বেলুন উড়িয়ে উদ্বোধন ঘোষণা করা হয় হুমায়ুন মেলার। মেলা প্রাঙ্গণে এ সময়ে হলুদ পাঞ্জাবি আর নীল শাড়ি পরে উপস্থিত ছিলেন অসংখ্য হিমু ও রূপা। বিভিন্ন অঙ্গনের হুমায়ুন ভক্ত ও বিশিষ্টজনরা উপস্থিত ছিলেন এ মেলায়। জন্মদিন উপলক্ষে চ্যানেল আই প্রাঙ্গণে স্থাপিত বিশেষ উন্মুক্ত মঞ্চে পরিবেশন করা হয় হুমায়ুন আহমেদের লেখা গান। তার স্মরণে স্মৃতিকথা বলেন অনুষ্ঠানে আগত বিশিষ্টজনরা। আরও ছিল হুমায়ুন আহমেদের লেখা থেকে আবৃত্তি পরিবেশনা। হুমায়ুন স্মরণে চিত্রাঙ্কন করছে বিভিন্ন বয়সি শিশুশিল্পীরা। মেলাটি দিনভর সরাসরি সম্প্রচারিত করেছে চ্যানেল আই। মেলাতে হুমায়ুন আহমেদের বই, তার নির্মিত চলচ্চিত্র ও নাটকের ভিডিও সিডিসহ বিভিন্ন ধরনের পণ্য ও সেবার পসরা দিয়ে সাজানো ছিল স্টলগুলো।

এদিকে, পাবলিক লাইব্রেরি প্রাঙ্গণে গতকাল বিকাল থেকে শুরু হয় সপ্তাহব্যাপী হুমায়ুন আহমেদ বইমেলা। মেলার উদ্বোধন করেন কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলন, বিশেষ অতিথি ছিলেন সাহিত্যিক ও হুমায়ুন আহমেদের ছোটো ভাই আহসান হাবীব। মেলার উদ্বোধন করেন মেহের আফরোজ শাওন।

উলেস্নখ্য, ১৯৪৮ সালের ১৩ নভেম্বর নেত্রকোনার কেন্দুয়া থানার কুতুবপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন হুমায়ুন আহমেদ। দুরারোগ্য ক্যান্সারে ভুগে ২০১২ সালের ১৯ জুলাই তিনি মৃতু্যবরণ করেন। এরপর গাজীপুরের নুহাশপলস্নীতে তাকে সমাহিত করা হয়।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে