logo
বুধবার ১৬ অক্টোবর, ২০১৯, ১ কার্তিক ১৪২৬

  অনলাইন ডেস্ক    ২৬ জুন ২০১৯, ০০:০০  

সাক্ষাৎকার

যা পেয়েছি, চলচ্চিত্র থেকেই পেয়েছি

আশি-নব্বই দশকের সাড়া জাগানো চিত্রনায়ক মাসুম পারভেজ রুবেল। অভিনয়ের পাশাপাশি প্রযোজনাও করেছেন বেশ কয়েকটি ছবি। দীর্ঘদিন চলচ্চিত্র অঙ্গনের বাইরে থাকলেও আসন্ন প্রযোজক সমিতির নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছেন এই তারকা। পাশাপাশি নতুন একটি সিনেমা নির্মাণেরও ঘোষণা দিয়েছেন তিনি। সব বিষয়েই কথা হলো তার সঙ্গে...

যা পেয়েছি, চলচ্চিত্র থেকেই পেয়েছি
মাসুম পারভেজ রুবেল
বর্তমানে...

সম্প্রতি আমার ছেলের পারিবারিকভাবে বিয়ে সম্পন্ন করলাম। আপাতত আমার একটি মার্শাল আর্টের একটি প্রশিক্ষণেও সময় দিচ্ছি। তবে কাজে নেই তার মানে এই নয় এই অঙ্গন থেকে দূরে সরে আছি। কারণ এটি আমার মনেপ্রাণে রয়ে আছে। এ ছাড়াও বর্তমানে আমাদের প্রযোজক সমিতি নির্বাচন নিয়েই আছি। তবে পরিকল্পনা করছি সবকিছু গুছিয়েই সবাইকে সারপ্রাইজ দিব ভাবছি।

দীর্ঘদিন চলচ্চিত্রের বাইরে কেন?...

আসলে চলচ্চিত্র এখন একমুখী প্রায়। আমরা যখন সত্তর আশির দশকে চলচ্চিত্রে কাজ করেছি। প্রায় সময় খাওয়ার সময়ও পেতাম না। এখন এই জায়গাতে একটা সিন্ডিকেট কাজ করছে। আমাদের সময় এমন কিছু ছিল না। আমাদের কাজের প্রতি দরদ ছিল। শুধু কাজটিই ভালো করেছি কোনো সিন্ডিকেট নয়। এবার একটু পস্নানিং করেই নামব। যেহেতু আমাদের এখন হল সংখ্যা খুবই কম সেক্ষেত্রে একটু সময় নিচ্ছি।

চলচ্চিত্র থেকে প্রাপ্তি-অপ্রাপ্তি...

নায়ক রুবেল একদিনে তো হয়নি। আমার প্রাপ্তিটা চলচ্চিত্র থেকেই। কারণ আমরা তিন ভাই এই অঙ্গনের সাথেই জড়িয়ে ছিলাম। এখন পর্যন্ত জীবনে এত দর্শকের ভালোবাসা পেয়েছি তা আসলে বোঝাতে পারব না। এই অঙ্গনে মনে হয় শয়তানের চোখ পড়েছে- এটাই আমার অপ্রাপ্তি। কেন যেন জোর করে রাজত্ব করছে। তবে খুব তাড়াতাড়ি সব শয়তান বিতাড়িত করব ইনশালস্নাহ।

চলচ্চিত্রে সুদিন ফিরিয়ে আনতে...

আমি আগেও বলেছি আমাদের স্বর্ণালি যুগে শুধু কাজই করেছি। কেউ কারো পিছে লেগে থাকিনি। এখানে দেখা যায় সবাই সবার পিছনে লেগে থাকে। সবাই মিলে যেখানে চলচ্চিত্রের জন্য এগিয়ে আসতে হবে, সেখানে মনে হয় এই অঙ্গনটা ধ্বংস করতে আসছে। এজন্য মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করছি। একমাত্র মাননীয় প্রধানমন্ত্রী পারবেন আমাদের চলচ্চিত্র অঙ্গনকে আবার আগের জায়গায় ফিরিয়ে আনতে।

ভবিষ্যৎ পরিকল্পনা...

আমি ছোট থেকে চলচ্চিত্রের সাথে জড়িত। শুরু থেকে এই পর্যন্ত এখানেই আছি। হয়তো শেষ পর্যন্ত এখানেই থেকে যাব। সবাই আমার পরিবার-পরিজনের জন্য দোয়া করবেন। আলস্নাহর রহমতে যেন ভালো থাকতে পারি।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে