logo
বুধবার ২৪ এপ্রিল, ২০১৯, ১১ বৈশাখ ১৪২৬

  বিনোদন ডেস্ক   ১১ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০  

৫১-তে পা দিলেন অ্যানিস্টোন

৫১-তে পা দিলেন অ্যানিস্টোন
জেনিফার অ্যানিস্টোন
জেনিফার অ্যানিস্টোন। একজন মাকির্ন অভিনেত্রী, চিত্র পরিচালক, প্রযোজক এবং ব্যবসায়ী। অনন্য ও রূপসী এই অভিনেত্রীকে অধিকাংশই চেরে র‌্যাচেল গ্রিন হিসেবে। ফ্রেন্ডস সিটকমে টানা দশ বছর ধরে অভিনয় করা এই চরিত্রটিই যে তার সবচেয়ে বড় পরিচয়। ধনী পিতার টাকা-উড়ানো মেয়ে, প্রথম দৃশ্যেই যাকে দেখি নিজের বিয়ের পিঁড়ি থেকে উঠে এসেছে- শেষমুহূতের্ বসতে ইচ্ছা হয়নি বলে। ধুলোবালির পৃথিবী থেকে অনেক দূরে বাস করা, এমনি নিজের খেয়ালখুশি মতো চলা র‌্যাচেলকে দশম সিজনে দেখা যায় অনেক পরিণত হিসেবে। ততদিনে বাস্তবের জেনিফার অ্যানিস্টোনের-ও ক্যারিয়ার চলে গেছে অনেক দূর।

জেনিফারের জন্ম ক্যালিফোনির্য়ায়, ১৯৬৯-এ। বাবা-মা দুজনেই ছিলেন অভিনেতা। শুরুর দিকে কিছুদিন মঞ্চে কাজ করেছেন। ফ্রেন্ডস তার অভিনয় জীবনের এতোটাই জুড়ে ছিল যে দশর্কদের অনেকেই তাকে সিনেমায় অন্য চরিত্রে দেখতেই চাইতেন না- হলিউডে প্রথম দিকের ব্যথর্তার পর ১৯৯৬ এ তিনি আবার চলচ্চিত্রে ফেরত আসেন। টানা বেশ কিছু ইন্ডিপেন্ডেন্ট চলচ্চিত্রে অভিনয় করেন অ্যানিস্টন। সমালোচকদের দৃষ্টিতে তখন পযর্ন্ত তার অবস্থান ভালো ছিলো না খুব একটা, সেটাও পালটে যায় ২০০২ সালের ফিল্ম দ্য গুড গালর্ থেকে- কম বাজেটের এই ছবিতে অ্যানিস্টন খুবই সাধারণ এক ক্যাশিয়ারের চরিত্রে অভিনয় করেন- একেবারেই গøামারহীন সাদামাটা একটা চরিত্রে। রজার ইবারটের মতো জঁাদরেল সমালোচকরাও প্রশংসা করেন তার অভিনয়ের।

২০০৩ সালে জিম ক্যারির বিপরীতে অভিনয় করেন কমেডি সিনেমা ব্রæস অলমাইটি-তে। দশর্ক তাকে র?্যাচেল গ্রিনের বাইরেও ভাবতে শুরু করে এইসময় তার ক্যারিয়ার-ও বিস্তৃত হয় আরো। জেনিফার আনিস্টন হলিউডের সবাির্ধক আয় করা অভিনেত্রীদের মধ্যে প্রথম সারিতে পৌঁছান।

নতুন শতাব্দীতে তার অভিনীত বেশিরভাগ ছবিই ২০০ মিলিয়ন ডলারের বেশি আয় করেছে বিশ্বজুড়ে। ফ্রেন্ডস এর শেষ দুই সিজনে প্রত্যেক এপিসোডের জন্য অ্যানিস্টন পেতেন এক মিলিয়ন ডলার। ২০১৭-তে ম্যাগাজিন ফোবর্স তাকে সবোর্চ্চ আয় করা অভিনেত্রীদের মধ্যে দ্বিতীয় হিসেবে শনাক্ত করে। হাটর্থ্রব অভিনেত্রীর ৫১তম জন্মদিন আজ।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে