logo
বুধবার, ২২ জানুয়ারি ২০২০, ৯ মাঘ ১৪২৭

  যাযাদি ডেস্ক   ১১ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

তীব্র নিন্দা ভারতের

অমিত শাহের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার সুপারিশ মার্কিন কমিশনের

অমিত শাহের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞার সুপারিশ মার্কিন কমিশনের
ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ
সংখ্যাগরিষ্ঠতার জোরে ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র্রমন্ত্রী অমিত শাহ উত্থাপিত নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল (সিএবি) সোমবার পাস করিয়ে নিয়েছে নরেন্দ্র মোদি সরকার। এ নিয়ে গভীর উদ্বেগ জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র সরকারের আন্তর্জাতিক ধর্মীয় স্বাধীনতা বিষয়ক কমিশন- ইউএসসিআইআরএফ। লোকসভায় বিলটি উত্থাপনের দিনই এ ইসু্যতে ভারতের কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও বিজেপিপ্রধান অমিত শাহের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা আরোপে ট্রাম্প প্রশাসনের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন তারা। সংবাদসূত্র : এনডিটিভি, বিবিসি

ইউএসসিআইআরএফের বিবৃতিতে বলা হয়েছে, বিলটিতে নাগরিকত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে ধর্মীয় মানদন্ড বেঁধে দেওয়া হয়েছে, যা অত্যন্ত বিপজ্জনক। আরও বলা হয়েছে, ভারতের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ যে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল পেশ করেছেন, তাতে ধর্মীয় মানদন্ড বেঁধে দেওয়ায় ইউএসসিআইআরএফ ভীষণভাবে উদ্বিগ্ন। দেশটির পার্লামেন্টের উভয় কক্ষেই যদি বিলটি পাস হয়ে যায়, তাহলে যুক্তরাষ্ট্রের উচিত অমিত শাহসহ দেশটির অগ্রগণ্য নেতাদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করা।

বিবৃতিতে বলা হয়, 'নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল একটি অত্যন্ত বিপজ্জনক মোড়, যা ভুল পথে এগোচ্ছে। ভারতের ধর্মনিরপেক্ষ, বহুত্ববাদী ইতিহাস এবং সে দেশের সংবিধান, যা ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সবার সমান অধিকারের কথা বলে, এই বিল তার পরিপন্থি।'

এর আগে আসামের নাগরিকপঞ্জি (এনআরসি) নিয়েও উদ্বেগ জানিয়েছিল ইউএসসিআইআরএফ। তখন নাগরিকপঞ্জিকে ভারতীয় মুসলমানদের নাগরিকত্ব বঞ্চিত তথা দেশছাড়া করার অস্ত্র হিসেবে আখ্যায়িত করে যুক্তরাষ্ট্রের এই সরকারি কমিশন। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়েও একই আশঙ্কা জানিয়েছে ইউএসসিআইআরএফ।

কমিশনের বিবৃতিতে বলা হয়, 'আমাদের আশঙ্কা, নাগরিকত্ব দেওয়ার ক্ষেত্রে যেভাবে ধর্মীয় পরীক্ষা নিচ্ছে ভারত, তা কয়েক কোটি মুসলমানের নাগরিকত্ব ছিনিয়ে নেবে।' গত এক দশকে ধর্মীয় বৈষম্য নিয়ে ইউএসসিআইআরএফ-এর বার্ষিক প্রতিবেদনকে ভারত সরকার কোনো গুরুত্ব দেয়নি বলেও জানিয়েছে এই কমিশন।

সোমবার ভারতীয় পার্লামেন্টের নিম্নকক্ষ লোকসভায় অমিত শাহের তোলা নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল ৩১১-৮০ ভোটে পাস হয়েছে। ভারতের কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার অনুমোদন পাওয়া বিলটি আজই (বুধবার) পার্লামেন্টের উচ্চকক্ষ রাজ্যসভায় তোলার কথা রয়েছে।

মার্কিন কমিশনের তীব্র নিন্দা ভারতের

এদিকে, ভারতে সদ্য পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে মার্কিন কমিশনের অযাচিত পদক্ষেপের তীব্র নিন্দা জানিয়েছে দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র রবীশ কুমার মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে বলেন, 'নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়ে ইউএসসিআইআরএফ-এর দাবি সম্পূর্ণ ভুল এবং পক্ষপাতদুষ্ট মন্তব্য করেছেন তারা। বিষয়টি সম্পর্কে ভালো মতো ওয়াকিবহালও নন। এ ব্যাপারে হস্তক্ষেপের কোনো অধিকার নেই তাদের।'

ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে তৃতীয় কোনো দেশের হস্তক্ষেপ বরদাস্ত করা হবে না বলে এর আগে ইউপিএ আমলেও বারবার জানানো হয়েছিল। এমনকি, ধর্মীয় স্বাধীনতা নিয়ে সমীক্ষা চালাতে ভারতে যেতে চাইলে ইউএসসিআইআরএফ-এর কর্মকর্তাদের ভিসার আবেদনও নাকচ করে দেয় তৎকালীন সরকার। এমনিতে তাদের সুপারিশ মানতে বাধ্য নয় কোনো দেশ। তবে মার্কিন সরকারে তাদের রিপোর্টের যথেষ্ট গুরুত্ব রয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে