logo
শনিবার, ২৫ জানুয়ারি ২০২০, ১১ মাঘ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

যুক্তরাজ্যে নির্বাচন

গৃহহীনদের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন দিতে চান করবিন

কষ্টদায়ক ঘুমানোর ইতি ঘটানোর প্রতিশ্রম্নতি লেবার পার্টির

গৃহহীনদের ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর বাসভবন দিতে চান করবিন
যুক্তরাজ্যের আসন্ন পার্লামেন্ট নির্বাচনে জয়ী হয়ে লেবার পার্টি যদি সরকার গঠন করে, তাহলে দেশটির প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন ১০ ডাউনিং স্ট্রিট গৃহহীনদের থাকার জন্য ছেড়ে দিতে চান দলটির নেতা জেরেমি করবিন। তিনি বলেছেন, 'বিষয়টির সম্ভাব্যতা খতিয়ে দেখা হচ্ছে। প্রথমে কিছু বিষয় জানা দরকার। সত্যিকার অর্থে কারা বাড়িটির মালিক তা সম্পর্কেই আমি জানি না। আমি কখনো সেখানে ছিলাম না, জানি না জায়গাটি কেমন। পিটারবরোতে বৃহস্পতিবার সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে একথা বলেন তিনি। সংবাদসূত্র : ট্রিবিউন, মিরর

জেরেমি করবিন বলেন, 'নির্বাচনে জয়ী হয়ে প্রধানমন্ত্রী হওয়ার জন্য প্রচারণা চালাচ্ছি। এই মুহূর্তে এটিই অনেক বড় কাজ। আমি শুধু প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করতে চাই। চিলটার্ন হিলের কাউন্ট্রি হাউস নিয়ে আমার খুব আগ্রহ নেই।'

শতাব্দী পুরনো এই বাড়িটি দায়িত্বরত ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীকে দান করা হয়েছিল। ডাউনিং স্ট্রিটের ব্যস্ততা থেকে অবকাশ যাপনে বাড়িটি ব্যবহার করা হয়।

নির্বাচনী ইশতেহারে আগামী পাঁচ বছরের মধ্যে কষ্টদায়ক ঘুমানোর ইতি ঘটানোর প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছে লেবার পার্টি। তারা অভিযোগ করেছে, মানুষের পথে থাকতে বাধ্য হওয়া ও মৃতু্যর জন্য কনজারভেটিভ পার্টি সরাসরি দায়ী। করবিন বলেন, যদি তার দল নির্বাচনে জিতে যায়, তাহলে এই শীতে মানুষের জীবন বাঁচানো হবে তাদের নৈতিক মিশন। এই সংকট মোকাবিলায় তারা কয়েক বিলিয়ন পাউন্ডের একটি প্যাকেজ ঘোষণা করবেন।

যুক্তরাজ্যে কষ্টদায়ক ঘুমের ঘটনা ২০১০ সাল থেকে বেড়ে গেছে। ইংল্যান্ড ও ওয়েলসে গত বছর রাস্তায় ঘুমানো মানুষের মৃতু্যর সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭২৬ জন। দেশটির গুরুত্বপূর্ণ তিনটি দলই বিভিন্ন উপায়ে এই সংকট সমাধানের অঙ্গীকার করেছে।

চলতি সপ্তাহে যুক্তরাজ্যের গৃহহীনদের সংকটের কথা উঠে এসেছে আশ্রয় প্রতিবেদনেও। এতে বলা হয়েছে, এবারের বড় দিনে দেশটিতে এক লাখ ৩৫ হাজার শিশু গৃহহীন ও অস্থায়ী আশ্রয়ে থাকবে। লেবার পার্টি আট হাজার নতুন বাড়ি নির্মাণ করতে চায় 'হাউসিং ফার্স্ট' মডেলে, যাতে করে পথে বাস করা মানুষজন সেগুলোতে থাকতে পারে। এসব বাড়ির অর্ধেক দ্রম্নতই নির্মাণ করা হবে এসব মানুষকে আশ্রয় দেওয়ার জন্য। যাতে করে তারা নিজেদের জীবন পুনর্গঠন করতে পারে। বাকি চার হাজার বাড়িতে হোস্টেল থেকে গৃহহীনদের স্থান দেওয়া হবে। দলটি বলছে, এসব ঘর নির্মাণের জন্য ১৫০ বিলিয়ন পাউন্ড আসবে সামাজিক পরিবর্তন তহবিল থেকে। আগামী পাঁচ বছরে দলটি ৬০০ মিলিয়ন (৬০ কোটি) আধুনিক হোস্টেল ফান্ড বরাদ্দ দেওয়া হবে গৃহহীনদের আবাস তৈরির জন্য। এছাড়া বর্তমান হোস্টেলগুলো সংস্কারের জন্য ২০০ মিলিয়ন (২০ কোটি) পাউন্ড বরাদ্দের প্রতিশ্রম্নতি দিয়েছে করবিনের দল।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে