logo
মঙ্গলবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৯, ৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ০৮ নভেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন বিজেপির ফড়নবিসই?

মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন বিজেপির ফড়নবিসই?
দেবেন্দ্র ফড়নবিস
হাতে আর মাত্র এক দিন। তার মধ্যেই সরকার গঠন করতে হবে। ফলে শেষ মুহূর্তে এসে পাল্টে যাচ্ছে ভারতের মহারাষ্ট্রের রাজনৈতিক পরিস্থিতি। তবে রাজ্যটিতে আঞ্চলিক জোট শিবসেনার সঙ্গে বোঝাপড়ায় বিজেপির শীর্ষমহল থেকে দায়িত্ব পাওয়া নীতিন গডকড়ি বৃহস্পতিবার বলেছেন, 'মুখ্যমন্ত্রী হচ্ছেন দেবেন্দ্র ফড়নবিসই।' শিবসেনা জোটে সামিল হবে বলেও আশা তার। সংবাদসূত্র : এনডিটিভি, এবিপি নিউজ

এদিকে, বিজেপির ব্যাপক তৎপরতার বিপরীতে আগের শক্ত অবস্থান থেকে সরে এসেছে শিবসেনা। তবে বিজেপি যাতে ভাগিয়ে নিয়ে যেতে না পারে, সে কারণে দলের বিধায়কদের হোটেলে রেখেছে শিবসেনা। বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই গুঞ্জন ছড়িয়েছিল, শিবসেনার ৫৬ জন বিধায়কের একাংশ বিজেপিকে সমর্থন করতে পারেন। সেই কারণে শিবসেনা তাদের বিধায়কদের মুম্বাইয়ের বান্দ্রা কুরলা এলাকার একটি পাঁচতারা হোটেলে নিয়ে গিয়ে রাখে। তবে সকালের দিকে সেই সম্ভাবনা উড়িয়ে দিয়েছিলেন শিবসেনা মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। সে সময় তিনি বলেছিলেন, 'আমাদের বিধায়করা দলের প্রতি দায়বদ্ধ। যারা এমন গুজব ছড়াচ্ছে, তাদের উচিত আগে নিজেদের বিধায়কদের নিয়ে চিন্তা করা।' কিন্তু এদিন দুপুর নাগাদই শিবসেনা প্রধান উদ্ভব ঠাকরে নিজের বাড়ি মাতোশ্রিতে দলের বিধায়কদের সঙ্গে বৈঠক করেন। তারপরই বিধায়কদের নিয়ে যাওয়া হয় বান্দ্রা কুরলার ওই হোটেলে। এরপরই ধারণা পোক্ত হয়, শিবসেনা বিধায়কদের একাংশের সমর্থন পেতে পারে বিজেপি।

আরও জল্পনা ছিল, গডকড়িকে মুখ্যমন্ত্রী করে শিবসেনার ক্ষোভের পারদ নামানো হতে পারে। কিন্তু সেই সম্ভাবনা বৃহস্পতিবার উড়িয়ে দিয়েছেন গড়কড়ি নিজেই। তিনি বলেন, 'দিলিস্নতেই আমার অনেক কাজের চাপ আছে, এখানে আসার প্রশ্নই আসে না।' প্রবীণ এই নেতা আরও বলেন, 'দেবেন্দ্র ফড়নবিসই দলের পছন্দ এবং তিনিই সরকারের নেতৃত্ব দেবেন।' গড়কড়ি বলেন, 'বিজেপি যেহেতু ১০৫ আসন পেয়েছে। সুতরাং মুখ্যমন্ত্রী হওয়া উচিত বিজেপি থেকেই।'
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে