logo
মঙ্গলবার, ২২ অক্টোবর ২০১৯, ৬ কার্তিক ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০  

ট্রাম্পের সতর্কতা

ইরান ইসু্যতে বিকল্প পথে যুক্তরাষ্ট্র

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে দেশটির ওপর জারি হচ্ছে নতুন নিষেধাজ্ঞা সৌদি আরবের পর সংযুক্ত আরব আমিরাতেও হামলার হুশিয়ারি হুতি বিদ্রোহীদের

ইরান ইসু্যতে বিকল্প পথে যুক্তরাষ্ট্র
ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রের অবশিষ্টাংশ প্রদর্শন সৌদির
সৌদি তেলক্ষেত্রে হামলার জন্য সৌদি আরব এবং তাদের ঘনিষ্ঠ মিত্র যুক্তরাষ্ট্র তেহরানকে দায়ী করার পর ইরানের সঙ্গে যুদ্ধ করা ছাড়াও অনেক বিকল্প আছে বলে মন্তব্য করেছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বুধবার লস অ্যাঞ্জেলসে ট্রাম্প সাংবাদিকদের বলেন, 'অনেক বিকল্প আছে। চূড়ান্ত পদক্ষেপ (যুদ্ধ) তো রয়েছেই, এছাড়াও অনেক বিকল্প আছে। আমরা দেখছি কী করা যায়।' সংবাদসূত্র : বিবিসি, রয়টার্স

এর আগে সৌদি আরব বেশ কিছু ড্রোন ও ক্ষেপণাস্ত্রের অবশিষ্টাংশ প্রদর্শন করে সেগুলো তাদের তেল স্থাপনায় চালানো হামলায় ব্যবহৃত হয়েছে জানিয়ে হামলাটি 'নিঃসন্দেহে তেহরানের সৌজন্যে' হয়েছে বলে দাবি করেছে। সৌদি আরব সফরে গিয়ে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও হামলাটিকে 'যুদ্ধের শামিল' বলে বর্ণনা করেছেন। কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের কণ্ঠে সতর্কতার আভাস ছিল বলে জানিয়েছে মার্কিন গণমাধ্যম।

গত শনিবার সৌদির দুটি তেলক্ষেত্রে চালানো ওই হামলার পেছনে ইরান আছে বলে বারবার দাবি করেছে যুক্তরাষ্ট্র। এরপর সৌদি আরব বলেছে 'বৈশ্বিক মনোভাব পরীক্ষার জন্যই' হামলাটি চালানো হয়েছে। যুক্তরাষ্ট্রের দাবির পথ ধরে এবং সৌদির মন্তব্যের কয়েক ঘণ্টা পরই ট্রাম্প ওই টুইটটি করেন।

এদিকে, সৌদি তেল স্থাপনায় ১৪ সেপ্টেম্বরের ওই হামলার সঙ্গে সম্পর্ক থাকার কথা ফের অস্বীকার করেছে ইরান। ওই হামলায় বিশ্বের সবচেয়ে বড় তেল শোধনাগার ক্ষতিগ্রস্ত হয় এবং তাৎক্ষণিকভাবে বিশ্বের শীর্ষ তেল রপ্তানিকারী দেশ সৌদি আরবের দৈনিক তেল উৎপাদন কমে অর্ধেকেরও নিচে নেমে যায়।

অন্যদিকে, ইয়েমেনের ইরান সমর্থিত বিদ্রোহী হুতি গোষ্ঠী হামলাটির দায় স্বীকার করেছে। ইয়েমেনের তিনটি স্থান থেকে হামলাটি চালানো হয়েছে বলে বুধবার জানিয়েছে তারা। তারা হামলার লক্ষ্যস্থল করতে সৌদি আরবের আরেক ঘনিষ্ঠ মিত্র সংযুক্ত আরব আমিরাতের কয়েক ডজন স্থানের তালিকা করেছে বলেও হুশিয়ারি দিয়েছে। গোষ্ঠীটির এ মন্তব্য পারস্য উপসাগরীয় অঞ্চলে বিরাজমান উত্তেজনাপূর্ণ রাজনৈতিক পরিবেশকে আরও নাজুক করে তুলেতে পারে বলে ধারণা বিশ্লেষকদের।

৪৮ ঘণ্টার মধ্যে নতুন নিষেধাজ্ঞা

জারি করবে যুক্তরাষ্ট্র

এদিকে, ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপের ব্যাপারে ঘোষণা দেবে যুক্তরাষ্ট্র। দেশটির প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প বলেন, সৌদি আরবে তেলক্ষেত্রে হামলায় জড়িত থাকার অভিযোগ ইরানের ওপর এই নিষেধাজ্ঞা জারি করতে যাচ্ছেন তারা।

সাংবাদিকদের ট্রাম্প বলেন, 'আমরা ইরানের ওপর খুবই বিশেষ নিষেধাজ্ঞা আরোপ করতে যাচ্ছি।' এর আগে এক টুইটে তিনি জানিয়েছিলেন, অর্থমন্ত্রী স্টিভেন মুচিনকে ইরানের ওপর অর্থনৈতিক নিষেধাজ্ঞার বাড়ানোর ব্যাপারে নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।

এ বিষয়ে ইরানের পক্ষ থেকে এখনো কোনো বক্তব্য দেয়া হয়নি। তবে এর আগে বুধবার যুক্তরাষ্ট্রের অভিযোগের জবাব দেয় তেহরান। যুক্তরাষ্ট্রকে আনুষ্ঠানিকভাবে হুশিয়ারি দিয়ে বলা হয়েছে, কোনো রকম সামরিক আগ্রাসন চালানোর চেষ্টা করলে তাৎক্ষণিকভাবে পাল্টা জবাবের মুখে পড়তে হবে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে