logo
শনিবার ২৪ আগস্ট, ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

ইসু্য কাশ্মীর

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের আহ্বান পাকিস্তানের

ভারত যেন আমাদের সংযমকে দুর্বলতা না ভাবে : কুরেশি

নিরাপত্তা পরিষদের বৈঠকের আহ্বান পাকিস্তানের
পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি
জম্মু ও কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা রদ করার ভারতের সিদ্ধান্ত নিয়ে বৈঠকে বসার জন্য জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে পাকিস্তান। মঙ্গলবার নিরাপত্তা পরিষদের বরাবর লেখা এক চিঠিতে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি এ আহ্বান জানিয়েছেন। সংবাদসূত্র : রয়টার্স

ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বাতিলের মাধ্যমে জম্মু-কাশ্মীরের বিশেষ মর্যাদা তুলে নেয়ায় দিলিস্নর সিদ্ধান্তের বিষয়ে আগেই জাতিসংঘের দ্বারস্থ হয়েছে পাকিস্তান। তবে ওই আবেদন গ্রহণ করা হয়নি। এবার পুরো বিষয়টি নিয়ে আলোচনার জন্য নিরাপত্তা পরিষদকে চিঠি দিয়ে বিশেষ বৈঠকের অনুরোধ জানিয়েছে ইসলামাবাদ। পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী শাহ মেহমুদ কুরেশি এক আবেদনপত্রে লিখেছেন, 'আমরা কোনো দ্বন্দ্ব চাই না। কিন্তু ভারত যেন আমাদের সংযমকে দুর্বলতা না ভাবে।'

চিঠিতে কুরেশি বলেছেন, ভারতের 'ভয়ঙ্কর' সিদ্ধান্ত নিয়ে নিরাপত্তা পরিষদের সঙ্গে কথা বলতে চাইছেন তারা। এই অবস্থায় ভারত যদি মনে করে তারা পেশিশক্তি দেখাবে, আত্মরক্ষার স্বার্থে পাকিস্তানও সর্বশক্তি দিয়ে প্রতিরোধ করবে। তিনি বলেন, 'ভারত যদি ফের শক্তি প্রয়োগ করার পথে যায়, আত্মরক্ষার জন্য সর্বশক্তি নিয়ে পাকিস্তান জবাব দিতে বাধ্য হবে।' এর আগে গত বৃহস্পতিবার ইসলামাবাদে সংবাদ সম্মেলন করে পাকিস্তানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, যে কোনো ধরনের আগ্রাসনের জবাব দেয়ার অধিকার রয়েছে পাকিস্তানের। তবে আমরা সামরিক উপায়ের কথা ভাবছি না।'

জম্মু-কাশ্মীর পরিস্থিতি নিয়ে চীনের সমর্থন আদায়ের জন্য গত শুক্রবারই চীনের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ওয়াং ই-এর সঙ্গে বেইজিংয়ে দেখা করেছেন পাক পররাষ্ট্রমন্ত্রী। কুরেশি দাবি করেছিলেন, জম্মু কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের জাতিসংঘের দৃষ্টি আকর্ষণের সিদ্ধান্তকে সমর্থন করেছে চীন। যদিও চীন এ বিষয়ে এখনো আনুষ্ঠানিক কোনো বিবৃতি দেয়নি।

আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ্যমগুলো জানিয়েছে, পাকিস্তানের অনুরোধে ১৫ সদস্যের নিরাপত্তা পরিষদ কীভাবে সাড়া দেবে এবং এক্ষেত্রে পরিষদের কোনো সদস্য দেশের আনুষ্ঠানিক অনুরোধ দরকার হবে কি-না, তাৎক্ষণিকভাবে তা পরিষ্কার হয়নি। তাদের এ পদক্ষেপের প্রতি চীনের সমর্থন আছে বলে শনিবার জানিয়েছিল পাকিস্তান।

উলেস্নখ্য, আগস্ট মাসের জন্য নিরাপত্তা পরিষদের সভাপতির দায়িত্ব পালন করছে পোল্যান্ড। মঙ্গলবার জাতিসংঘে এক সংবাদ সম্মেলনে পোল্যান্ডের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইয়াজেক চাপুতোভিজ পাকিস্তানের কাছ থেকে মঙ্গলবার পরিষদ একটি চিঠি পেয়েছে বলে জানিয়েছেন। তিনি বলেছেন, 'ইসু্যটি নিয়ে আলোচনা করে উপযুক্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে।' আর ভারতে নিয়োজিত পোল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত অ্যাডাম বোরাওয়াস্কি জানিয়েছেন, 'নিরাপত্তা পরিষদের অস্থায়ী সদস্য হিসেবে আমরা এই পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুত। নিরাপত্তা ক্ষুণ্ন হয়, এমন যে কোনো সিদ্ধান্তকেই প্রতিহত করব আমরা।'

হিমালয় পর্বতাঞ্চলে অবস্থিত কাশ্মীরের বিভিন্ন অংশ ভারত, পাকিস্তান ও চীনের নিয়ন্ত্রণে আছে। সবচেয়ে জনবহুল মুসলমান সংখ্যাগরিষ্ঠ কাশ্মীর উপত্যকা ও হিন্দু প্রভাবাধীন জম্মু নগরী ও এর আশপাশের অঞ্চল ভারতের শাসনাধীন। আজাদ কাশ্মীর বলে কথিত পশ্চিম দিকের বিশাল একটি অঞ্চল পাকিস্তানের নিয়ন্ত্রণে আছে। আর উত্তর দিকের পর্বতময় একটি এলাকা আকসাই আছে চীনের নিয়ন্ত্রণে। কাশ্মীরের নিয়ন্ত্রণ নিয়ে ১৯৪৭ সালের পর থেকে এ পর্যন্ত ভারত-পাকিস্তান অন্তত তিনবার যুদ্ধে লিপ্ত হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে