logo
শনিবার ২৪ আগস্ট, ২০১৯, ৯ ভাদ্র ১৪২৬

  যাযাদি ডেস্ক   ১৫ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০  

জম্মু-কাশ্মীরে বিক্ষোভের ঘটনা স্বীকার ভারত সরকারের

জ্জ বিষয়টি স্বীকার করা হলেও পুলিশ কোনো গুলি ছোড়েনি বলে দাবি

জম্মু-কাশ্মীরে বিক্ষোভের ঘটনা স্বীকার ভারত সরকারের
৯ আগস্ট কাশ্মীরের শ্রীনগরে বিক্ষোভ
জম্মু-কাশ্মীরকে বিশেষ মর্যাদা দেয়া ভারতীয় সংবিধানের ৩৭০ অনুচ্ছেদ বিলোপের পর ওই জনপদের বিভিন্ন অঞ্চলে বিক্ষোভের যেসব খবর পাওয়া যাচ্ছিল, প্রাথমিকভাবে ভারত সরকার সেগুলো 'অতিরঞ্জিত' ও 'ভুল' বলে দাবি করলেও মঙ্গলবার এক টুইটে শ্রীনগরে হওয়া একটি বিক্ষোভের সত্যতা স্বীকার করেছে তারা। মঙ্গলবার স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের করা এক টুইটে ৯ আগস্ট শ্রীনগরের সাওরা অঞ্চলে হওয়া বিক্ষোভের বিষয়টি স্বীকার করা হলেও বিক্ষোভকারীদের ওপর পুলিশ কোনো গুলি ছোড়েনি বলে দাবি করা হয়। সংবাদসূত্র : বিবিসি

ভারতশাসিত কাশ্মীরকে যোগাযোগ বিচ্ছিন্ন করার পর ৯ আগস্ট শুক্রবার হাজার হাজার মানুষের বিক্ষোভ করার একটি ভিডিও ফুটেজ বিবিসির হাতে আসে, যেটিকে ভারত সরকার দাবি করে, সে রকম কোনো বিক্ষোভ আসলে হয়নি। ১০ আগস্ট ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে টুইট করে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে প্রকাশিত ওই ভিডিওগুলোকে অতিরঞ্জিত বলা হলেও ১৩ আগস্ট আরেকটি টুইটে শ্রীনগরের সাওরা অঞ্চলে হওয়া বিক্ষোভের বিষয়টি স্বীকার করা হয়।

স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্রের নতুন টুইটটিতে বলা হয়, 'গণমাধ্যম শ্রীনগরের সাওরা এলাকার খবর প্রকাশ করেছিল। ৯ আগস্ট স্থানীয় একটি মসজিদ থেকে সাধারণ মানুষ যখন ঘরে ফিরছিল, তখন কিছু দুষ্কৃতকারী তাদের সঙ্গে যোগ দেয় এবং পুলিশের দিকে পাথর ছুড়ে মারে।'

পরে আরেকটি টুইটে বলা হয়, 'আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী ধৈর্যের সঙ্গে পরিস্থিতি সামাল দেয়ার চেষ্টা করে।' তবে ওই টুইটে জোর দিয়ে দাবি করা হয়, অনুচ্ছেদ ৩৭০ বিলোপ করার পর থেকে এখন পর্যন্ত আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর দ্বারা গুলি ছোড়ার ঘটনা ঘটেনি।

এর আগে ১০ আগস্ট রয়টার্সের একটি খবরের সমালোচনা করে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র একটি টুইট করেন। ওই টুইটে বলা হয়, 'রয়টার্সের প্রকাশিত খবরে বলা হচ্ছে ১০ হাজার মানুষ শ্রীনগরে বিক্ষোভ করেছে। এটি সম্পূর্ণ ভুল এবং অতিরঞ্জিত খবর। শ্রীনগর ও বারামুলায় ছোট ছোট কিছু বিক্ষোভ হয়েছে। কিন্তু কোথাও ২০ জনের বেশি মানুষ জড়ো হয়নি।' ৯ আগস্ট শুক্রবার শ্রীনগরের সাওরা এলাকার বিক্ষোভের একটি ভিডিও বিবিসির কাছে আসে। বিবিসির সংবাদদাতা রিয়াজ মাসরুর শ্রীনগর থেকে এটি পাঠান। ভিডিওতে দেখা যায়, হাজার হাজার লোকের সেই বিক্ষোভে কাশ্মীরের স্বাধীনতার পক্ষে মুহুর্মুহু স্স্নোগান উঠছে। ওই বিক্ষোভে পুলিশ টিয়ারগ্যাস ও ছররা গুলিও নিক্ষেপ করে। ভিডিওতে গুলির শব্দ স্পষ্ট শোনা যাচ্ছে, আর দেখা যাচ্ছে বিক্ষোভকারীদের ছোটাছুটি।

বিক্ষোভকারীদের কারও হাতে কালো বা সবুজের ওপরে চাঁদতারা-আঁকা পতাকা, কারও হাতে 'উই ওয়ান্ট ফ্রিডম' লেখা পোস্টার দেখা যায়। মানুষের কণ্ঠেও শোনা যাচ্ছে স্বাধীনতার দাবিতে স্স্নোগান। কয়েকজন এ ভিডিওতে বলছেন তারা কাশ্মীরের স্বাধীনতা চান।

বুধবার ভারতশাসিত কাশ্মীরের পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, ১০ দিন আগে কাশ্মীরের ওপর আরোপ করা ব্যাপক নিরাপত্তা কড়াকড়ি জম্মু থেকে তুলে নেয়া হয়েছে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
close

উপরে