logo
মঙ্গলবার ২২ জানুয়ারি, ২০১৯, ৯ মাঘ ১৪২৫

  যাযাদি ডেস্ক   ১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০  

পনির নিষিদ্ধ করেই ঘুরে দঁাড়াবে ‘নয়া পাকিস্তানের’ অথর্নীতি!

পনির নিষিদ্ধ করেই ঘুরে দঁাড়াবে ‘নয়া পাকিস্তানের’ অথর্নীতি!
পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান
ক্ষমতায় আসার পর থেকেই বার বার পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান দাবি করেছেন, দেশ ঋণের বোঝায় আক্রান্ত। আর সেই ঋণ থেকে মুক্তি পেতে নানা ধরনের উপায় খুঁজে বের করছেন তিনি। বিলাস-ভ্রমণ নিষিদ্ধ করেছেন, বুলেটপ্রæফ গাড়ি নিলামে তুলে অথর্ রাষ্ট্রীয় কোষাগোরে জমা দিচ্ছেন। আবার প্রধানমন্ত্রীর জন্য নিধাির্রত ভবনে না থেকে উঠেছেন তিন কামরার ভবনে। এবার জানা যাচ্ছে এক নতুন তথ্য। অথর্নীতির চাকা ঘোরাতে এবার পাকিস্তানে নিষিদ্ধ হতে যাচ্ছে পনির (চিজ)। সংবাদসূত্র : রয়টাসর্, কে-২৪ নিউজ

দিন কয়েক আগে পাকিস্তানের ‘ইকোনমিক অ্যাডভাইজরি কাউন্সিল’ এক আলোচনায় সিদ্ধান্ত নিয়েছে, বিভিন্ন বিলাসবহুল জিনিসের আমদানি বন্ধ করা হবে পাকিস্তানে। আর এসব জিনিসের তালিকায় রয়েছে স্মাটের্ফান ও চিজ। আচমকা চিজ নিষিদ্ধ হওয়ার কথাই ব্যাপক প্রতিক্রিয়া তৈরি হয়েছে পাকিস্তানিদের মধ্যে।

চিজ নিষিদ্ধ করে কীভাবে ঘুরে দঁাড়াবে পাকিস্তানের অথর্নীতি, সেটাই ভেবে পাচ্ছেন না অনেকে। ওমর কুরেশি নামে এক পাকিস্তানি রীতিমতো হিসাব কষে দেখিয়ে দিয়েছেন, পাকিস্তানের ২০১৭-১৮ অথর্বছরে বাণিজ্য ঘাটতির পরিমাণ ৩৭.৭ বিলিয়ন ডলার। আর দেশটিতে মোট চিজ আমদানি হয় ১৩ মিলিয়ন ডলারের, যা নাকি ঘাটতির তুলনায় মাত্র ০.০৩৪৪ শতাংশ। তাই চিজ নিষিদ্ধ করে পাকিস্তান কতটুকু লাভের মুখ দেখবে, কাযর্ত সেই প্রশ্নই তুলে ধরেছেন তিনি।

এদিকে, এক পাকিস্তানি অথর্নীতিবিদ আশফাক হাসান খান বলেন, ‘পাকিস্তানে প্রচুর বিদেশি চিজ আসছে। বাজার ভরে গেছে বিদেশি চিজে। যে দেশের কাছে ডলার নেই, সেই দেশের পক্ষে কি বিদেশি চিজ খাওয়াটা মানায়?’ এই প্রসঙ্গে এক পাকিস্তানি টুইট করে বলেছেন, ‘নয়া পাকিস্তান আসলে নিমর্ম। তাই চিজ ব্যান করে দিচ্ছে।’

এর আগে ৫৫ টাকায় হেলিকপ্টার চড়ার কথা বলে হাসির পাত্র হয়েছিলেন ইমরান খান। ক্ষমতায় এসেই মন্ত্রীদের সরকারি খরচে রাশ টেনেছেন ইমরান খান। সাফ জানিয়ে দিয়েছেন সরকারি টাকায় ইচ্ছেমতো নিজের ব্যক্তিগত প্রয়োজনে ব্যবহার করতে পারবেন না কোনো নেতা, কমর্কতার্ থেকে শুরু করে প্রধানমন্ত্রী; এমনকি প্রেসিডেন্টও। সরকারি টাকায় বিমানের প্রথম সারিতে ভ্রমণ করা যাবে না। মন্ত্রিসভার এক বৈঠকে এই সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এরপরই শিরোনামে উঠে আসে ইমরানের হেলিকপ্টার যাত্রার খবর। তিনি নাকি পাকিস্তানেই এক বাড়ি থেকে আর এক বাড়ি উড়ে যান হেলিকপ্টারে। সঙ্গে থাকেন তার তৃতীয় স্ত্রী। স্বাভাবিকভাবেই সেই খবরে ইমরানের এই দুনীির্ত-বিরোধিতা নিয়ে প্রশ্ন ওঠে। যিনি সরকারি খরচ কমাতে চাইছেন, তিনি কীভাবে হেলিকপ্টারে চেপে যাওয়ার বিলাসিতা দেখান। কিন্তু তারপরই সেই প্রশ্নের ব্যাখ্যা দেয় পাকিস্তানের সরকার।

দেশটির তথ্যমন্ত্রী ফাওয়াদ চৌধুরী বলেন, হেলিকপ্টার যাত্রা নাকি আসলে সস্তার! প্রতি কিলোমিটারে নাকি খরচ পড়ে মাত্র ৫৫ রুপি। গুগলে হিসাব কষেও দেখান তিনি। তবে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম যে হিসাব দিচ্ছে, তাতে খরচ পড়ে প্রায় সাত হাজার রুপির কাছাকাছি।

পাকিস্তানের অথর্নীতি এখন অনেকটাই চাপের মুখে। মাকির্ন সাহায্য বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকে চোখে সষের্ ফুল দেখছেন। তাই বিভিন্ন খরচ কমিয়ে ফেলা হচ্ছে। এবার তালিকায় যুক্ত হতে যাচ্ছে চিজ। এখন দেখার বিষয়, এসব করে ইমরান খান অথর্নীতির চাকা নড়াতে পারেন কিনা। চাকা ঘোরার প্রশ্ন তো আরও পরে।
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত

সকল ফিচার

রঙ বেরঙ
উনিশ বিশ
জেজেডি ফ্রেন্ডস ফোরাম
নন্দিনী
অাইন ও বিচার
ক্যাম্পাস
হাট্টি মা টিম টিম
তারার মেলা
সাহিত্য
সুস্বাস্থ্য
কৃষি ও সম্ভাবনা
বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি
close

উপরে